artk
বুধবার, সেপ্টেম্বার ১৮, ২০১৯ ১:৫৪   |  ২,আশ্বিন ১৪২৬
মঙ্গলবার, জুন ১১, ২০১৯ ৪:২৬

শক্তিশালী বিরোধী দল গণতন্ত্রের জন্য ভালো: কাদের

স্টাফ রিপোর্টার
media

ফাইল ফটো

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন,একটি ঐক্যবদ্ধ শক্তিশালী বিরোধী দল গণতন্ত্রের স্বাস্থ্যের জন্য ভালো।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন,একটি ঐক্যবদ্ধ শক্তিশালী বিরোধী দল গণতন্ত্রের স্বাস্থ্যের জন্য ভালো।

মঙ্গলবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলের যৌথ সভা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ঐক্যফ্রন্ট নিয়ে ওবায়দুল কাদের এ কথা বলেন।

 তিনি বলেন, ঐক্যফ্রন্ট ঐক্যবদ্ধ থাকুক—এটাই সরকারি দলের প্রত্যাশা। 

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর সৃষ্ট টানাপোড়েনের প্রেক্ষাপটে গতকাল সোমবার ঐক্যফ্রন্টের ‘স্টিয়ারিং কমিটির’র বৈঠক হয়। সেখানে এই জোটের অনেক নেতা ক্ষুব্ধ মনোভাব প্রকাশ করেন।

ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতাদের মধ্যে সমন্বয়হীনতা প্রকাশ পাচ্ছে—এ বিষয় কীভাবে দেখছেন, তা জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘ঐক্যফ্রন্টের ব্যাপারে আপনারা যে প্রশ্ন করেছেন—ঐক্যফ্রন্টে সমন্বয় নেই, ঐক্য নেই—আমরা সেটা চাই না। ঐক্যফ্রন্ট ঐক্যবদ্ধ হোক, তাদের মধ্যে সমন্বয় হোক। একটি শক্তিশালী দায়িত্বশীল বিরোধী দল গণতন্ত্রের স্বাস্থ্যের জন্য শুভ।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘শক্তিশালী দায়িত্বশীল বিরোধী দল আমরা চাই। সংসদের ভেতরে ও বাইরে শুধু দায়িত্বশীল নয়, শক্তিশালী বিরোধী দল আমরা চাই। বিরোধী দল যথাযথ ভূমিকা পালন করবে—এটাই আমাদের প্রত্যাশা।’

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বন্দিত্ব নিয়ে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) উদ্বেগ প্রকাশ করায় আওয়ামী লীগ কোনো চাপ অনুভব করছে কি না—এ প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বিচ্ছিন্নভাবে কে কী বলেছে, তা নিয়ে কোনো চাপ আমরা অনুভব করছি না।’

ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, ‘খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য নিয়ে বিএনপি উদ্বেগ প্রকাশ করছে। কিন্তু ডাক্তাররা তো কোনো উদ্বেগ প্রকাশ করছেন না। খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য উদ্বেগের পর্যায়ে আছে বলে আমাদের জানা নেই। মেডিকেল বোর্ডও এ রকম কোনো তথ্য দিতে পারেনি।’

খালেদা জিয়ার বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপির চেয়ারপারসনের জন্য কিছু করতে পারেননি বলে দলটির নেতারা মুখরক্ষায়, কর্মীদের চাঙা করতে নানান কথা বলছেন। বিএনপির নেতারা বেগম জিয়ার স্বাস্থ্য নিয়ে যতটা না উদ্বিগ্ন, তার চেয়ে তাঁর শারীরিক অবস্থা নিয়ে রাজনীতি করতেই তাঁরা বেশি অভ্যস্ত ও ব্যস্ত।

সেতুমন্ত্রী আরও বলেন, বিএনপি বারবার বিদেশিদের কাছে ধরনা দিচ্ছে। বিদেশিরা কখনো বলেনি বেগম জিয়ার স্বাস্থ্য খারাপ। তারা বলেছে, বন্দী অবস্থায় যেন ভালো চিকিৎসা হয়। ভালো চিকিৎসা তো হচ্ছে। ডাক্তারদের পক্ষ থেকে তো কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি।

আওয়ামী লীগের নেতারা প্রতিহিংসামূলক বক্তব্য দিচ্ছেন—বিএনপি নেতাদের এমন অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, যারে দেখতে নারি, তার চলন বাঁকা। শেখ হাসিনার ভালো কাজ তারা (বিএনপির নেতারা) দেখতে পান না। উন্নয়ন তাদের চোখে পড়ে না। কারণ হচ্ছে, তারা ধরে নিয়েছেন, তাদের রাজনীতি হচ্ছে বিরোধিতার জন্য বিরোধিতা। বাস্তব অবস্থার কোনো বিচার-বিশ্লেষণ তারা করছেন না। আসলে তাদের পাওয়ারের চশমা দরকার। উন্নয়ন দেখার জন্য তাদের এখন পাওয়ারের চশমা দরকার। পাওয়ারের চশমা হলে হয়তোবা দেখতে পাবেন।

সংরক্ষিত নারী আসনে বিএনপির সাংসদ হিসেবে শপথ নেয়ার পর রুমিন ফারহানা সংসদকে অবৈধ বলে মন্তব্য করেন। এ বিষয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘তারপরও তার সাহসের আমরা প্রশংসা করি যে তিনি সংসদে এসেছেন। মির্জা ফখরুল ইসলাম তো পাস করেও সংসদে আসেননি।’

রুমিন ফারহানার মন্তব্য প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘সংসদে এসে সংসদের বিরুদ্ধে বলুক। সরকারের বিরুদ্ধে বলুক। এতে আমাদের কোনো আপত্তি নেই। তারপর সংসদে তো এসেছেন। সংসদ সদস্য হয়ে কীভাবে এই সংসদকে অবৈধ বললেন, তার মীমাংসা সংসদ অধিবেশনেই হবে।’

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, এ কে এম এনামুল হক শামীম, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, মুহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, দপ্তর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাছান মাহমুদ, সাংস্কৃতিক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, কেন্দ্রীয় সদস্য মারুফা আক্তার পপি, কামরুল ইসলাম, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসনাত, সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, ঢাকা উত্তরের মেয়র আতিকুল ইসলাম, ঢাকা দক্ষিণের মেয়র সাইদ খোকন প্রমুখ যৌথ সভায় উপস্থিত ছিলেন।

সাইবার ক্রাইম বিভাগে দ্বারস্থ মেহজাবিন নকল বিদেশি ওষুধ বিক্রি করায় ২ প্রতিষ্ঠানকে ৪০ লাখ টাকা জরিমানা গণহত্যার ঝুঁকিতে এখনো ৬ লাখ রোহিঙ্গা: জাতিসংঘ গাজীপুরে বিদ্যুতের তার ছিঁড়ে অবৈধ গ্যাস লাইনে অগ্নিকাণ্ড ফেসবুক স্ট্যাটাস দেখেই শিক্ষার্থীদের বহিষ্কার করেন উপাচার্য পাবনায় ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে ট্রেন চালকের আত্মহত্যা সৌদি আরবে ফের হামলা চালিয়েছে ইয়েমেন ঢাকার শতাধিক বিএনপি নেতাকর্মী জাতীয় পার্টিতে যোগ দিয়েছে চাঁদাবাজির অভিযোগে ঢাকা উত্তর ছাত্রলীগ নেতা বহিস্কার ‘ডাক্তার বলার আগেই আয়া রোগীর পোশাক খুলে নেয়’ দুর্নীতি নির্মূলে টাস্কফোর্স গঠনের দাবি সম্পাদক পদে প্রার্থী হবেন না ওবায়দুল কাদের রিজার্ভ চুরির ব্যাপারে কিছুই বলা যাবে না: অর্থমন্ত্রী আলিয়ার সঙ্গে চুমুর দৃশ্যে আপত্তি সালমান খানের? মামলাকে কর ফাঁকির হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করছে মেঘনা গ্রুপ! খালেদা জিয়া আলেমদের কিছু দেন নাই: আল্লামা শফী অন্য প্রতিষ্ঠানেও ‘ভাগাভাগি’ হচ্ছে: আরেফিন সিদ্দিক প্রেস কাউন্সিলের বিবৃতি প্রত্যাহার চায় এলআরএফ বাংলাদেশকে হারাতে মরিয়া জিম্বাবুয়ে বুধবার শ্রীলঙ্কায় যাচ্ছে মিরাজ-মুমিনুল-সৌম্যরা মোবাইল ফোনে কথা বলতে বলতে ট্রাকের নিচে এনজিওকর্মী কোহলিদের নিরাপত্তা দিতে আপত্তি ভারতীয় পুলিশের হাজিরা খাতায় সই করেই বেতন-ভাতা নেন আ.লীগ নেতার স্ত্রী মধ্য রাতে বৃদ্ধার গরু লুট করলো যুবলীগ-কৃষক লীগ নেতারা পুঁজিবাজারে সূচকের পতন, লেনদেনে উত্থান ছাত্রলীগে ভারপ্রাপ্ত দায়িত্ব কোন আইনে: রিজভী রাব্বানীকে একহাত নিলেন সাবেক ছাত্রলীগ নেত্রী পেঁয়াজের দাম শিগগিরই কমবে: বাণিজ্য সচিব বিমানের ড্রিমলাইনার ‘রাজহংস’ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী বিভাগীয় শহরে ক্যান্সার হাসপাতালসহ ৮ প্রকল্প অনুমোদন