artk

আই-টেক ডেস্ক

রোববার, সেপ্টেম্বার ১৫, ২০১৯ ৮:৪৬

মহাকাশে সিমেন্ট গুলছেন বিজ্ঞানীরা

media

মহাকাশে বসে সিমেন্ট গুলছেন বিজ্ঞানীরা। হ্যা, কয়েক মাস ধরেই ইন্টারন্যাশনাল স্পেস স্টেশনে (আইএসএস) এ কাজ চলছে। মহাকাশের ওজন শূন্য অবস্থা বা মাইক্রোগ্র্যাভিটির মায়া কাটিয়ে সিমেন্ট যদি একবার শক্ত হয়ে এঁটে বসে, তাহলেই কেল্লাফতে! চাঁদে বানানো হবে বাড়ি।

আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশনে সব কিছুই প্রায় ওজন শূন্য দশায় থাকে। সেখানে নিচে টেনে নামানোর ‘শক্তি’ অভিকর্ষ বলটাই নেই। যাকে বলে, ‘মাইক্রোগ্র্যাভিটি’। ফলে মহাকাশচারীসহ সব কিছুকেই ভেসে থাকতে হয় মহাকাশে। এ মাইক্রোগ্র্যাভিটি নিয়ে আইএসএসে গবেষণা বহু বছর ধরেই চলছে।

এ মাইক্রোগ্র্যাভিটিকে চ্যালেঞ্জ করেই মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসার প্রজেক্ট সিমেন্ট সলিডিফিকেশন। অর্থাৎ এই বিনা-অভিকর্ষজ বলের মধ্যেই সিমেন্টকে নির্দিষ্ট পদ্ধতিতে মিশিয়ে, জমিয়ে শক্ত করা। নাসার এ প্রকল্পের পোশাকি নাম ‘মাইক্রোগ্র্যাভিটি ইনভেস্টিগেশন অব সিমেন্ট সলিডিফিকেশন (এমআইসিএস)।’

এই জমানো সিমেন্ট হবে বর্ম- এমনটাই জানিয়েছে নাসা। পৃথিবীর কক্ষপথে ঘুরতে থাকা এ আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশনে তেজস্ক্রিয় রশ্মিরা আগেও হানা দিয়েছিল। সিমেন্টের বর্ম থাকলে যে কোনো মহাজাগতিক রশ্মির হাত থেকে মহাকাশচারীদের বাঁচানো যাবে। পাশাপাশি তাপমাত্রার ভারসাম্য বজায় থাকবে। নাসার পরবর্তী মিশন চাঁদে ও মঙ্গলে মানুষ পাঠানো।

এ মাইক্রোগ্র্যাভিটির সঙ্গে যুদ্ধে সিমেন্ট যদি জিতে যায়, তাহলে আগামী দিনে চাঁদে বাড়ি বানাতে কোনো সমস্যাই হবে না। মঙ্গলেও মহাকাশচারীদের থাকার একটা হিল্লে হবে। পেনসিলভানিয়া স্টেট ইউনিভার্সিটির প্রিন্সিপাল ইনভেস্টিগেটর আলেকসান্দ্রা রাডলিঙ্কসা জানিয়েছেন, সিমেন্ট সলিডিফিকেশন প্রজেক্টে সাফল্য মিললে শুধু নাসা নয়, বিশ্বের যে কোনো দেশের মহাকাশচারীদের অনেক সুবিধা হবে। সূত্র : দ্য ওয়াল।

চাঁদপুরে ৪ টি ইটভাটা গুড়িয়ে ৪৪ লাখ টাকা জরিমানা আদনান সামির নাগরিকত্ব নিয়ে প্রশ্ন রাজা মুরাদের স্কাউটরাই জাতির পিতার স্বপ্নের বাংলাদেশ বিনির্মাণে নেতৃত্ব দেবে: রাষ্ট্রপতি চীনে ভাইরাস: শাহজালাল বিমানবন্দরে বিশেষ সতর্কতা বিশ্বের প্রথম কৃত্রিম মানব ‘নিওন’ খান টোবকোর সত্বাধিকারী সহ ২ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট বাবার সাথে অভিমান কিশোরীর আত্মহত্যা ওয়েট অ্যান্ড সি: সাঈদ খোকনের ব্যাপারে দুদক চেয়ারম্যান আগামীতে আইসিসির সব আয়োজনে বিড করবে বাংলাদেশ: পাপন যশোরে ৯৪টি সোনার বারসহ ৩ যুবক আটক ১৯ সদস্যের প্রাথমিক টেস্ট দল ঘোষণা পাকিস্তানের পুঁজিবাজারে সূচক উত্থান ৯ মাসে যানজট নিরসন করতে দেখিনি, ৩ মাসে কি করবেন: আতিকুলকে তাবিথ নির্বাচনকে বিএনপি তাদের নেত্রীকে মুক্ত করার আন্দোলন মনে করছে: তাপস ইনিংস ব্যবধানে হারের আগে মহারাজের লড়াই দলের প্রয়োজনে জ্বলে উঠতে প্রস্তুত শান্ত সিঙ্গেল ডিজিটে সুদের ঋণ হলে বিনিয়োগ বাড়বে: ডিসিসিআই সভাপতি যুব বিশ্বকাপ: অচেনা স্কটল্যান্ডকেও হারাতে মরিয়া যুবটাইগাররা ব্রিজে ছবি তুলতে গিয়ে ধসে পড়ে নিহত ৯ আচরণবিধি বিধি লঙ্ঘন ঠেকানো না হলে জনগণের আস্থার সঙ্কট হবে: মাহবুব ইনজামাম-ধোনিকে টপকে গেলেন কোহলি লিফট দুর্ঘটনায় করণীয় দেশে ভোটার ১০ কোটি ৯৬ লাখ ৬ হাজার ১৮৭ খুলনায় যুবককে হত্যার দায়ে ৬ জনের যাবজ্জীবন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র নির্বাচন পর্যবেক্ষণ করবে: মার্কিন রাষ্ট্রদূত আরও ১৪ জেলার শিক্ষক নিয়োগ হাইকোর্টে স্থগিত বিজেপির নতুন সভাপতি হলেন জেপি নাড্ডা শেখ হাসিনার জনসভায় গণহত্যার মামলায় ৫ জনের মৃত্যুদণ্ড বাংলাদেশি অর্থ পাচারকারীদের বিরুদ্ধে প্রবাসীদের মানববন্ধন রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে মিয়ানমারকে সহায়তা দিবে চীন