artk
রোববার, জুলাই ২১, ২০১৯ ১০:০৪   |  ৬,শ্রাবণ ১৪২৬
রোববার, জুলাই ৭, ২০১৯ ১১:০৩

সিডনিতে দেশীয় সাংবাদিকতা: একটি সামাজিক আন্দোলন

নাইম আবদুল্লাহ
media
সমস্যা বোধ করি নতুন লেখকদের নিরুৎসাহিত করা। তাহলে তো আর পুরনো লেখকদের খদ্দরের পাঞ্জাবি আর কাপড়ের ব্যাগের কোন চল থাকবে না।

পূর্ব প্রকাশের পর: সিডনিতে এখন প্রায় সবাই পড়াশুনা করে। আমি বুঝাতে চাইছি পাঠক সংখ্যা বেড়ে চলেছে। অনেক পাঠক পড়তে পড়তে লিখতে শুরু করেছে। তারা লজ্জা বা পাছে লোকে কিছু বলে কিংবা সমালোচনার বেড়াজাল ডিঙ্গিয়ে বেরিয়ে আসতে শুরু করেছে। এটা সামাজিক আন্দোলনের একটি অন্যতম সুফল।

কেউ কেউ বলছেন, লেখকদের চেয়ে পাঠকরাই বেশি কলাম লিখছেন। তাই নামী দামি লেখকরা লিখতে বিব্রত বোধ করছেন। নামী দামি লেখকদের বরং পাঠক কিংবা নবীন লেখকদের জন্য বেশি বেশি লিখে উৎসাহিত করা উচিত। লেখক প্লাটফর্মের এই দাম্ভিকতার কারণেই গত একযুগ সিডনিতে লেখালেখির চর্চা মুখ থুবড়ে পড়েছিল। যখন আবার পালে বাতাস পেলো তখন আবারো নবীনদের থামিয়ে দেওয়ার পাঁয়তারা চলছে।

আমি মনে করি লেখালেখি কিংবা মনের ভাব প্রকাশ করা কোন ব্যাকরণ বই নয় যে ণত্ব বিধান সত্ত্ব বিধান কিংবা পাগুটাদীপতি মেনে চলতে হবে। আর যারা পুরানো লেখক বলে দাবি করছেন তাদের লেখায়ও কোন ব্যাকরণ কপচা নেই। তাহলে সমস্যা কোথায়?

সমস্যা বোধ করি নতুন লেখকদের নিরুৎসাহিত করা। তাহলে তো আর পুরনো লেখকদের খদ্দরের পাঞ্জাবি আর কাপড়ের ব্যাগের কোন চল থাকবে না।

লেখক কবিরা লিখবেন, দেশে গিয়ে বইমেলায় বই প্রকাশ করবেন অটোগ্রাফ দিয়ে সেই ছবি ফেজবুকে পোস্ট করবেন তারপর সিডনিতে এসে বইমেলায় বই বিক্রি করে প্রতিষ্ঠিত লেখক হিসেবে জাহির করবেন। তাতে কারও কোন আপত্তি নাই। কিন্তু তাতে সিডনিতে নতুন প্রজন্ম কতটুকু উপকৃত হবে? সাহিত্য চর্চা নতুন পাঠক কিংবা লেখক তৈরিতে কতটুকু অবদান রাখবে?

আমি কোন লেখক কিংবা কবি নই। আমি সিডনিতে দেশীয় সাংবাদিকতা ও সামাজিক আন্দোলনে আরও অনেকের মতো একজন সাধারণ কর্মী মাত্র। আমাকে যদি কেউ জিজ্ঞেস করে আচ্ছা ভাই আপনি নতুন পাঠক কিংবা লেখক তৈরিতে কিভাবে কাজ করছেন? আমি গর্ব করে নাম ঠিকানাসহ তাদের কথা বলতে পারবো।

কিছুদিন আগে আমার এক পরিচিত শুভাকাঙ্ক্ষি একটি প্লাটফর্মে লেখা দেবার জন্য অনুরোধ করেছিলেন। আমি তাকে ছোট্ট একটি আবদার করে বলেছিলাম, যে প্লাটফর্মের আপনি একজন অন্যতম উদ্যোক্তা সেখানে আপনি লেখা দিলেই আমিও লেখা দিবো। উনি আজ সকালে লেখা পোস্ট করে আমাকে জানিয়েছেন। একজন অনিয়মিত লেখক এখন থেকে নিয়মিত লিখবেন।

অন্য একজন অনিয়মিত লেখক আমাকে তার একটি কলাম পাঠিয়ে একটি অনলাইন পোর্টালে প্রকাশের অনুরোধ করেছিলেন। আমি পত্রিকা অফিসে তার নামে পাঠালাম। তারা প্রকাশে গররাজি থাকলেও পরিশেষে প্রকাশ করলেন। পরবর্তীতে তার কলাম পাঠক প্রিয় হয়েছে। পোর্টাল থেকে তিনি এখন নিয়মিত লেখার অনুরোধ পাচ্ছেন।

একজন নতুন কিংবা অনিয়মিত লেখকের লেখা প্রকাশিত হলে তাদের উজ্জ্বল কিংবা উদ্ভাসিত মুখের দিকে কেউ তাকিয়ে দেখেছেন? আমি আমার নিজের মুখ আয়নায় দেখেছি।

আগামী একযুগ পরে সিডনিতে দেশীয় সাংস্কৃতির সামাজিক আন্দোলন কতটা জারি থাকবে তা কি আমরা ভেবে দেখেছি? আর কতটুকুই বা নতুন প্রজন্মের অন্তরে রেখে যেতে পারবো? আমি সেখানে খুব বেশি আলো দেখি না।

সিডনিতে নাট্য আন্দোলন চলছে। অনেকেই দেশে স্কুল কলেজ ভার্সিটিতে অভিনয় করেছেন। তারাও ছেলেমেয়েদের নিয়ে এগিয়ে আসতে চান। কিন্তু সেই পরিবেশ কি আমরা এখনও তৈরি করতে পেরেছি?

এখানকার প্রিন্ট ভার্সন পত্রিকা অর্থনৈতিক পৃষ্ঠপোষকতার অভাবে মাসিক থেকে ত্রৈমাসিকে প্রকাশের পাঁয়তারা করছে। যেখানে অন্যান্য বাংলা ভাষাভাষি দেশগুলিতে মাসিক থেকে পাক্ষিক কিংবা এখন প্রতি সপ্তাহে প্রকাশিত হচ্ছে। এই পিছু হটার দায়ভার আমাদের। এই দুরাবস্থার গ্লানি সবার। (চলবে)

লেখক: সাংবাদিক ও সিডনি প্রবাসী।

উদ্ভিদের বৃদ্ধিতে বাধার সৃষ্টি করছে সিগারেটের গোড়া যে ১৪ আত্মমূল্যায়নের প্রশ্নে বদলে যেতে পারে জীবন সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবিতে মস্কোতে হাজারো নাগরিকের বিক্ষোভ হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মঞ্চেই মারা গেলেন ভারতীয় কৌতুকাভিনেতা নিজের পিস্তলের গুলিতে আহত ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নেতা কুমিল্লায় টেলিভিশন জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের নির্বাচন অনুষ্ঠিত ছেলেধরা সন্দেহে পিটিয়ে হত্যা: ৫শ জনের বিরুদ্ধে মামলা পঞ্চগড়ে মাছ ধরতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে দুই ছেলেসহ বাবার মৃত্যু হজক্যাম্পের আশপাশের রেস্তোরাঁয় পচা খাবার, জরিমানা ২৬ লাখ জনগণকে নিয়ে গণঅভ্যুত্থান ঘটাতে হবে: ফখরুল ট্রাম্পের দাবি নাকচ, এই সেই ইরানি ড্রোন! জামালপুরে বন্যা পরিস্থিতি অপরিবর্তিত শ্বশুরকে হত্যা করে পলাতক জামাই ইনডোর এশিয়া কাপ হকিতে বাংলাদেশ সপ্তম আইনি লড়াইয়ে খালেদার মুক্তি নেই: গয়েশ্বর গণপিটুনির সঙ্গে জড়িতদের আইনের আওতায় আনা হবে কাদেরের মাথায় হাত বুলিয়ে রওশনের আশীর্বাদ ‘স্থানীয় হিন্দু-মুসলমানদের হয়রানি করছেন প্রিয়া সাহা’ দিল্লির ৩ বারের মুখ্যমন্ত্রী শীলা দীক্ষিত মারা গেছেন মিন্নিকে আইনি সহায়তা দিতে বরগুনায় আসকের ৪ আইনজীবী প্রিয়া সাহার অভিযোগ নিয়ে যা বলল জামায়াত সাংবাদিক পাইলেই গুলি করে মারব: ছাত্রলীগ নেতা ইঞ্জিনে পাখির বাসা, দেড়মাস বসে থাকলেন ট্রাকচালক উইন্ডিজ সফরে না গিয়ে সেনাবাহিনীতে সময় দেবেন ধোনি ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনি, প্রাণ গেলো ৩ জনের যে পরিচয়ে হোয়াইট হাউসে গিয়েছেন প্রিয়া সাহা টাইগারদের বিপক্ষে খেলেই অস্ট্রেলিয়ায় স্থায়ী হচ্ছেন মালিঙ্গা! পদ্মার পানি বাড়লে মধ্যাঞ্চলে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হতে পারে বাসা ভাড়া নিয়ে দেহ ব্যবসা সৈয়দপুরে জনসমাগম দেখলেই সরকার আতঙ্কে শিউরে ওঠে: ফখরুল