artk
বৃহস্পতিবার, আগষ্ট ২২, ২০১৯ ২:১২   |  ৭,ভাদ্র ১৪২৬

ভোলা সংবাদদাতা

বুধবার, আগষ্ট ১৪, ২০১৯ ১:০৭

ধর্ষকদের লাশ দেখে খুশিতে কাঁদলেন স্কুলছাত্রীর বাবা

media

চাঁদরাতে মেহেদি দিয়ে হাত রাঙাতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীর দুই ধর্ষকের লাশ দেখে খুশিতে কেঁদে ফেললেন স্কুলছাত্রীর বাবা। ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত দুই ব্যক্তি স্কুলছাত্রী গণধর্ষণ মামলার প্রধান দুই আসামি ছিলেন।

নিহতরা হলেন- সদর উপজেলার চরসামাইয়া ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের সৈয়দ আহম্মেদের ছেলে আল আমিন (২৫) ও কামাল মিস্ত্রির ছেলে মঞ্জুর আলম (৩০)।

স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণের ঘটনার দুইদিন পর ভোলা সদর উপজেলায় মঙ্গলবার রাত আড়াইটার দিকে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হলেন তারা।

খবর পেয়ে বুধবার সকালে ভোলা সদর হাসপাতালে ছুটে যান সদর উপজেলার চরসামাইয়া ইউনিয়নের চরসিপলি গ্রামের বাসিন্দা গণধর্ষণের শিকার স্কুলছাত্রীর বাবা কৃষক মো. হানিফ।

এ সময় মর্গে ধর্ষকদের লাশ পড়ে থাকতে দেখে খুশিতে কেঁদে ফেলেন কৃষক হানিফ। মেয়েকে ধর্ষণকারী দুই ধর্ষকের লাশ নিজের চোখে দেখে কান্নাজড়িত কণ্ঠে হানিফ বলেন, “মনে অনেক শ‌ান্তি পেলাম। পুলিশকে অনেক ধন্যবাদ।”

হানিফ আরও বলেন, “সকালে খবর পেয়ে আমি হাসপাতালে ছুটে আসি। দুই ধর্ষকের লাশ দেখে আমার মনে স্বস্তি ফিরে এসেছে। যারা আমার মেয়ের জীবন শেষ করে দিয়েছে আমি তাদের এভাবেই শেষ দেখার অপেক্ষায় ছিলাম। আমার মেয়ের সঙ্গে যা ঘটেছে তার সঠিক বিচার পেয়েছি আমি। ধর্ষকদের এভাবেই শাস্তি হওয়া উচিত।”

ভোলা সদর মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ছগির মিয়া জানান, মঙ্গলবার গভীর রাতে আমরা গোপনে সংবাদ পাই সদর উপজেলার রাজাপুর ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের দক্ষিণ রাজাপুর এলাকায় নদীর পাড়ে টাকা ভাগাভ‌াগি নিয়ে ‘বন্দুকযুদ্ধ’ চলছে দুই ডাকাত গ্রুপের। খবর পেয়ে সেখানে অভিযানে যাই আমরা। তখন আমাদের উপস্থিতি টের পেয়ে পুলিশের ওপর গুলি চালায় ডাকাতদের দুই গ্রুপ। এ সময় আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছোড়ে পুলিশ। ত্রিমুখী ‘বন্দুকযুদ্ধের’ একপর্যায়ে দুইজন নিহত হয়। তখন ট্রলার নিয়ে পালিয়ে যায় ডাকাতরা। পরে ঘটনাস্থল থেকে একটি বন্দুক, আট রাউন্ড গুলি ও দুটি রামদাসহ গুলিবিদ্ধ দুইজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। রাতেই তাদের লাশ মর্গে পাঠানো হয়।

ওসি আরও বলেন, “আমরা নিহতদের পরিচয় জানতাম না। বুধবার সকালে চরসামাইয়া ইউনিয়নের চরসিপলি গ্রামের কৃষক মো. হানিফ ভোলা সদর হাসপাতালে গিয়ে নিহতদের লাশ শনাক্ত করেছেন। একই সঙ্গে হানিফ জানিয়েছেন নিহত দুই ব্যক্তি তার মেয়ের ধর্ষক। এর মধ্যে একজন আল আমিন অপরজন মঞ্জুর আলম। চাঁদরাতে মেহেদি দিয়ে সাজতে গিয়ে তাদের হাতে গণধর্ষণের শিকার হয় ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী।”

গণধর্ষণের শিকার স্কুলছাত্রীর পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, সদর উপজেলার উপজেলার চরসামাইয়া ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের চরসিফলি গ্রামের এক কৃষক ঈদ উপলক্ষে তার আদরের দুই মেয়ের জন্য বাজার থেকে মেহেদি কিনে আনেন।

উল্লেখ্য, ১১ আগস্ট সন্ধ্যার দিকে তাদের বাবা গরু বিক্রি করার টাকা আনতে ভোলা শহরে যান। বাবা শহরে চলে যাওয়ার পর দুই বোন রাত ৮টার দিকে প্রতিবেশী দুঃসম্পর্কের আত্মীয় মাহফুজের স্ত্রীর কাছে হাতে মেহেদি দিয়ে সাজতে যায়। ওই সময় আগে থেকে অপেক্ষমাণ মাহফুজের ঘরের ভাড়াটিয়া আল আমিন ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ুয়া স্কুলছাত্রীকে ডেকে তার ঘরে নিয়ে যায়। এ সময় আলমিনের স্ত্রী ঘরে ছিল না। এ সুযোগে ওই ছাত্রীকে আলামিন ও তার সহযোগী মঞ্জুর আলম হাত-পা ও মুখে কাপড় বেঁধে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। বর্তমানে মেয়েটি বরিশালের শের-ই-বাংলা চিকিৎসা মহাবিদ্যালয় ( শেবাচিম) হাসপাতালে রয়েছে।

নেত্রকোণা অপহৃত স্কুলছাত্রী দীপ্তি টঙ্গী থেকে উদ্ধার রোহিঙ্গাদের অনাগ্রহে শুরু হয়নি প্রত্যাবাসন নর্তকী থেকে বাইজেন্টাইন সাম্রাজ্যের মধ্যমণি হাইকোর্টের তিন বিচারপতিকে দায়িত্ব পালন থেকে সাময়িক অব্যাহতি আলিঙ্গনরত অবস্থায় ‘কপোত-কপোতীর’ বজ্রপাতে মৃত্যু ড্রিমলাইনার ‘গাংচিল’ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী সব ভাইয়ের এক বউ ঠাকুরগাঁওয়ে দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ৩ উদ্বোধনের অপেক্ষায় বিমানের ড্রিমলাইনার ‘গাংচিল’ ব্রিটেনের শয়তানিসুলভ পদক্ষেপে কাশ্মীরে সংকট: খামেনি ‘আরার রোহিঙ্গা মানি লইলে যাইয়ুম’ সোনারগাঁয়ে মসজিদ থেকে ইমামের গলাকাটা লাশ উদ্ধার রিয়াল বেটিসের বিপক্ষে ফেরার আশা মেসির টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ রোহিঙ্গা নিহত মাদারীপুরে মাদ্রাসাছাত্রীকে ধর্ষণ মামলায় গ্রেপ্তার ২ শারীরিক সম্পর্কের অভিযোগ নিয়ে ‍মুখ খুললেন নোবেল ভেজাল মদ খেয়ে চট্টগ্রামে ৩ বন্ধুর মৃত্যু, আটক ৪ বিশ্বের সবচেয়ে দামি কলম হঠাৎ দোকানে ঢুকে সবাইকে চা বানিয়ে খাওয়ালেন মমতা রোজ কয়টা ডিম খেলে ক্ষতি নেই? নিখোঁজের পর লাশ হয়ে ফিরলো নসিমন চালক মাঝ রাতে গার্মেন্ট শ্রমিকদের সড়ক অবরোধ ময়মনসিংহে হত্যা মামলার আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ভারতের সাবেক অর্থমন্ত্রী পি চিদাম্বরম গ্রেপ্তার জিয়াউর রহমান মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন না, চ্যালেঞ্জ আমুর এক গানেই ২ কোটি রুপি পারিশ্রমিক! সুযোগ পেয়ে দেশ ছাড়লেন ১ হাজার সৌদি নারী! যে সুখবর দিলেন ডিপজল প্রশিক্ষণ দিয়ে উদ্যোক্তা সৃষ্টিই বিডা’র উদ্দেশ্য রক্ত পরীক্ষায় জানা যাবে মৃত্যুর পূর্বাভাস!