artk
সোমবার, আগষ্ট ১৯, ২০১৯ ৭:২১   |  ৪,ভাদ্র ১৪২৬
মঙ্গলবার, জুলাই ২৩, ২০১৯ ১০:৪৯

বাড্ডায় পিটিয়ে হত্যা: প্রধান আসামি হৃদয় সন্দেহে আল আমিন আটক

স্টাফ রিপোর্টার
media

রাজধানীর উত্তর বাড্ডায় ছেলেধরা গুজব ছড়িয়ে তাসলিমা বেগম রেনুকে পিটিয়ে হত্যা মামলায় অভিযুক্ত ‘হৃদয়’ সন্দেহে এক তরুণকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছেন এক ব্যক্তি। 

রাজধানীর উত্তর বাড্ডায় ছেলেধরা গুজব ছড়িয়ে তাসলিমা বেগম রেনুকে পিটিয়ে হত্যা মামলায় অভিযুক্ত ‘হৃদয়’ সন্দেহে এক তরুণকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছেন এক ব্যক্তি। 

মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীর গুলিস্তানের গোলাপ শাহ মাজারের সামনে থেকে তাকে আটক করা হয়।

পরে পুলিশ জানিয়েছে, আটক তরুণ হৃদয় নন। তার নাম আল আমিন। তার গ্রামের বাড়ি চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ উপজেলায়।

বিকেলে মো. মাহাবুব আলম নামের এক ব্যক্তি তার ফেসবুকে সাতটি ছবি দিয়ে লিখেন, ‘বাড্ডায় রেনু হত্যার আসামি রিদয়কে ধরিয়ে দিলাম। গোলাপ শাহর মাজারের সামনে দিশারী পরিবহনের গাড়িতে আমার সামনের সিটে বসে। সাথে সাথে পুলিশকে ডেকে ধরিয়ে দিলাম এখন।’

এর পরই ওই ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে খবর ছড়িয়ে পড়ে তাসলিমা হত্যার আসামি হৃদয় গ্রেপ্তার হয়েছে। গ্রেপ্তার নিয়ে বেশ কয়েকটি গণমাধ্যম সংবাদও প্রকাশ করে।

এ ব্যাপারে বাড্ডা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রফিকুল ইসলাম আজ রাতে বলেন, ‘তাসলিমা হত্যা মামলার আসামি হৃদয়ের মতো দেখতে হওয়ায় এক তরুণকে রাজধানীর গুলিস্তানের গোলাপ শাহর মাজারের সামনে থেকে আটক করে এক ব্যক্তি। পরে ওই ব্যক্তি সেখানে দায়িত্বরত ট্রাফিক পুলিশের কাছে তাঁকে হস্তান্তর করে।’

বাড্ডা থানার ওসি বলেন, এরপর ট্রাফিক পুলিশ তাকে শাহবাগ থানায় হস্তান্তর করে। শাহবাগ থানা পুলিশ তাকে বাড্ডা থানায় হস্তান্তর করেছে। আমরা যাচাই-বাছাই করে দেখেছি, এই ছেলে সেই হৃদয় না। তাঁর নাম আল আমিন। তার গ্রামের বাড়ি চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ উপজেলায়।

এত দ্রুত নিশ্চিত হওয়ার ব্যাপারে জানতে চাইলে ওসি বলেন, ‘তদন্তের স্বার্থে যেভাবে কথা বলা যায়, সেভাবে আমরা হাজীগঞ্জ থানার ওসি এবং আল আমিনের ভাইয়ের সঙ্গে কথা বলেছি। কথা বলার পর মনে হয়েছে, এই ছেলে সেই হৃদয় না এবং ছবি দেখেও আমরা নিশ্চিত হয়েছি। তাকে ছেড়ে দেয়া হবে।’

গত ২০ জুলাই সকালে ঢাকার উত্তর-পূর্ব বাড্ডা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে তাসলিমা বেগম রেনুকে (৪০) ‘ছেলেধরা’ গুজব ছড়িয়ে প্রকাশ্যে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। দুই ছেলেমেয়েকে ভর্তির জন্য সেখানে খোঁজ নিতে গিয়ে গুজবের কবলে পড়ে গণপিটুনিতে তার মৃত্যু হয়। পরের দিন রোববার লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলার উত্তর সোনাপুর গ্রামের পারিবারিক কবরস্থানের বাবার কবরের পাশে তাকে দাফন করা হয়েছে। এ ঘটনায় তাঁর বোনের ছেলে সৈয়দ নাসির উদ্দিন টিটু অজ্ঞাত ৪০০ থেকে ৫০০ জনের বিরুদ্ধে বাড্ডা থানায় হত্যা মামলা করেছেন। 

ভারত-চীন-জাপানকে দেয়া সুযোগের শর্তগুলো প্রকাশের আহ্বান টিআইবির পচা মাছ বিক্রি করায় স্বপ্ন এক্সপ্রেসকে ২০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড সওজের সাবেক প্রকৌশলী দম্পতির বিরুদ্ধে মামলা সেপ্টেম্বরে ভারত সফরে যাবে এইচপি দল পুঁজিবাজারে সূচকসহ লেনদেন চাঙ্গা মাশরাফি-মুশফিকদের ক্যাম্পে নেই সাকিব-তামিম ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ১৬১৫ জন এফআর টাওয়ার দুর্নীতি মামলায় গ্রেপ্তার তাসভিরের জামিন ডেঙ্গুতে চার জেলায় আরও চারজনের মৃত্যু মিরপুরে বস্তিতে আগুনে ক্ষ‌তিগ্রস্তদের পা‌শে থাক‌বে সরকার: কাদের মাধবপুরে চা-শ্রমিক খুন, ভায়রা ভাই পলাতক উগান্ডায় ট্যাঙ্কার বিস্ফোরণে ২০ জনের মৃত্যু একবেলা খাবার পাবে সব প্রাথমিক স্কুলের শিক্ষার্থীরা ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সফরে প্রত্যাশার কিছুই নেই: ফখরুল যে কারণে বেড়েছে আছাদুজ্জামান মিয়ার মেয়াদ মিন্নির মামলার বৃত্তান্ত দাখিলের নির্দেশ পরিবেশদূষণ প্রতিরোধে দুদকের বিশেষ উদ্যোগ এফআর টাওয়ারের জমির মালিক ফারুক গ্রেপ্তার হামলার পরেও মৌলিক সেবা থেকে বঞ্চিত করেছে- ভিপি নুর রাতে ঢাকায় আসছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী গুগল ম্যাপের সাহায্যে বাড়ি ফিরলো মেয়েটি নবম ওয়েজ বোর্ড নিয়ে আপিলের আদেশ মঙ্গলবার ধর্ষণের থেকে মুক্তি চাইতে গিয়ে ভাইয়ের কাছেও... রাজধানীতে ‘আল্লাহর সরকার’ ৪ জঙ্গি আটক ২০৫০-মধ্যে তলিয়ে যেতে পারে জাকার্তা মার্কিনকে চাপ অগ্রাহ্য করে জিব্রাল্টার ছাড়ল ইরানি ট্যাংকার কনস্টেবলের লক্ষ্যভ্রষ্ট গুলি এএসপির বাসায় স্বামীর লাশ দেখে মারা গেলেন স্ত্রীও পদ্মায় ফেরি-লঞ্চ সংর্ঘষ, অল্পের জন্য বেঁচে যান ৩ শতাধিক যাত্রী মেসিকে খুশি রাখতেই নেইমার ‘নাটক’