artk
শুক্রবার, আগষ্ট ২৩, ২০১৯ ৩:৩৩   |  ৭,ভাদ্র ১৪২৬

নিউজ ডেস্ক

মঙ্গলবার, জুলাই ১৬, ২০১৯ ৮:২৯

সরকারি টাকায় কি হজ করা যায়?

media

হজ ফ্লাইট শুরু হয়ে গেছে।  হাজার হাজার মুসল্লি মক্কা-মদিনায় যাওয়ার দিন গুনছেন।  হজযাত্রীদের সার্বিক সহায়তার জন্য প্রতিবছরের মতো এবারও নানা রকম দল সেখানে যায়। এবারও যাচ্ছে। আর এই নিয়েই চলছে বিতর্ক। 

যারা হাজীদের সহায়তার জন্য সরকারি খরচে সৌদি আরব যান, তারা সেখানে হজও করে আসেন।  আবার উল্টো করে বললে বলতে হয়, সরকারের বিভিন্ন অফিসের কর্মকর্তা কর্মচারীদের আসলে সরকারি খরচে হজ করার সুযোগ দেয়ার জন্য বিভিন্ন দলের মধ্যে নাম লেখানো হয়। যে কাজের জন্য তাদের পাঠানো হয়, সে কাজ আসলে তারা না করে হজ করেই দেশে ফেরেন। 

এখন প্রশ্ন উঠেছে, সরকারি টাকায় বা জনগণের করের টাকা রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে খরচ করে হজ হবে কি না।

১৪ জুলাই ধর্ম মন্ত্রণালয়ের এক চিঠিতে জানানো হয় ২০১৯ সালের সৌদি আরবে হজ ব্যবস্থাপনা কাজে সার্বিক তত্বাবধান ও দিক নির্দেশনা প্রদানের জন্য ১০ সদস্য বিশিষ্ট প্রতিনিধি দল সৌদি আরবে পাঠানো হবে। এই কমিটিতে রয়েছেন বাংলাদেশের প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা।

১০ জনই পরিবারের তিনজন করে সদস্য নিয়ে যেতে পারবেন।

এদিকে এর আগে ৪ জুলাই আরেকটি চিঠি দেয়া হয় মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে।

সেখানে সৌদি আরবে হজ চিকিৎসক দলকে সহায়তা প্রদানের জন্য হজ সহায়ক দলের একটি তালিকা দেয়া হয়।

সেই তালিকায় ১১৮ জনের নাম রয়েছে। যাদের অধিকাংশের চিকিৎসা সংক্রান্ত ব্যাপারে কোন অভিজ্ঞতা নেই বলে তাদের পদবী অনুযায়ী জানা যাচ্ছে।

তাদের মধ্যে কেউ কেউ রয়েছেন বিভিন্ন কর্মকর্তার গাড়ী চালক, কেউ আবার কম্পিউটার অপারেটর আবার কেউ রয়েছেন ব্যক্তিগত সহকারী।

এই তালিকা নিয়ে বাংলাদেশের বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নানা প্রতিক্রিয়া দেখা যাচ্ছে।

হজ নিয়ে ইসলামে কী বিধান রয়েছে

ইসলাম ধর্মে হজ পালন ফরজ হলেও সেটা নির্দিষ্ট কিছু ব্যক্তির জন্য।

অর্থাৎ যাদের হজ পালনের জন্য সৌদি আরবে যাওয়া-আসা, থাকাসহ আনুষঙ্গিক খরচ ছাড়াও বাড়তি অর্থ থাকে তাদের জন্য হজ করা ফরজ।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামিক স্টাডিজের শিক্ষক খায়রুল ইসলাম বলেন, “একজন ব্যক্তির একটা নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ থাকতে হবে। আর্থিক সচ্ছলতা, হজের সমস্ত খরচ এবং তার অনুপস্থিতিতে তার পরিবারের সদস্যদের জন্য সেই কয়দিনের জন্য অর্থ রেখে যেতে হবে।” 

তিনি বলেন, “হজে যাওয়ার আগে অবশ্যই একজনকে সমস্ত ঋণ পরিশোধ করতে হবে।” 

ইসলামিক ফাউন্ডেশনের চাঁদ দেখা কমিটির সদস্য মুফতি ফয়জুল্লাহ বলেন, “যে ব্যক্তির কাছে প্রয়োজনীয় অর্থের বেশি সম্পদ থাকে সেখান থেকে মধ্যম মানের যান-বাহন ব্যবহার করে, হজের যাবতীয় কার্যক্রম সম্পাদনা এবং পরিবারের জন্য মধ্যম মানের অর্থ রাখতে পারবেন তাদের জন্য হজ ফরজ।” 

তিনি বলেন, “একজন ব্যক্তিকে প্রাপ্ত বয়স্ক এবং সামর্থ্যবান হতে হবে।”

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের দুই চিঠিতে স্বাক্ষর রয়েছে সিনিয়র সহকারী সচিব আব্দুল্লাহ আরিফ মোহাম্মদের। যেটি মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে দেখা যাচ্ছে।

সিনিয়র সহকারী সচিব আব্দুল্লাহ আরিফ মোহাম্মদ বলেন, “যারা যাচ্ছেন তারা চাইলে হজ করতে পারেন।”

তিনি বলেন, “যেহেতু যাওয়া আসা এবং থাকার অর্থ এখান থেকে (মন্ত্রণালয়) দেয়া হচ্ছে, হজের টাকাও এখান থেকে দেয়া হবে।”

তার কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল, যাদের চিকিৎসক দলের সহকারী হিসেবে রাখা হচ্ছে তাদের কি সেই দক্ষতা আছে? এই প্রশ্নে তিনি কোন মন্তব্য করতে চাননি।

এদিকে প্রতিবছর হজের সময় সরকারী কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বড় একটা তালিকা দেখা যায় যারা বিভিন্ন প্রতিনিধি দলের সদস্য হিসেবে সৌদি আরবে যান।এখন প্রশ্ন উঠছে করদাতাদের দেয়া রাষ্ট্রীয় কোষাগারের অর্থ দিয়ে কি হজ পালন করা যায়?

ইসলামিক স্টাডিজের শিক্ষক খায়রুল ইসলাম বলেন, “হজ সবার জন্য নয়। ইসলামের বিধান অনুযায়ী একজন ব্যক্তির যদি উল্লেখিত সামর্থ্য থাকে তাহলে তিনি হজ পালন করতে পারবেন। যাদের তালিকায় নাম রয়েছে বাস্তবে তাদের উপর হজ ফরজ? তার উপর এটা এক ধরণের প্রতারণা। ইসলামে এই ধরণের কোন বিধান নেই।” 

তিনি বলেন, “পুত্র-পিতার, মা বা আত্মীয় পরিজনের অর্থ সাহায্য করতে পারেন । কিন্তু জনগণের অর্থে হজ পালন করাটা ইসলাম ধর্মের বিধানের মধে পড়ে না।”

তবে মুফতি ফয়জুল্লাহ বলছিলেন, “যদি কারো ইচ্ছা থাকে হজ করার, তাহলে তিনি সরকারি-বেসরকারি অর্থ সাহায্য নিয়ে হজ করতে পারেন। সেটা খুব বেশি অন্যভাবে দেখার সুযোগ নেই।” সূত্র: বিবিসি বাংলা

বিয়ের গেটেই বরের মাথা ফাটালো কনেপক্ষ রাখাইনে প্রবেশাধিকার চায় ইউএনএইচসিআর-ইউএনডিপি ১৫ ও ২১ আগস্ট নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য: মাউশি পরিচালক ওএসডি থানা থেকে পুলিশের জব্দ করা মোটরসাইকেল চুরি ৫ দিনের রিমান্ডে ভারতের সাবেক অর্থমন্ত্রী কাশ্মিরে জুমার নামাজের পর কারফিউ ভাঙার ডাক বাজারের ব্যাগে ৫ কোটি টাকার হেরোইন! প্রাথমিকে আরো ২০ হাজার শিক্ষক নিয়োগ সাব-রেজিস্ট্রার অফিসকে ভূমি মন্ত্রণালয়ের অধীনে আনার সুপারিশ দেড় বছর ধরে স্বাস্থ্যকেন্দ্রে আসেন না ডাক্তার জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে রেড অ্যালার্ট জারির উদ্যোগ পরমাণু বোমা আমরা এমনি এমনি রাখিনি: জাভেদ মিয়াঁদাদ কলকাতায় বাংলাদেশির মৃত্যু: আরসালান নয় চালক ছিলেন বড় ভাই রাগিব রাজধানীসহ দেশের ৬ স্থানে দুদকের অভিযান ভারতের সবচেয়ে ধনী অভিনেতা অক্ষয় কুমার! শুরুতেই ফিটনেসে মনোযোগী বাংলাদেশি কোচ কেমন আছেন মিয়ানমারের মুসলমান নাগরিকেরা? বেশি নম্বর দেয়ার কথা বলে ছাত্রীকে যৌন হয়রানি, শিক্ষক বরখাস্ত উপহাসকারী রিজভীদেরও বিচার হওয়া উচিত: তথ্যমন্ত্রী ডা. জাফরুল্লাহসহ ৭৬ জনের বিরুদ্ধে আ.লীগ নেতার মামলা ওজনে কারচুপি: ২ প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে বিএসটিআইয়ের মামলা বজ্রপাতে ৫ জেলায় ৯ জনের মৃত্যু যাত্রাবাড়ীতে বাসের ধাক্কায় বাবা নিহত, ছেলে আহত তিন বিচারপতির বিষয়ে অনুসন্ধান অন্যদের জন্য বার্তা রোহিঙ্গাদের থাকতে প্ররোচনা দিলে ব্যবস্থা নেয়া হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী পুঁজিবাজারে সূচকের উত্থান বিচার বিভাগের অনেকের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ আছে: খোকন ভুল চিকিৎসা: ঢাবি শিক্ষার্থীকে ৫ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ নয় কেন অনুসন্ধানে ব্যর্থরা অন্য প্রতিষ্ঠানে কাজ করুন: দুদক চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে ফরমায়েশি সাজা দেয়া হয়েছে: রিজভী