artk
রোববার, জুলাই ২১, ২০১৯ ১০:০৭   |  ৬,শ্রাবণ ১৪২৬

স্টাফ রিপোর্টার

বৃহস্পতিবার, জুলাই ১১, ২০১৯ ৭:৫৬

‘পতন অব্যাহত থাকলে মারা যাব’

media

পুঁজিবাজারের পতন অবস্থার প্রতিবাদে বৃষ্টি মধ্যেও সাধারণ বিনিয়োগকারীরা রাজপথে বিক্ষোভ করেছেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ভবনের সামনে ফের বিনিয়োগকারীরা এ বিক্ষোভ করেন।

পুঁজিবাজারের পতন অবস্থার প্রতিবাদে বৃষ্টি মধ্যেও সাধারণ বিনিয়োগকারীরা রাজপথে বিক্ষোভ করেছেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) ভবনের সামনে ফের বিনিয়োগকারীরা এ বিক্ষোভ করেন।

গতকালের মতো আজও এ বিক্ষোভের নেতৃত্ব দেন বাংলাদেশ পুঁজিবাজার বিনিয়োগকারী ঐক্য পরিষদ। দুপুর দেড়টা থেকে তিনটা পর্যন্ত তাদের নেতৃত্বে ডিএসইর সামনে আন্দোলন করেছে বিনিয়োগকারীরা।

বিক্ষোভে বিনিয়োগকারীরা বলেন, আমরা দিনের পর দিন পুঁজিবাজারের উত্থানে নানা কর্মসূচি করে আসছি। কিন্তু রেগুলেটরসহ সংশ্লিষ্টদের কাছ এ ব্যাপারে কোনো প্রকার ইতিবাচক সাড়া পাচ্ছি না। কেন জানি দেখেও দেখে না। 

পতনের কারণে পুঁজি হারাচ্ছে এমন ক্ষোভ প্রকাশ করে বিক্ষোভে বিনিয়োগকারীরা বলেন, বিনিয়োগ হারিয়ে আমরা রাস্তায় এসে পড়েছি। বর্তমান অবস্থা অব্যাহত থাকলে আমরা গণহারে মারা পরব।

বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) কর্মকর্তাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বিনিয়োগকারীরা বলেন, বিএসইসির কর্মকর্তারা যদি বিনিয়োগকারীদের কথা চিন্তা করে কাজ করেন তবে বাজারে যে চলমান অস্থিরতা থাকবেনা। 

বিক্ষোভে বাংলাদেশ পুঁজিবাজার বিনিয়োগকারী ঐক্য পরিষদের সভাপতি মিজান উর রশিদ বলেন, বাজারের চলমান দুরবস্থা কাটাতে আমরা আন্দোলন করছি। আমরা উত্থান পুঁজিবাজার চাই। রোববার বিনিয়োগকারীরা ডিএসইর সামনে আবার একযোগে আন্দোলন করব এবং বাজার ঠিক না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে।

মিজান উর রশিদ আরও বলেন, দরপতনের প্রতিবাদে আমরা রোজার ঈদের আগেও মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করেছি। কিন্তু পতন ঠেকাতে কেউ কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছে না। আমাদের পিঠ দেয়ালে ঠেকে গেছে। তাই ফের আন্দোলনে নেমেছি। পতন রোধে আগামীতে বিনিয়োগকারীদের নিয়ে আরও কঠোর কর্মসূচি দিব।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেটে পুঁজিবাজারের স্থিতিশীলতা এবং ঊর্ধ্বমুখী বাজারের স্বার্থে বেশ কিছু পদক্ষেপ নিলেও বাজারের নীতি নির্ধারক সংস্থার এদিকে ইতিবাচক নজর নেই। ইস্যুয়ার কোম্পানিবান্ধব নীতিনির্ধারক সংস্থা থাকলে বাজারের চলমান দুরবস্থা থামাতে কেউ এগিয়ে আসছে না।

উদ্ভিদের বৃদ্ধিতে বাধার সৃষ্টি করছে সিগারেটের গোড়া যে ১৪ আত্মমূল্যায়নের প্রশ্নে বদলে যেতে পারে জীবন সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবিতে মস্কোতে হাজারো নাগরিকের বিক্ষোভ হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মঞ্চেই মারা গেলেন ভারতীয় কৌতুকাভিনেতা নিজের পিস্তলের গুলিতে আহত ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নেতা কুমিল্লায় টেলিভিশন জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের নির্বাচন অনুষ্ঠিত ছেলেধরা সন্দেহে পিটিয়ে হত্যা: ৫শ জনের বিরুদ্ধে মামলা পঞ্চগড়ে মাছ ধরতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে দুই ছেলেসহ বাবার মৃত্যু হজক্যাম্পের আশপাশের রেস্তোরাঁয় পচা খাবার, জরিমানা ২৬ লাখ জনগণকে নিয়ে গণঅভ্যুত্থান ঘটাতে হবে: ফখরুল ট্রাম্পের দাবি নাকচ, এই সেই ইরানি ড্রোন! জামালপুরে বন্যা পরিস্থিতি অপরিবর্তিত শ্বশুরকে হত্যা করে পলাতক জামাই ইনডোর এশিয়া কাপ হকিতে বাংলাদেশ সপ্তম আইনি লড়াইয়ে খালেদার মুক্তি নেই: গয়েশ্বর গণপিটুনির সঙ্গে জড়িতদের আইনের আওতায় আনা হবে কাদেরের মাথায় হাত বুলিয়ে রওশনের আশীর্বাদ ‘স্থানীয় হিন্দু-মুসলমানদের হয়রানি করছেন প্রিয়া সাহা’ দিল্লির ৩ বারের মুখ্যমন্ত্রী শীলা দীক্ষিত মারা গেছেন মিন্নিকে আইনি সহায়তা দিতে বরগুনায় আসকের ৪ আইনজীবী প্রিয়া সাহার অভিযোগ নিয়ে যা বলল জামায়াত সাংবাদিক পাইলেই গুলি করে মারব: ছাত্রলীগ নেতা ইঞ্জিনে পাখির বাসা, দেড়মাস বসে থাকলেন ট্রাকচালক উইন্ডিজ সফরে না গিয়ে সেনাবাহিনীতে সময় দেবেন ধোনি ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনি, প্রাণ গেলো ৩ জনের যে পরিচয়ে হোয়াইট হাউসে গিয়েছেন প্রিয়া সাহা টাইগারদের বিপক্ষে খেলেই অস্ট্রেলিয়ায় স্থায়ী হচ্ছেন মালিঙ্গা! পদ্মার পানি বাড়লে মধ্যাঞ্চলে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হতে পারে বাসা ভাড়া নিয়ে দেহ ব্যবসা সৈয়দপুরে জনসমাগম দেখলেই সরকার আতঙ্কে শিউরে ওঠে: ফখরুল