artk

স্বাস্থ্য-পুষ্টি ডেস্ক

শুক্রবার, আগষ্ট ২, ২০১৯ ৯:২২

পেটের মেদ কমছে না? সে নিজেরই ভুল

media

সারা দিনের শ্রম ও টুকটাক অনিয়মের মাঝেও খুব চেষ্টা চলে ডায়েট মেনে বাড়তি মেদটুকু ঝরিয়ে ফেলার। অন্তত নামমাত্র শরীরচর্চাটুকু অনেকেই বজায় রাখার চেষ্টা করেন। তবু পেটের মেদ কমে না সহজে। আসলে পেটের মেদ জমতে যতটা সময় নেয়, গলতে সময় নেয় তার চেয়ে অনেক বেশি। খাপছাড়া ডায়েট বা অনিয়মিত শরীরচর্চা দিয়ে তাকে রোখা বেশ কঠিন।

ফিটনেস বিশেষজ্ঞ সুকোমল সেনের মতে, “আসলে ডায়েট মানলে বা শরীরচর্চা করলেও কিছু ভুল আমাদের থেকেই যায়। আর সে সব ভুলের মাশুল দেয় পেটের মেদ। নিরপরাধ দু’-এক টুকরো বিস্কুট বা কুকিজ কিংবা কয়েক মুঠো নিমকি ও চানাচুরেও থেকে যাচ্ছে গোপন শত্রু। তা ছাড়াও কিছু প্রচলিত ভুলের কারণে শরীরের অন্য জায়গার মেদ কমলেও পেটের মেদ একেবারেই ঝরতে চায় না।

জানেন কি, কী কী ভুল থেকে যাচ্ছে আপনার রুটিনে? রইল তেমন কিছু ভুলের হদিস।

ট্রান্স ফ্যাট: নিয়ম করে ফ্যাট ছেড়েছেন, মাখন-ঘি-চর্বিতেও টেনেছেন রাশ। কিন্তু বাদ দেননি প্যাকেটবন্দি স্ন্যাক্স, বেকড খাবার, বিস্কুট, কুকিজ বা প্রিজারভেটিভ যোগ করা ফ্রুট জুস, সস। আর তাদের হাত ধরেই শরীরে বাসা বাঁধছে ট্রান্স ফ্যাট। লো ফ্যাট খাবার কিনছেন, কিন্তু প্যাকেট ঘুরিয়ে দেখে নিচ্ছেন কি, ট্রান্স ফ্যাট আদৌ কতটা রয়েছে? এরাই কিন্তু বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে পেটের মেদ কমার বিষয়ে।

অতিরিক্ত চিনি: মিষ্টি বা চকোলেট বাদ দিলেও বাদ দিতে পারেননি সুগার ফ্রি, প্যাকেটজাত ফলের রস, চানাচুর, প্রক্রিয়াজাত নানা খাবার— যাতে অতিরিক্ত চিনি মেশানো থাকে। প্রতিদিন এসবের প্রভাবেও বাড়ছে পেটের মেদ।

প্রোটিন কম: ডায়েট করে চলতে চাইছেন ঠিকই কিন্তু তা কি নিজের বানানো? তা হলে সচেতন হোন। পুষ্টিবিদ ও চিকিৎসকদের পরামর্শ মেনে সেই ডায়েট ঠিক করুন। মেদ ঝরানোর প্রাথমিক শর্তই খাদ্যতালিকায় প্রোটিন ও ফাইবার বাড়িয়ে নেয়া। মাছ-মাংস, ডিম বা উদ্ভীজ্জ প্রোটিন, ব্রাউন রাইস, ব্রাউন ব্রেড ও নানা প্রোবায়োটিক খাবারে সাজান ডায়েট।

কম ঘুম: ঘুমের সময় কাটছাঁচ করে নিয়ম মানলেও মেদ থেকে নিষ্কৃতি নেই। সুতরাং নির্দিষ্ট সময়ে ঘুমান ও নির্দিষ্ট সময়ে উঠুন। প্রতি দিন একই সময় বজায় রাখতে না পারলে অন্তত ঘুমের সময়সীমাটা ছ’-সাত ঘণ্টা রাখুন।

নাশকতার মামলায় ফখরুলসহ বিএনপির ২৩ নেতার আগাম জামিন পাটকল শ্রমিকদের আন্দোলন ২২ ডিসেম্বর পর্যন্ত স্থগিত গাজীপুরে ফ্যান কারখানায় আগুন: নিহত ১০ আওয়ামী লীগেও রাজাকার আছে: আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী পদ্মা ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান চিশতী পরিবারের বিরুদ্ধে ৫ মামলা অবৈধ লেভেল ক্রসিং বন্ধে হাইকোর্টের রুল গ্রাম পুলিশের চাকরি সরকারিকরণের নির্দেশ তরুণ গায়ক পৃথ্বীরাজের মৃত্যু কোহলি-রোহিতকেই ভয় পাচ্ছেন ব্রায়ান লারা সূচকে পতন অবৈধভাবে দেশে প্রবেশ করলে ফেরত পাঠাবে সরকার: পররাষ্ট্রমন্ত্রী রাজাকারের তালিকা যাচাই বাছাই করে দেখবে ট্রাইব্যুনাল: আইনমন্ত্রী রাজশাহীতে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত ৩ সবচেয়ে দূষিত বায়ুর শহর ঢাকা আ.লীগের এবারের সম্মেলনে সর্বকালের সর্ববৃহৎ উপস্থিতি থাকবে।: কাদের মদ খেয়ে প্রতিবেশীকে পেটালেন সাবেক ভারতীয় ক্রিকেটার! পেশাদার ও সুপ্রশিক্ষিত সশস্ত্র বাহিনী গড়ে তুলতে চাই: প্রধানমন্ত্রী ১০ হাজার ৭৮৯ রাজাকারের তালিকা প্রকাশ ২ সপ্তাহ পর বেনাপোল দিয়ে কাঁচামাল ঢুকছে বাংলাদেশে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিসকে শেখ হাসিনার অভিনন্দন ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগ প্রমাণিত সু চির নেদারল্যান্ডস পার্লামেন্ট সফর বাতিল বিজয় দিবসে নিয়ন্ত্রিত থাকবে রাজধানীর সেসব সড়ক ভারতের নাগরিকত্ব আইন উপমহাদেশে সংঘাত সৃষ্টি করবে: ফখরুল বাংলাদেশের বাজারে আসুসের ডুয়াল স্ক্রিন ল্যাপটপ রাজাকারের তালিকার প্রথম পর্ব প্রকাশ রোববার সাভারে অস্ত্র-গুলিসহ ইউপি সদস্য আটক কেরানীগঞ্জে প্লাস্টিক কারখানায় আগুন: আরও ১ জনের মৃত্যু ভারত আমাদের জায়গা না দিলে কোথায় যাব: প্রশ্ন রূপা গাঙ্গুলীর মোশতাক, জিয়ার মতো মীরজাফররা আর যেন ক্ষমতায় না আসে: হাসিনা