artk
বৃহস্পতিবার, অক্টোবার ১৭, ২০১৯ ৩:১৪   |  ২,কার্তিক ১৪২৬
মঙ্গলবার, জুন ৪, ২০১৯ ১:৫০

সদকাতুল ফিতর: গুরুত্ব ও বিধিবিধান

এহসান বিন মুজাহির
media
তাছাড়া ধনী-গরিব উভয়ে যেন অন্তত ঈদের দিন উত্তম পোশাক ও উন্নতমানের খাবার খেতে পারে এ জন্যই ফিতরার ব্যবস্থা।

পবিত্র রমজানের ইবাদতের মধ্যে সদকাতুল ফিতর আদায় করা অন্যতম একটি ইবাদত। রমজানের সিয়াম সাধনা শেষে আসে ঈদুল ফিতর। ঈদের আনন্দ ধনী-গরিব সবার মাঝে ছড়িয়ে দিতে এবং এ আনন্দে যেন মুসলিম জাতির প্রতিটি সদস্য শরিক হতে পারে এ জন্য ওয়াজিব করা হয়েছে সাদকাতুল ফিতর।

রমজানের রোজার ত্রুটি-বিচ্যুতি পরিপূর্ণতার জন্যই আবশ্যক করা হয়েছে এটি। ইমাম ওয়াকি ইবনুল জাররাহ বলেন, রমজান মাসের জাকাতুল ফিতর নামাজের সিজদায়ে সাহুর সমতুল্য। অর্থাৎ নামাজে ত্রুটি-বিচ্যুতি হলে যেমন সিজদায়ে সাহু দিলে এটা পূর্ণ হয়ে যায় তেমনি রোজার মধ্যে ত্রুটি-বিচ্যুতি হলে সাদকাতুল ফিতর দিয়ে এর প্রতিকার হয়।

তাছাড়া ধনী-গরিব উভয়ে যেন অন্তত ঈদের দিন উত্তম পোশাক ও উন্নতমানের খাবার খেতে পারে এ জন্যই ফিতরার ব্যবস্থা।

সদকাতুল ফিতর উত্তম হলো ঈদের নামাজের আগে আদায় করে দেয়া। কেননা রাসুল (সা.) ঈদগাহে যাওয়ার আগেই সদকাতুল ফিতর আদায় করার নির্দেশ দিয়েছেন। জাকাত গ্রহণের উপযুক্ত এমন অভাবী লোকদের সদকাতুল ফিতর দিতে হবে। একজন দরিদ্র মানুষকে একাধিক ফিতর দেওয়া যেমন জায়েজ, তেমনি একটি ফিতরা বণ্টন করে একাধিক মানুষকে দেওয়াও জায়েজ।

ইবনে ওমর (রা.) বলেন, রাসূল (সা.) সদকাতুল ফিতর আবশ্যক করেছেন। এর পরিমাণ হলো, এক সা যব বা এক সা খেজুর। ছোট-বড়, স্বাধীন-পরাধীন সামর্থ্যবান সবার ওপরই এটা আবশ্যক। (বুখারি, হাদিস নং : ১৫১২)।

হজরত ইবনে আব্বাস (রা.) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, ‘রাসুলুল্লাহ (সা.) রোজা পালনকারীর জন্য সদকাতুল ফিতর আদায় অপরিহার্য করে দিয়েছেন, যা রোজা পালনকারীর অনর্থক, অশ্লীল কথা ও কাজ পরিশুদ্ধকারী এবং অভাবী মানুষের জন্য আহারের ব্যবস্থা। যে ব্যক্তি ঈদের সালাতের আগে এটা আদায় করবে, তা সদকাতুল ফিতর হিসেবে গ্রহণযোগ্য হবে। আর যে ঈদের সালাতের পর আদায় করবে তা অপরাপর (নফল) সদকা হিসেবে গৃহীত হবে। (আবু দাউদ, হাদিস নং: ১৩৭১)

সদকায়ে ফিতর যাদের উপর ওয়াজিব: ঈদের দিন সুবহে সাদেকের সময় যার কাছে যাকাত ওয়াজিব হওয়া পরিমাণ অর্থাৎ অত্যাবশ্যকীয় আসবাব সামগ্রী ব্যবহার্য দ্রব্যাদি, বাসগৃহ ইত্যাদি বাদ দিয়ে সাড়ে ৫২ তোলা রূপা বা সাড়ে সাত তোলা স্বর্ণ অথবা সমমূল্য পরিমান সম্পদ থাকে তার উপর সদকায়ে ফিতর দেয়া ওয়াজিব। শুধু ঈদের দিনে মালিক থাকলে ফিতরা ওয়াজিব হবে, জাকাতের মতো এক বছর অতিক্রান্ত হওয়া জরুরি নয়।

সদকাতুল ফিতরের পরিমাণ: ইবনে ওমর (রা.) বলেন, রাসূল (সা.) সদকাতুল ফিতর আবশ্যক করেছেন। এর পরিমাণ হলো, এক সা যব বা এক সা খেজুর। ছোট-বড়, স্বাধীন-পরাধীন সবার ওপরই এটা আবশ্যক। (বুখারি, হাদিস নং : ১৫১২)।

ইবনে আব্বাস (রা.) একবার রমজানের শেষ দিকে বসরায় খুতবা প্রদান করেন। সেখানে তিনি বলেন, তোমাদের রোজার সদকা আদায় করো। লোকেরা যেন ব্যাপারটা বুঝতে পারে নি। তখন ইবনে আব্বাস (রা.) বললেন, এখানে মদিনার কে আছে দাঁড়াও। তোমাদের ভাইদেরকে বলো, তারা তো জানে না। বলো যে, রাসূল (সা.) এই সদকা আবশ্যক করেছেন। এক সা খেজুর বা যব অথবা আধা সা গম প্রত্যেক স্বাধীন-দাস, পুরুষ-নারী, ছোট-বড় সবার ওপর ওয়াজিব। (আবু দাউদ, হাদিস নং : ১৬২২)।

যারা জাকাত গ্রহণের উপযুক্ত এমন অভাবী লোকদের সদকাতুল ফিতর প্রদান করতে হবে।

জাকাতের জন্য সম্পদের বর্ষপূর্তি শর্ত হলেও ফিতরায় এ শর্ত নেই। নেসাব পরিমাণ সম্পদের মালিক নিজের পক্ষ থেকে, নিজের প্রাপ্ত এবং অপ্রাপ্ত বয়স্ক সন্তানদের পক্ষ থেকে এবং নিজের সেবক-সেবিকাদের পক্ষ থেকে ফিতরা আদায় করতে হবে। সন্তান বা অধীনস্থরা অমুসলিম হলেও তাদের ফিতরা আদায় করা আবশ্যক।

গম বা আটা, যব, কিশমিশ, খেজুর ও পনির- এ পাঁচটি জিনিস বা তার মূল্য দিয়ে ফিতরা আদায় করা যায়। সামর্থ্যানুসারে সবার উচিত উৎকৃষ্ট জিনিস সাদকা করা। রাসূল (সা.)-এর সময়ে সামর্থ্যানুযায়ী সবাই উত্তম পণ্য দিয়ে ফিতরা আদায় করতেন।

সর্বোত্তম দান সম্পর্কে জিজ্ঞেস করা হলে রাসূল (সা.) ইরশাদ করেন, দাতার কাছে যা সর্বোৎকৃষ্ট এবং যার মূল্যমান সবচেয়ে বেশি। (বুখারি)।

ফিতরা আদায়ের ক্ষেত্রে আমরা অদ্ভুত মানসিকার পরিচয় দেই। আমাদের সমাজে কোটিপতি হতে মধ্যবর্তী সবাই ৬০-৭০ টাকা দিয়েই দায়মুক্ত হতে চাই। সবচেয়ে কম মূল্যের গমের হিসাবে সবাই সাদকা করি। বিষয়টি রাসূল (সা.)-এর শিক্ষার সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ নয়। ইসলামিক ফাউন্ডেশনের হিসাবমতে, সর্বনিম্ন ৭০ থেকে ৫০০, ১৩২০, ১৯৮০, ২৩১০ টাকা দিয়ে ফিতরা আদায় করা যাবে। তাই সামর্থ্যানুযায়ী বেশি মূল্যের পণ্য দিয়ে ফিতরা আদায়ের চেষ্টা করতে হবে।

আল্লাহতায়ালা আমাদেরকে যথাযথ সদকায়ে ফিতর আদায়ের তাওফিক দান করুন।

লেখক: সাংবাদিক ও শিক্ষক।

আবরার হত্যার দায়ে ছাত্রলীগকে নিষিদ্ধ করার দাবি আ স ম রবের বিজ্ঞাপনে বিদেশি শিল্পী নিলে বেশি টেক্স দিতে হবে: তথ্যমন্ত্রী নভেম্বরে বাংলাদেশ-ভারত টেস্টে ইডেনে থাকতে পারেন হাসিনা-মোদি পেঁয়াজে বেশি মুনাফার চেষ্টা করা হলে ব্যবস্থা: চট্টগ্রামের ডিসি ভারতে আটকে আছে ৫০০ টন পেঁয়াজ রামপালে আ.লীগের সম্মেলন ঘিরে দুপক্ষের উত্তেজনা আমার দাদা রুদ্র ১৮ বছর পর মামলা থেকে অব্যাহতি পেলেন নিরপরাধ বাবলু শেখ পাহাড়ে অহেতুক রক্তপাত হচ্ছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অভিযোগ আমারও আছে কিন্তু বিচ্ছেদ চাই না: সিদ্দিক প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ফিফা সভাপতির সাক্ষাৎ বাংলাদেশ ফুটবল দলের পারফরমেন্স চোখে পড়ার মতো: ফিফা সভাপতি জামাল ভূঁইয়ার ফেসবুক পেজ বন্ধ! হঠাৎ কি হল তামিমের? ছাত্রদলের সভাপতি-সম্পাদককে আদালতে হাজিরের নির্দেশ রাজধানীতে জেএমবি’র তিন সদস্য আটক দুই বস্তা ইলিশসহ জনতার হাতে ৩ পুলিশ আটক আইএস যোদ্ধাদের সন্তানের ভবিষ্যৎ কী কম দামে আইফোন আনছে অ্যাপল সাদা ঘোড়ায় ছুটে কী জানান দিলেন কিম? খুলনার থ্রি ডক্টরস কোচিংয়ের বিষয়ে তদন্ত চলছে প্লাস সাইজ মার্কিনকন্যা খুঁজছেন ভারতীয় পাত্র হংকং নিয়ে ‘নাক না গলাতে’ যুক্তরাষ্ট্রকে চীনের হুঁশিয়ারি আবারও গোল্ডেন বুট জিতলেন মেসি হানিফ ফ্লাইওভারে মোটরসাইকেল আরোহী নিহত ব্রেকফাস্টে পিনাট বাটার আর আপেল একসঙ্গে নয় কক্সবাজারে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ২ বর্ষপঞ্জি সংস্কার, ১ দিন পিছিয়ে হেমন্তের শুরু একজন রোগীর জন্য ওষুধ তৈরি করলেন বিজ্ঞানীরা ফরিদপুরে গাড়িচাপায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত