artk
সোমবার, আগষ্ট ১৯, ২০১৯ ৩:০৬   |  ৪,ভাদ্র ১৪২৬

বরগুনা প্রতিনিধি

রোববার, জুলাই ২১, ২০১৯ ১১:১২

পুলিশ যা বলতে বলেছে আদালতে তাই বলেছি, বাবাকে মিন্নি

media

রিফাত শরীফ হত্যাকাণ্ড নিয়ে পুলিশ যা বলতে বলেছে, আদালতে তা–ই বলেছেন আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি। না বললে আরও ১০ দিনের রিমান্ডে নেয়া হবে বলে হুমকি দেন পুলিশ কর্মকর্তারা। 

শনিবার মিন্নির বাবা মোজাম্মেল হোসেন বরগুনা জেলা কারাগারের ফটকে মেয়ের সঙ্গে দেখা করে এসে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন।

মোজাম্মেল আরও বলেন, “স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে কী বলেছে, তা মেয়ের কাছে জানতে চেয়েছি। জবাবে সে বলেছে, পুলিশ যেভাবে বলতে বলেছে, জবানবন্দিতে সেভাবেই বলেছি।”

এদিকে রিফাত হত্যার অন্যতম প্রধান আসামি রিফাত ফরাজী শনিবার আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। দুই দফা রিমান্ড শেষে বরগুনা বিচারিক হাকিমের আদালতে তিনি এই জবানবন্দি দেন। পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ সাব্বির আহমেদ ওরফে নয়ন বন্ডের নিহত হওয়ার পর রিফাতই এ মামলার প্রধান আসামি। এ নিয়ে ১৫ আসামির ১৪ জনের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি নেয়া হলো।

গত ২৬ জুন বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা করা হয় রিফাত শরীফ নামের এক যুবককে। ওই ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা যায়, সাব্বির আহমেদ ওরফে নয়ন বন্ড ও রিফাত ফরাজী তাকে রামদা দিয়ে কোপাচ্ছেন। ঘটনার দিন থেকেই নিখোঁজ হন তারা। এর ছয় দিন পর ২ জুলাই নয়ন বন্ড পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হন। ওই দিন রাতেই রিফাত ফরাজীকে গ্রেপ্তার দেখায় পুলিশ।

গ্রেপ্তার হওয়া রিফাত ফরাজী বরগুনা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেনের ভায়রার ছেলে। তার ছোট ভাই রিশান ফরাজীও এই মামলায় গ্রেপ্তার হয়ে রিমান্ডে আছেন। শনিবার বেলা সাড়ে ৩টার দিকে রিফাত ফরাজীকে বরগুনার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. সিরাজুল ইসলাম গাজীর কক্ষে নেয়া হয়। জবানবন্দি দেয়া শেষে পৌনে ৮টায় তাকে জেলহাজতে নিয়ে যাওয়া হয়।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা হুমাযুন কবির সাংবাদিকদের বলেন, রিফাত হত্যার ঘটনায় নিজের সম্পৃক্ততার কথা স্বীকার করে রিফাত ফরাজী জবানবন্দি দিয়েছেন।

হামলার পরেও মৌলিক সেবা থেকে বঞ্চিত করেছে- ভিপি নুর রাতে ঢাকায় আসছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী গুগল ম্যাপের সাহায্যে বাড়ি ফিরলো মেয়েটি নবম ওয়েজ বোর্ড নিয়ে আপিলের আদেশ মঙ্গলবার ধর্ষণের থেকে মুক্তি চাইতে গিয়ে ভাইয়ের কাছেও... রাজধানীতে ‘আল্লাহর সরকার’ ৪ জঙ্গি আটক ২০৫০-মধ্যে তলিয়ে যেতে পারে জাকার্তা মার্কিনকে চাপ অগ্রাহ্য করে জিব্রাল্টার ছাড়ল ইরানি ট্যাংকার কনস্টেবলের লক্ষ্যভ্রষ্ট গুলি এএসপির বাসায় স্বামীর লাশ দেখে মারা গেলেন স্ত্রীও পদ্মায় ফেরি-লঞ্চ সংর্ঘষ, অল্পের জন্য বেঁচে যান ৩ শতাধিক যাত্রী মেসিকে খুশি রাখতেই নেইমার ‘নাটক’ জেলা প্রশাসকের কাছে সততার পুরস্কার পেলেন অটোচালক সিরাজগঞ্জে কাপড় ব্যবসায়ীর স্ত্রী-কন্যা নিখোঁজ পেয়ারা পাড়তে গিয়ে স্কুলছাত্রীর করুণ মৃত্যু খুলনার সঙ্গে রেল যোগাযোগ বন্ধ ভারত পরমাণু যুদ্ধ বাধাতে পারে: ইমরান খান রাঙামাটিতে সন্ত্রাসীদের গুলিতে সেনা সদস্য নিহত এক মাসেই তিনবার বাড়লো সোনার দাম ছাত্রদলের নেতেৃত্বে আসতে মনোনয়নপত্র কিনলেন ১০৮ জন ‘অদৃশ্য খুঁটির’ জোরে ৪ লাখ টাকার গাছ ৮০ হাজার টাকায় বিক্রি সিপিডির ভবনে এডিস মশার লার্ভা, ২০ হাজার টাকা জরিমানা শোক দিবসের আলোচনা সভা করবেন ড. কামাল চামড়া শিল্পে আপাতত সমস্যা নেই: শিল্পমন্ত্রী শোক দিবসের অনুষ্ঠানে ছাত্রলীগের রক্তদান সোমবার রাতে ঢাকায় আসছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অতিরিক্ত ডিআইজি হলেন পুলিশের ২০ কর্মকর্তা এএসপির মেয়ের টেবিলের ওপর আঘাত হানলো কনস্টেবলের গুলি চামড়া বিক্রি বন্ধের সিদ্ধান্তে নেই আড়তদাররা দেশে এলো কলকাতায় নিহত ২ বাংলাদেশির মরদেহ