artk

স্টাফ রিপোর্টার

শনিবার, জুন ১৫, ২০১৯ ৫:৪৭

ঘাটতি মেটাতে ব্যাংক ঋণের সাহায্য নিলে সমস্যা ঘনীভূত হবে: জাপা

media

জিএম কাদের বলেন, বর্তমানে দেশের বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোতে তারল্য সংকট চলছে। কারণ হিসেবে বলা হচ্ছে, সরকারের অধিক হারে ঋণ গ্রহণ। ফলে বেসরকারি খাতে নতুন উদ্যোক্তা ও ব্যবসায়ীরা প্রয়োজনমত যথেষ্ট ঋণ পাচ্ছেন না।

নতুন বাজেটের ঘাটতি মেটাতে সরকার ব্যাংক ঋণের সাহায্য নিলে বিরাজমান সমস্যা আরও ঘনীভূত হবে বলে মনে করেন জাতীয় পার্টির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জিএম কাদের এমপি।

শনিবার জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যানের বনানী কার্যালয় রজনীগন্ধায় ২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর দলের পক্ষ থেকে প্রতিক্রিয়ায় তিনি এ কথা বলেন।

জিএম কাদের বলেন, বর্তমানে দেশের বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোতে তারল্য সংকট চলছে। কারণ হিসেবে বলা হচ্ছে, সরকারের অধিক হারে ঋণ গ্রহণ। ফলে বেসরকারি খাতে নতুন উদ্যোক্তা ও ব্যবসায়ীরা প্রয়োজনমত যথেষ্ট ঋণ পাচ্ছেন না।

‘এ কারণে বিনিয়োগ ও ব্যবসা বাধাগ্রস্থ হচ্ছে। নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে সমস্যা হচ্ছে। এ অবস্থায় ঘাটতি মেটাতে সরকার যখন আবার ব্যাংক ঋণের সাহায্য নেবে, তা বিরাজমান সংকটকে আরও ঘনীভূত করতে পারে।’

তিনি বলেন, জাতীয় পার্টি বিশ্বাস করে গণমানুষের জন্যই বাজেট প্রণয়ন করা হয়। প্রস্তাবিত ৫ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকার বাজেট এ যাবৎকালের সর্ববৃহৎ বাজেট। আকৃতি বেশ বড়। বড় অংকের অর্থ রাজস্ব খাতে আয় করতে হবে।

‘আবার নির্ধারিত খাতে বড় ধরনের ব্যয়ও করতে হবে। দুটিই বড় চ্যালেঞ্জ সরকারের জন্য। আয়ের প্রশ্নে আমাদের চাওয়া, যাতে অপেক্ষাকৃত অবস্থাপন্নদের কাছ থেকে বেশি হারে রাজস্ব আদায়ের ব্যবস্থা থাকে ও স্বল্প আয়ের মানুষের ঘাড়ে কম দায় চাপানো হয়।’

‘অর্থাৎ প্রত্যক্ষ কর যেমন আয়কর থেকে যতদূর সম্ভব রাজস্ব আদায় করা হয় ও পরোক্ষ কর (যেমন আমদানি শুল্ক ইত্যাদি) থেকে কম অংশ আয়ের ব্যবস্থা করা হয়,’ জানালেন জিএম কাদের।

তিনি বলেন, প্রস্তাবিত বাজেটে আয়-ব্যয়ের মধ্যে একটি বিশাল ফারাক আছে, যাকে বলা হয় বাজেট ঘাটতি ও যার আকার অঙ্কে ১ লাখ ৪৫ হাজার ৩৮০ কোটি টাকা।

‘এ ঘাটতি মেটানোর জন্য প্রস্তাব করা হয়েছে ব্যাংক থেকে ঋণ গ্রহণ (৪৭ হাজার ৩৬৪ কোটি) + বিদেশী ঋণ ও সাহায্য (৬৩ হাজার ৮৪৮ কোটি) + ব্যাংকের বাইরে (সঞ্চয়পত্র ইত্যাদি) থেকে নেয়া ঋণ (৩০ হাজার কোটি) টাকা।’

তিনি বলেন, এ ধরনের ঋণের খরচ অধিক ও প্রভাব সুদূরপ্রসারী। এ ধরনের ঋণ গ্রহণের আগে বিষয়টি ভালোমতো পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা বাঞ্ছনীয়। তাছাড়া মোট ঘাটতি আরও অধিক হওয়ার আশঙ্কা আছে।

পশুর চেয়েও নিকৃষ্ট ধর্ষক: প্রধানমন্ত্রী করোনা ভাইরাসের কারণে হজে যাওয়া না হলে টাকা ফেরত: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী দাঙ্গা নয়, দিল্লিতে পরিকল্পিত গণহত্যা হয়েছে: মমতা ভারতের সম্মান তলিয়ে দিয়েছে মোদি সরকার: মমতা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে সুনামগঞ্জে এনামুল-রুপন ছয় দিনের রিমান্ডে পিরোজপুরে সাবেক ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে হত্যা চলতি বছরই তিস্তা চুক্তির সম্ভাবনা: শ্রিংলা ঢাকা উত্তরের নির্বাচন বাতিল চেয়ে তাবিথের মামলা খুলনায় ছাত্রলীগ নেতাকে পিটিয়ে হত্যা অভিনেতা গোলাম মুস্তাফার জন্মদিন সোমবার আদালতে টাউট-বাটপার শনাক্তের নির্দেশ পাওয়ার ট্রলিকে ধাক্কা দিয়ে বিকল রেলইঞ্জিন কলকাতা সফরে এসে প্রবল বিক্ষোভের মুখে অমিত শাহ রোবট চালাবে গাড়ি! ভিপি নূরকে হত্যার হুমকি দেয়ার পর দুঃখ প্রকাশ টেকনাফে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৭ জন নিহত রাখাইনপ্রদেশে সেনাদের গুলিতে শিশুসহ ৫ রোহিঙ্গা নিহত ইস্কাটনে ভবনে আগুন: মায়ের পর চলে গেলেন রুশদির বাবাও চট্টগ্রামে একটি বস্তিতে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ২ দেশে প্রতিদিন যক্ষ্মায় মারা যায় ১৩০ জন: স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনাভাইরাস আতঙ্কে আয়ারল্যান্ডের স্কুল বন্ধ ঘোষণা বিশিষ্ট সুরকার সেলিম আশরাফ আর নেই মোদীকে অতিথি হিসেবে সর্বোচ্চ সম্মান দেওয়া হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী মধুর যত জাদুকরী গুণ চিপসের প্যাকেটের ভিতর খেলনা নয়: হাইকোর্ট আমার গাড়িতেও অস্ত্র আছে কী না আমি জানি না: শামীম ওসমান ফ্র্যান্সেও করোনা, অনিশ্চিত কান চলচ্চিত্র উৎসব উপনির্বাচন: গাইবান্ধা-৩ আসনে প্রতীক বরাদ্দ গুজব ও গণপিটুনি রোধে হাইকোর্টের ৫ নির্দেশনা