artk
রোববার, জুলাই ২১, ২০১৯ ১০:০০   |  ৬,শ্রাবণ ১৪২৬
শনিবার, জুন ১৫, ২০১৯ ১১:১০

এক মাস্টারেই চলছে দুই রেল স্টেশনের কার্যক্রম!

তরিকুল ইসলাম মিঠু, যশোর প্রতিনিধি
media
রেলওয়েতে জনবল সংকটের কারণে অনেক স্টাফ দিয়ে একাধিক কাজ করানো হয়। তারই ধারাবাহিকতা হিসেবে আমাকে দিয়ে দুই স্টেশনের দায়িত্ব পালন করানো হচ্ছে।

যশোরের দু’টি রেল স্টেশনে একই মাস্টার দিয়ে চলছে কার্যক্রম। ফলে যেকোনো মুহূর্তে ঘটে যেতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা। অপূরণীয় ক্ষতি হয়ে যেতে পারে এ রুটে চলাচলকারী যাত্রীদের জানমালের এমন আশংষ্কা প্রকাশ করেছে এলাকার নিয়মিত রেল যাতায়াতকারী যাত্রীরা।

স্টেশন দু’টি হলো যশোর ও বেনাপোল। উভয় স্টেশন দু’টি রেল জংশন হওয়ায় স্টেশন দু’টিতে স্টেশন মাস্টারের গুরুত্ব অপরিসীম বলে জানিয়েছে একাধিক যাত্রী।

সরেজমিন অনুসন্ধানে জানা যায়, গত তিন মাস আগে যশোর রেলস্টেশনে দায়িত্বে থাকা অবস্থায় অবসরে যান স্টেশন মাস্টার শ্রী পুষ্পল কুমার মণ্ডল। এ গুরুত্বপূর্ণ স্টেশনটি গত তিন মাস ধরে মাস্টারশূন্য ছিল।

অপরদিকে গত চার বছর ধরে বেনাপোল রেলস্টেশনের মাস্টার হিসাবে দায়িত্বরত আছেন সাইদুর রহমান। গত এক সপ্তাহ ধরে যশোর স্টেশন মাস্টারের রুমের সামনে স্টেশন মাস্টার হিসেবে সাইদুর রহমানে নেমপ্লেট ঝুলানো হয়েছে। তবে সপ্তাহ ধরে তার অফিসে গিয়ে এক দিনও তাকে পাওয়া যায়নি।

বিষয়টি নিয়ে সহকারী নারী স্টেশন মাস্টার নিগার সুলতানার কাছে জানতে চাইলে তিনি নিউজবাংলাদেশকে ডটকমকে বলেন, স্টেশন মাস্টার সাইদুর রহমান বর্তমানে দু’টি রেল স্টেশনের একই সাথে দায়িত্বে পালন করছেন। সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৬টা পর্যন্ত তিনি বেনাপোল রেলস্টেশনের দায়িত্বে থাকেন। এর পর সন্ধায় বেনাপোল থেকে ফিরে এসে তিনি যশোর রেলস্টেশনের দায়িত্বে থাকেন। এভাবেই চলছে যশোর রেলস্টেশনের মাস্টার পদের কার্যক্রম।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে রেলের এক কর্মচারী জানান, যশোর রেল স্টেশন থেকে মাস্টার অবসরে গেছে প্রায় চার মাস আগে। কিন্তু এখানে এখনো কোন স্টেশন মাস্টার আসেনি। যে কারণে এখানকার স্টাফরা তাদের খেয়াল-খুশি মতো চলে। তাছাড়া এখানে প্রায় একশ লোক তাদের অবসরের টাকা পয়সা নিতে আসেন। স্টেশন মাস্টার না থাকায় রেলের অবসর প্রাপ্তরা টাকা তুলতে চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছে প্রতিনিয়ত।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে অপর এক কর্মচারী জানান, যশোর রেলস্টেশনে অনেক মাস্টার আসার জন্য মুখিয়ে থাকে। কিন্তু উপরের কর্তা ব্যক্তিদের চাহিদা মোতাবেক ম্যানেজ করতে না পারলে এ স্টেশনে পোস্টিং দেন না।

সবাই এ স্টেশনে আসার আগ্রহের কারণ জানতে চাইলে তিনি জানান, এখানে টিকিট নিয়ে নয় ছয় আছে। এখানকার স্টেশন মাস্টারের সহযোগিতায় কাউন্টারের কিছু অসাধু লোক আছেন। যারা আগে থেকে দুরপাল্লার ট্রেনগুলোর টিকিট কেটে রাখেন। পরে দালাল বা পরিচিত জনদের মাধ্যমে অধিক মূল্যে ট্রেনের টিকিটগুলো বিক্রি করে থাকেন। কোন যাত্রী তিন দিন আগে কাউন্টারে গেলেও কাউন্টার থেকে বলা হয় ট্রেনের কোনো টিকিট নেই।

শাহিন, রাসেল, ইমরান, সুজনসহ একাধিক যাত্রী জানায়, তারা চার দিন আগে ঢাকাতে যাওয়ার জন্য স্টেশনের টিকিট কাউন্টারে গিয়েছিল টিকিট সংগ্রহের জন্য। কিন্তু কাউন্টার থেকে জানিয়ে দেওয়া হয় এক সপ্তাহের মধ্যে কোন টিকিট নেই।

বিষয়টি নিয়ে স্টেশন মাস্টার সাইদুর রহমাননের কাছে জানতে চাইলে তিনি নিউজবাংলাদেশকে বলেন, রেলওয়েতে জনবল সংকটের কারণে অনেক স্টাফ দিয়ে একাধিক কাজ করানো হয়। তারই ধারাবাহিকতা হিসেবে আমাকে দিয়ে দুই স্টেশনের দায়িত্ব পালন করানো হচ্ছে।

বাড়তি দায়িত্ব নেওয়ার জন্য কোন বেতন ভাতা দেওয়া হবে কি না তা জানতে চাইলে তিনি জানান, এর জন্য কোন বেতন ভাতা কর্তৃপক্ষ দেবে না। তবে এখানে তো আর কোন স্টেশন মাস্টার নেই।

আমি যাতে পরবর্তীতে স্থায়ীভাবে এ স্টেশনে দায়িত্ব পালন করতে পারি তার জন্য একই সাথে দু’স্টেশনের দায়িত্ব পালন করছি বলে তিনি জানান।

যে ১৪ আত্মমূল্যায়নের প্রশ্নে বদলে যেতে পারে জীবন সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবিতে মস্কোতে হাজারো নাগরিকের বিক্ষোভ হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মঞ্চেই মারা গেলেন ভারতীয় কৌতুকাভিনেতা নিজের পিস্তলের গুলিতে আহত ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নেতা কুমিল্লায় টেলিভিশন জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের নির্বাচন অনুষ্ঠিত ছেলেধরা সন্দেহে পিটিয়ে হত্যা: ৫শ জনের বিরুদ্ধে মামলা পঞ্চগড়ে মাছ ধরতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে দুই ছেলেসহ বাবার মৃত্যু হজক্যাম্পের আশপাশের রেস্তোরাঁয় পচা খাবার, জরিমানা ২৬ লাখ জনগণকে নিয়ে গণঅভ্যুত্থান ঘটাতে হবে: ফখরুল ট্রাম্পের দাবি নাকচ, এই সেই ইরানি ড্রোন! জামালপুরে বন্যা পরিস্থিতি অপরিবর্তিত শ্বশুরকে হত্যা করে পলাতক জামাই ইনডোর এশিয়া কাপ হকিতে বাংলাদেশ সপ্তম আইনি লড়াইয়ে খালেদার মুক্তি নেই: গয়েশ্বর গণপিটুনির সঙ্গে জড়িতদের আইনের আওতায় আনা হবে কাদেরের মাথায় হাত বুলিয়ে রওশনের আশীর্বাদ ‘স্থানীয় হিন্দু-মুসলমানদের হয়রানি করছেন প্রিয়া সাহা’ দিল্লির ৩ বারের মুখ্যমন্ত্রী শীলা দীক্ষিত মারা গেছেন মিন্নিকে আইনি সহায়তা দিতে বরগুনায় আসকের ৪ আইনজীবী প্রিয়া সাহার অভিযোগ নিয়ে যা বলল জামায়াত সাংবাদিক পাইলেই গুলি করে মারব: ছাত্রলীগ নেতা ইঞ্জিনে পাখির বাসা, দেড়মাস বসে থাকলেন ট্রাকচালক উইন্ডিজ সফরে না গিয়ে সেনাবাহিনীতে সময় দেবেন ধোনি ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনি, প্রাণ গেলো ৩ জনের যে পরিচয়ে হোয়াইট হাউসে গিয়েছেন প্রিয়া সাহা টাইগারদের বিপক্ষে খেলেই অস্ট্রেলিয়ায় স্থায়ী হচ্ছেন মালিঙ্গা! পদ্মার পানি বাড়লে মধ্যাঞ্চলে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হতে পারে বাসা ভাড়া নিয়ে দেহ ব্যবসা সৈয়দপুরে জনসমাগম দেখলেই সরকার আতঙ্কে শিউরে ওঠে: ফখরুল নেত্রী ও গণতন্ত্র মুক্ত করার আন্দোলন শুরু হয়েছে: দুদু