artk
মঙ্গলবার, জুন ১৮, ২০১৯ ৭:৫১

হিস্টিরিয়া শারীরিক নয়, মানসিক রোগ!

স্বাস্থ্য ও পুষ্টি ডেস্ক
media
মেডিক্যাল চিকিৎসার মাধ্যমে রোগীর মনের ভেতরে লুকিয়ে থাকা ভয়, দ্বন্দ্ব, মানসিক সংঘাত রয়েছে তা জানা যায়।

হিস্টিরিয়া মানসিক রোগ এটা গ্রামাঞ্চলের অনেক মানুষ জানেই না। মানুষের মধ্যে কুসংস্কার, অতীতের ভাবনায় বিশ্বাস, অপবিশ্বাস আর অতীতের অপরিচ্ছন্ন দৃষ্টিভঙ্গির কারনে গ্রামে বা শহরে অহরহ হিস্টিরিয়া রোগের সঠিক চিকিৎসা হচ্ছে না। হিস্টিরিয়া রোগে আক্রান্ত রোগীর অস্বাভাবিক আচরণ তাদের কাছে জীন, ভূত, প্রেতের আছর! তাই তারা নিজেদের বিশ্বাসমত জীন, ভূত, প্রেতের আছর থেকে বাঁচানোর জন্য নানা রকম অপচিকিৎসা করে থাকে, যার ফলে হিতে বিপরীতই হয়। তারা ওঝা এনে ঝাড়ফুঁক করায়। কুসংস্কারাচ্ছন্ন এমন অপচিকিৎসায় রোগীর আরো বেশি ক্ষতি হয় এবং সঠিক চিকিৎসায় দেরি হওয়ায় রোগী আরো অসুস্থ হয়ে পড়ে। অথচ মানসিক বিশেষজ্ঞদের পরামর্শে সুচিকিৎসা করানো হলে রোগী খুব তাড়াতাড়ি আবার আগের সুস্থ, স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসে।

মানসিক বিশেষজ্ঞদের মতে, হিস্টিরিয়া বা মুর্ছা রোগের জন্য আধুনিক মনোবৈজ্ঞানিক চিকিৎসা রয়েছে। চিকিৎসার পাশাপাশি বেশকিছু পদ্ধতি ব্যবহার করেন চিকিৎসকরা। হিস্টিরিয়ায় আক্রান্ত রোগীকে হিস্টিরিক্যাল উপসর্গের বিষয়ে সাহস জোগানো, ভ্রান্ত ধারণা থেকে বেরিয়ে এনে এবং বিভিন্ন পরামর্শ ও উপদেশ দিয়ে এই অবস্থা থেকে বেরিয়ে আসতে সাহায্য করেন চিকিৎসকরা। রোগীর সাথে সবসময় স্বাভাবিক আচরণ করতে হবে এবং রোগীর সাথে বিভিন্ন বিষয়ে খোলামেলা আলোচনায় আশ্বস্ত করতে হবে যে, এটা কোন শারীরিক রোগ নয় বরং মানসিক রোগ। ঠিকঠাক চেষ্টা করলে এই রোগ থেকে মুক্তি লাভ করা সম্ভব এবং স্বাভাবিক জীবন লাভ করা যাবে। মানসিক বিশেষজ্ঞরা রোগীর সাথে কথা বলে মনের ভেতরে লুকিয়ে থাকা ভয় জানার চেষ্টা করেন এবং মনের ভেতরে লুকানো ভয় দূর করানোর চেষ্টা করেন। চিকিৎসকরা রোগীকে এ সমস্যা থেকে বেরিয়ে আসার ব্যবস্থা করেন।

মেডিক্যাল চিকিৎসার মাধ্যমে রোগীর মনের ভেতরে লুকিয়ে থাকা ভয়, দ্বন্দ্ব, মানসিক সংঘাত রয়েছে তা জানা যায়। এ চিকিৎসায় রোগী ঘুমের ঘোরে থাকে এবং অবচেতন মনের দ্বন্দ্বগুলো বেরিয়ে আসে। এমন অনেক বিষয় থাকে যা মানুষ চেতন মনে বলতে পারেনা কিন্তু অবচেতন মনে তা খুব সহজেই বলে দিতে পারে। মনের ভেতর লুকিয়ে থাকা ভয়, কষ্ট, দ্বন্দ্ব বলে মনের ভার কমাতে পারে।

এই রোগে আক্রান্ত রোগীকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনার জন্য সাহস জোগাতে হবে। বিবাহিত মহিলার ক্ষেত্রে অবশ্যই স্বামীকেও চিকিৎসা ব্যবস্থার আওয়াত আনতে হবে। প্রয়োজন হলে পরিবারেও কাউন্সিলিং করাতে হবে। হিস্টিরিয়া মানসিক রোগ, শারীরিক নয় এটা আগে জানা দরকার এবং সে অনুযায়ী চিকিৎসার ব্যবস্থা করলে খুব সহজেই সুস্থ স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনা সম্ভব। সূত্র: ডব্লিউসি

ঢাকা সিটি নির্বাচনে সেনা নামছে না: ইসি সচিব বিএনপির গণজোয়ারের দাবি দিবাস্বপ্ন: কাদের কেরানীগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩ শিক্ষাক্রমের বাইরে শিক্ষার্থীদের অতিরিক্ত বই পড়ানো বন্ধের নির্দেশ ইন্টারনেট সংযোগসহ ওয়ালটনের স্মার্ট রেফ্রিজারেটর কণ্ঠশিল্পী দ্বীন ইসলাম ২০১৯ সালের শ্রেষ্ঠ ট্রাফিক সার্জেন্ট মুজিববর্ষে বাড়ি পাবে ৬৮ হাজার দরিদ্র পরিবার গ্রাহক সেবা বাড়াতে বিআইবিএমের আউটসোর্সিংয়ে গুরুত্বারোপ ‘আমার কোন অবৈধ সম্পদ নেই’ ২০১৯ সালে ৫৬ সাংবাদিক নিহত: জাতিসংঘ সকালের যেসব অভ্যাস আপনাকে সজিব রাখবে যশোরে গৃহবধু ধর্ষণ: খায়রুলের সম্পৃক্ততা পায়নি পিবিআই নির্বাচন যত ঘনিয়ে আসছে শাসকগোষ্ঠীর সন্ত্রাসীরা তত হিংস্র হচ্ছে: ফখরুল ৩২৯টি কারিগরি স্কুল স্থাপনে ২০৫২৫কোটি টাকার প্রকল্পের অনুমোদন দুর্নীতির তথ্য পেলে ছাড় নয়: ক‌মিশনার আমিনুল দীর্ঘ মেয়াদে অধিনায়কত্ব চান মাহামুদউল্লাহ রিয়াদ ডিবিএর সভাপতি শরীফ আনোয়ার সহ-সভাপতি আলী ও রোজারিও ঢাকা ব্যাংকের সাবেক কর্মকর্তাসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট স্কটল্যান্ডকে ৭ উইকেটে হারিয়ে সুপার লিগে বাংলাদেশ পুঁজিবাজারে সূচক পতন বিজিএমইএ ভবন ভাঙার কার্যক্রম শুরু বুধবার পাকিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিততে চায় টাইগাররা শেষ বলে নাটকীয় জয়ে ফাইনালে বাংলাদেশের মেয়েরা মুশফিকের না যাওয়াকে পূর্ণ সমর্থন মাহমুদউল্লাহর ইবিতে দু’পক্ষের সংঘর্ষ: ছাত্রলীগ সম্পাদকসহ আহত ১৬ যার যতই ক্ষমতা থাকুক, কেউই আইনের ঊর্ধ্বে নয়: আইনমন্ত্রী রিফাত হত্যা: মিন্নির আবেদন খারিজ ঢাবির হলগুলোতে ‘বঙ্গবন্ধু কর্নার’ উদ্বোধন ২৩ জানুয়ারি রকিবুলের হ্যাটট্রিকে ৮৯ রানে অলআউট স্কটল্যান্ড পাকিস্তান সফরের আগে পাঞ্জাবে তিন সন্ত্রাসী আটক