artk

স্বাস্থ্য-পুষ্টি ডেস্ক

রোববার, আগষ্ট ১৮, ২০১৯ ৮:৩৪

কানে ব্যথা হলে কি করবেন?

media

কানে ব্যথা, কান ভারী লাগা বা কানের সমস্যার পেছনে লুকিয়ে থাকতে পারে কানের ইনফেকশন। শুধুমাত্র শীতকালে ঠাণ্ডা লেগেই কিন্তু কানে ইনফেকশন হয় না। সারা বছরেই কানে ইনফেকশন হতে পারে। তবে কেন এই ইনফেকশন হয় এবং কিভাবে তা রোধ করা সম্ভব, তা আগে জেনে রাখা ভালো।

কানের ইনফেকশন কেন হয়?

সাধারণত কানের বাইরের দিকে বা মিড্‌ল ইয়ারেই ইনফেকশন হয়ে থাকে। চিকিৎসকরা বলছেন, ঠাণ্ডা লাগলে নাকের সর্দিটা কানের দিকে চলে গিয়ে ইনফেকশন বাধায়। বড় থেকে বাচ্চা সকলেরই কানের ইনফেকশন হতে পারে। এখন শরীর সুস্থ রাখতে অধিকাংশ লোকই সাঁতার কাটে। তার পরে কান পরিষ্কার করতে ইয়ার বাড ব্যবহার করে। ফলে খুব সহজেই কানে ব্যাকটিরিয়া প্রবেশ করে ও ইনফেকশন হতে পারে। এক্সটার্নাল ইয়ারে তখন ফাঙ্গাল ইনফেকশন হওয়াটা খুব স্বাভাবিক।

অনেকেরই স্বভাব থাকে কটন বাড দিয়ে সারাক্ষণ কান পরিষ্কার করার। সেটা আরও বিপজ্জনক। মনে রাখতে হবে, সেগুলো হলো কটন বাড। ইয়ার বাড নয়। প্রত্যেকের কানেই একটা ওয়্যাক্সের স্তর থাকে, যা কানের অন্দরমহলকে বাইরের ধুলোবালি থেকে রক্ষা করে। কিন্তু ঘনঘন কটন বাড দিয়ে কান খোঁচালে সেই স্তর নষ্ট হয়ে যায়। আর তার সঙ্গে যারা সাঁতার কাটেন, তাদের ইনফেকশন হওয়ার আশঙ্কা বেড়ে যায়। কারণ সুইমিং পুলের জলে একাধিক মানুষ সাঁতার কাটেন। সেই জলে ইনফেকশনের ভয় থেকেই যায়।

এ ছাড়াও খুব ঠাণ্ডা লেগে আপার রেসপিরেটরি ট্র্যাকে ইনফেকশন হলে তা পৌঁছে যেতে পারে কানে। সে ক্ষেত্রে চিকিৎসকের পরামর্শ নেয়া জরুরি।

ব্যথা হলে কী করবেন?

বাচ্চাদের কানে ইনফেকশন খুব স্বাভাবিক। বাচ্চাদের কানে ব্যথা হলে তারা কানে হাতই দিতে দেয় না। সে ক্ষেত্রে কী করা যেতে পারে? বাচ্চার কানে বেশি হাত না দেয়াই ভালো। টর্চ দিয়ে ভেতরে কী হয়েছে তা কান টেনে দেখার চেষ্টা করলে বাচ্চার আরও ব্যথা বাড়তে পারে। বরং অল্প অল্প করে সেঁক দেয়া যেতে পারে। গরম তেল জাতীয় কোনও কিছু কানের ভেতরে দেবেন না। একই বাচ্চার বারবার ইনফেকশন হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

যে বিষয়ে খেয়াল রাখবেন

• বাচ্চারা যাতে কানে কিছু দিয়ে খোঁচাখুচি না করে, সে দিকে খেয়াল রাখা জরুরি। বাচ্চার সামনে আপনাকেও সংযত থাকতে হবে

• অনেক সময়ে গরম জলের ভাপ নিলেও কানের ব্যথা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়

• প্রত্যেকটি ইয়ারড্রপ ব্যবহারের একটি নির্দিষ্ট সময়সীমা থাকে। কোনো মতেই পুরনো ইয়ারড্রপ ব্যবহার করবেন না

• কানে আঙুল দিয়ে খোঁচাবেন না। নখ বড় থাকলে তা থেকে ইনফেকশন হওয়ার আশঙ্কা থাকে

বড়দের ক্ষেত্রেও মোটামুটি একই বিধান। কানে ব্যথা হলে পরিষ্কার কাপড় দিয়ে হালকা সেঁক নেয়া যেতে পারে। কানে পানি ঢুকে গেলে অনেকেই ফের কানে পানি ঢুকিয়ে সেই কান পরিষ্কার করার চেষ্টা করেন। সেটা কিন্তু একেবারেই উচিত নয়। বরং তোয়ালে দিয়ে চেপে চেপে যতটা পানি মুছে নেয়া যায়, মুছে নিন। বাকিটা ঠিক সময় মতো বেরিয়ে যাবে।

কান পরিষ্কার রাখতে কী করতে হবে?

কান পরিষ্কার রাখার জন্য বাইরে থেকে কিছু করার প্রয়োজন নেই। কানকে নিজের মতো থাকতে দিন। কান নিজেই নিজেকে পরিষ্কার রাখতে সক্ষম। কান পরিষ্কার করতে বারবার কটন বাড ব্যবহার করা, পানি দেয়ার স্বভাব থাকলেই বরং কানে ইনফেকশনের আশঙ্কা বাড়তে পারে।

তার চেয়ে বরং রোজ গোসলের পরে তোয়ালে দিয়ে কানের যতটা অংশ পারবেন, মুছে নিন। জোর করে কানের ভেতরে খোঁচাখুচি করবেন না।

সতর্ক থাকুন

• ছোট বাচ্চাকে কোলে শুইয়ে দুধ খাওয়ানোর সময়ে খেয়াল রাখবেন, তার কানে যেন দুধ চলে না যায়। অনেক সময়েই বাচ্চাদের কানে দুধ ঢুকে ইনফেকশন হওয়ার ভয় থাকে।

• সেফটিপিন বা কোনো কাঠি দিয়ে কখনওই কান খোঁচাবেন না।

• মোবাইলের সঙ্গে সকলেই প্রায় ইয়ারফোন ব্যবহার করে থাকেন। কারও সঙ্গে ইয়ারফোন শেয়ার না করাই ভালো। নিজের ইয়ারফোনও আলাদা বাক্সে ভরে ব্যাগে বা পকেটে ক্যারি করুন। ইয়ারফোন ব্যাগের মধ্যে ফেলে রেখে দিলে তাতে ধুলোবালি ও ব্যাকটিরিয়া বাসা বাঁধতে পারে। কানে গোঁজার সময়ে তা সহজেই কানের ভিতরে প্রবেশ করে। ফলে ইনফেকশন হতে বেশি সময় লাগে না।

• কান ভারী লাগলে বা কানে শুনতে অসুবিধে হলে তখনই চিকিৎসকের শরণাপন্ন হতে হবে।

• অনেক সময়ে কান কিংবা গলায় ব্যথা হলেও তার কারণ খুঁজে পাওয়া যায় না। তখন কানের গর্তের নিচের অংশে আঙুল দিয়ে ধরে মুখ হাঁ করার চেষ্টা করুন। এতে যদি কান আর গলার সংযোগস্থলে ব্যথা লাগে, বুঝতে হবে আর্থ্রাইটিস হয়েছে। টিএম (টেম্পোরো ম্যান্ডিবুলার) জয়েন্টে আর্থ্রাইটিস হলে এ রকম ব্যথা হতে পারে।

কান ধরে বেশি টানাটানি না করে বরং ওকে ওর মতোই থাকতে দিন। দেখবেন, সে নিজেও ভালো থাকবে, আপনিও সুস্থ থাকবেন।

পুঁজিবাজারে সব ধরনের সূচক পতন মারা গেছেন হোসনি মোবারক প্রাথমিকে বৃত্তি পেলো ৮২ হাজার ৪২২ শিক্ষার্থী কেন্দ্রীয় ভর্তি পরীক্ষায় জাবিরও না সিটি ব্যাংকের ৩০০ কোটি টাকার বন্ড অনুমোদন চট্টগ্রামে ৩ ইয়াবা ব্যবসায়ীকে ১৫ বছরের কারাদণ্ড পৌর নির্বাচন: চাঁদপুরে আ.লীগের মেয়র পদপ্রার্থী জুয়েল এনু-রুপনের আরেক বাড়ির পাঁচ সিন্দুকে ২৬ কোটি টাকা ৭ মার্চকে জাতীয় দিবস ঘোষণা করে হাইকোর্টের রায় মুজিববর্ষে এশিয়া ও বিশ্ব একাদশে খেলবে যারা সিএসইর নতুন চেয়ারম্যান আসিফ ইব্রাহিম বউয়ের পছন্দেই মুমিনুলের জার্সি নম্বর বদল জিম্বাবুয়েকে ইনিংস ব্যবধানে হারালো টাইগাররা দুদক ক্ষমতাসীনদের প্রতি নমনীয়তা প্রদর্শন করে: টিআইবি ঢামেক থেকে নবজাতকের ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার সিরাজগঞ্জে বাস-ট্রাক সংঘর্ষে নিহত ২ এনামুল-রুপনের আরেক বাসায় অভিযানের প্রস্তুতি র‌্যাবের ট্রাম্পের সফরের মধ্যেই রণক্ষেত্র দিল্লি, নিহত ৭ লাঞ্চ বিরতিতে ৫ উইকেটে জিম্বাবুয়ের সংগ্রহ ১১৪ বুধবার শিল্পকলা একাডেমিতে প্রাচ্যনাটের ‘খোয়াবনামা’ পিলখানা হত্যাকাণ্ডের ১১ বছর ভারতের কাছে হার দিয়ে বিশ্বকাপ শুরু সালমাদের আ’লীগ নেতা এনামুল-রুপনের বাড়িতে মিললো ৫ সিন্দুকভর্তি টাকা ভাতঘুমে কমবে রক্তচাপ নিজের ড্রাইভারের নামেই মামলা দিলেন ময়মনসিংহের এসপি পাপিয়াদের দল থেকে ঝেঁটিয়ে বিদায় করা হবে: আব্দুর রহমান নড়াইলে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যানকে কুপিয়ে হত্যা মদিনায় সড়ক দুর্ঘটনায় ৩ বাংলাদেশি নিহত মাইগ্রেনের ব্যথায় চা কফি এড়িয়ে চলতে হবে পবিত্র শবে মেরাজ ২২ মার্চ