artk
মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বার ২৪, ২০১৯ ২:৪৫   |  ৮,আশ্বিন ১৪২৬

নিউজ ডেস্ক

বৃহস্পতিবার, আগষ্ট ২২, ২০১৯ ১০:৪৭

‘আরার রোহিঙ্গা মানি লইলে যাইয়ুম’

media

কক্সবাজার থেকে শরণার্থী রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে প্রত্যাবাসন শুরু করার আরো একটি চেষ্টা বৃহস্পতিবার হওয়ার কথা রয়েছে। এই খবরে আতঙ্কে রয়েছেন মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গা শিবিরে বসবাসকারী শরণার্থীরা। কক্সবাজারের উখিয়ায় রোহিঙ্গা শিবিরে বাস করা শরণার্থীরা বিবিসি বাংলাকে একথা জানিয়েছেন।

তারা বলছেন, মিয়ানমার তাদের দাবি মেনে না নেয়া পর্যন্ত স্বেচ্ছায় প্রত্যাবাসন করতে চায় না তারা।

উখিয়ায় ১৩ নম্বর রোহিঙ্গা শিবিরের বাসিন্দা খিন মং। একইসাথে রোহিঙ্গাদের অধিকার আদায়ের পক্ষে কাজ করা সংগঠন রোহিঙ্গা ইয়ুথ অ্যাসোসিয়েশনের প্রতিষ্ঠাতাও তিনি।

খিন মং জানান, রোহিঙ্গা শিবিরের পরিস্থিতি এই মুহূর্তে স্বাভাবিক। ইউএনএইচসিআরসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ জোর করে রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন না করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। তবে তারপরও তাদের মধ্যে এক ধরনের ভয় কাজ করছে, তাদের জোর করে ফেরত পাঠানো হবে কিনা।

২০১৭ সালের ২৫ আগস্টের পর মিয়ানমার থেকে পালিয়ে এসে বাংলাদেশে আশ্রয় নেন কয়েক লাখ রোহিঙ্গা।

এরপর জাতিসংঘসহ নানা সংস্থার নানা উদ্যোগের পর বাংলাদেশ ও মিয়ানমার সরকারের আলোচনায় রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে সিদ্ধান্ত হয়েছিল। ২০১৮ সালের ২৩ জানুয়ারি প্রত্যাবাসন শুরুর কথা থাকলেও শেষ পর্যন্ত তা আর হয়নি।

এবার আবারও ২২ আগস্ট প্রত্যাবাসনের একটি সম্ভাব্য তারিখ মিয়ানমারের পক্ষ থেকে প্রকাশের পর বাংলাদেশের রোহিঙ্গা ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন বিষয়ক কমিশন জানায়, প্রায় সাড়ে তিন হাজার রোহিঙ্গাকে ২২ আগস্ট ফেরত পাঠানোর বিষয়ে কাজ চলছে।

রোহিঙ্গা নেতা খিন মং বলেন, “প্রত্যাবাসন নিয়ে এই মুহূর্তে রোহিঙ্গা শিবিরের কেউই কোনো ধরনের মন্তব্য করতে চায় না। এমনকি যেসব পরিবার প্রত্যাবাসনের তালিকায় রয়েছে তারা এ বিষয়ে খোলাখুলি কথা বলতেও ভয় পাচ্ছে। প্রত্যাবাসনের তালিকায় যাদের নাম রয়েছে তারা জানিয়ে দিয়েছে যে তারা ফেরত যেতে চায় না।”

খিন মং বলেন, “মিয়ানমার সরকার যে ভেরিফিকেশন কার্ডের কথা বলছে তা আসলে নিতে চান না তারা। এমন কার্ড বিদেশিদের দিয়ে থাকে মিয়ানমার সরকার। এর পরিবর্তে মিয়ানমারের বৈধ ও পূর্ণ নাগরিকত্বের স্বীকৃতি চান তারা।”

তার দাবি, মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। এছাড়া রোহিঙ্গাদের বসতবাড়ি ফিরিয়ে দিতে হবে। সাথে তাদের যেসব ঘরবাড়িসহ সব ধরনের সম্পত্তি অন্যরা দখল করে নিয়েছে সেগুলো উদ্ধার করে ফেরত দিতে হবে। আর এসব দাবি নিশ্চিত হলেই স্বেচ্ছায় মিয়ানমারে ফিরতে রাজি তারা।

একই ধরনের কথা জানিয়েছেন রোহিঙ্গা শিবিরের আরো দুই বাসিন্দা।

প্রত্যাবাসনের তালিকায় থাকা একজন রোহিঙ্গা শরণার্থী পরিচয় প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, “মিয়ানমার সরকার তাদের দাবি মেনে না নিলে ফেরত যেতে চান না তারা।”

ওই বাসিন্দা বলেন, “২২ তারিখে ন। আরার কার্ড, আরার রোহিঙ্গা মানি লইলে আরা যাইয়ুম দি। আরার ক্ষতিপূরণ ব্যাককান দি চাইলে, আরা যিন হইর, হেনদি ওরে যাইলে, তয় আরা যাইয়ুম। নইলে আরা ন যাইয়ুম।”

“বিহানে দিলে সন্ধ্যায় যাইয়ুম। অহন দিলে অহন যাইয়ুম,” তিনি বলেন।

যাদের প্রত্যাবাসিত করার জন্য তালিকাভুক্ত করা হয়েছে তারা স্বেচ্ছায় ফেরত যেতে চান কিনা তা জানতে ওই রোহিঙ্গাদের সাক্ষাৎকার নিয়েছে শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশন, ইউএনএইচসিআরসহ সহযোগী সংস্থার প্রতিনিধিরা।

তবে নাম প্রকাশ না করার শর্তে প্রত্যাবাসনের এই তালিকায় থাকা এক নারী রোহিঙ্গা শরণার্থী জানান, ভয়ে সাক্ষাৎকার দিতেই যাননি তিনি।

রোহিঙ্গাদের এমন আতঙ্কের বিষয়ে মিয়ানমার এবং বাংলাদেশে কর্মরত ৬১টি স্থানীয়, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক বেসরকারি সংস্থা বুধবার এক যৌথ বিবৃতি দিয়েছে।

যাতে রোহিঙ্গাদের নিরাপদ, স্বেচ্ছা ও মর্যাদাপূর্ণ প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া নিশ্চিতের জন্য বাংলাদেশ ও মিয়ানমার সরকারের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে।

‘পরিচালক আমার শরীরের প্রতি ইঞ্চি দেখতে চেয়েছিলেন’ বেআইনি কর্মকাণ্ডের অভিযোগে কিশোরগঞ্জে বাণিজ্যমেলা বন্ধ ছাত্রদলের ওপর হামলা দেশের রাজনীতিতে অশনিসংকেত: ফখরুল ক্যাসিনো ব্যবসায়ীদের আয়কর ফাইল খতিয়ে দেখছে এনবিআর কখনো দাবি করিনি, আওয়ামী লীগ ধোয়া তুলসীপাতা: কাদের বাংলাদেশে প্রতিনিধি নিয়োগ দেবে ফেইসবুক ‘রোহিঙ্গাদের এনআইডি তৈরিতে ইসির ১৫ কর্মকর্তা-কর্মচারী জড়িত’ মগবাজারে ‘পিয়াসী বার’ ঘিরে রেখেছে পুলিশ মুশফিকের চেয়ে লিটন ফিল্ডিংয়ে ভালো! স্পা সেন্টারে অভিযান: রিমান্ডে ২ পুরুষ, কারাগারে ১৬ নারী ফাইনালে সেরা পারফরম্যান্স দেখতে চান প্রধান কোচ ডমিঙ্গো জয় নিয়েই দেশে ফিরতে চায় আফগানরা বাঘারপাড়ায় দুস্থদের চাল নিয়ে নয়ছয় ছাত্রদলের নতুন কমিটির কার্যক্রমে আদালতের স্থগিতাদেশ চীন সফরে তালেবান প্রতিনিধি দল ক্যাসিনোয় জড়িত কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে মন্ত্রণালয় ব্যবস্থা নেয়নি জমি দখলের অভিযোগে মোসাদ্দেক আলী ফালুর বিরুদ্ধে মামলা হবিগঞ্জে সাংবাদিক হত্যা মামলায় ৩ জনের যাবজ্জীবন ক্যাসিনো-জুয়া: ফু-ওয়াং ক্লাবে পুলিশের অভিযান হোয়াটসঅ্যাপ স্ট্যাটাস শেয়ার দেয়া যাবে ফেসবুকে আশুগঞ্জ পাওয়ার বন্ডের আইপিও আবেদন শুরু কেনিয়ায় স্কুল ধসে পড়ে ৭ শিশুর মৃত্যু মালয়েশিয়ার হাসপাতালে জয়নাল হাজারী চাঙ্গা পুঁজিবাজার রোহিঙ্গাদের এনআইডি: নির্বাচন কর্মকর্তাসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে দুদক মাছ উৎপাদনে বিশ্বে অষ্টম স্থানে বাংলাদেশ খুলনায় ৫ পুলিশের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা আফগানিস্তানে বিয়ের অনুষ্ঠানে সেনা হামলা: নিহত ৩৫ ‘গডফাদার-গ্র্যান্ডফাদার যারাই অপরাধ করবে শাস্তি পেতে হবে’ মাদক-দুর্নীতির চক্র না ভাঙ্গা পর্যন্ত অভিযান চলবে: কাদের