artk
শনিবার, আগষ্ট ২৪, ২০১৯ ১:০৬   |  ৮,ভাদ্র ১৪২৬
শনিবার, জুন ১, ২০১৯ ৭:৪০

যে রাতের মূল্য হাজার মাসের চেয়ে বেশি

নিউজ ডেস্ক
media

আভিধানিকভাবে লাইলাতুল কদর অর্থ সম্মানের রাত। অত্যন্ত মহিমান্বিত একটি রাত এ নামে আখ্যায়িত হয়েছে। কুরআন মাজিদে একটি সূরা নাজিল হয়েছে এ প্রসঙ্গে। মাহে রমজানুল মোবারকের ২৬ তারিখ দিবাগত রাত বা রমজানের ২৭তম রাত সাধারণভাবে লাইলাতুল কদর বা কদরের রাত হিসেবে পরিচিত। 

আভিধানিকভাবে লাইলাতুল কদর অর্থ সম্মানের রাত। অত্যন্ত মহিমান্বিত একটি রাত এ নামে আখ্যায়িত হয়েছে। কুরআন মাজিদে একটি সূরা নাজিল হয়েছে এ প্রসঙ্গে। মাহে রমজানুল মোবারকের ২৬ তারিখ দিবাগত রাত বা রমজানের ২৭তম রাত সাধারণভাবে লাইলাতুল কদর বা কদরের রাত হিসেবে পরিচিত। 

এতে ঘোষণা করা হয়েছে, লাইলাতুল কদরের মর্যাদা হাজার মাসের চেয়ে বেশি। তাফসিরের কিতাবগুলোতে উল্লেখ রয়েছে, একদিন নবী করিম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এই ভেবে অস্থির হচ্ছিলেন যে, আগের নবীর উম্মতেরা দীর্ঘ হায়াত পেত। ফলে তারা অনেক বেশি ইবাদত-বন্দেগির সুযোগ পেত; কিন্তু শেষ নবীর উম্মতের হায়াত খুবই সীমিত। অতএব তাদের পক্ষে উচ্চ মর্যাদা লাভের সুযোগ কম। তখন আল্লাহর পক্ষ থেকে এই সূরা নিয়ে উপস্থিত হন হজরত জিবরাইল আলাইহিস সালাম। ফলে শান্ত হন মহানবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ও তার সাহাবিরা।

আল্লাহ তায়ালা এ রাতেই কুরআন মাজিদ নাজিল করেছেন বলে জানিয়ে দিয়েছেন। তেমনি এ রাতের মর্যাদা হাজার মাসের চেয়ে বেশি বলেও ঘোষণা করেছেন। কিন্তু রাত কোনটি তা বলে দেননি। হাদিস শরিফেও নির্দিষ্ট করে বলা হয়নি কোনটি কদরের রাত। নিঃসন্দেহে এতে অনেক রহস্য ও তাৎপর্য নিহিত রয়েছে। তবে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম রমজানের শেষ দশকের বেজোড় রাতগুলোতে কদরের রাত অনুসন্ধানের তাগিদ দিয়েছেন। ইবাদত-বন্দেগির মধ্য দিয়ে রাতটি কাটাতে পারলে এ রাতের প্রকৃত সুফল পাওয়া যায়।

কুরআন মাজিদের বর্ণনা অনুযায়ী, এই এক রাতে ইবাদতের বিনিময়ে হাজার মাসের ইবাদতের সওয়াবের চেয়েও বেশি সওয়াব পাওয়া যায়। হয়তো আল্লাহ তায়ালা ও তাঁর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম চাননি মুসলমানরা একটি রাতের ভরসায় বসে থেকে সারা বছর বা সারা মাস অবহেলায় কাটিয়ে দিক। এ জন্য এটাকে রহস্যময় করে রাখা হয়েছে। তা ছাড়া পরিশ্রম ও সাধনার মাধ্যমেই মূল্যবান কিছু অর্জন করতে হয়।

যে রাতের মূল্য হাজার মাসের চেয়ে বেশি, তা যদি সহজে পাওয়া যেত, তাহলে মানুষ হয়তো এটাকে বেশি গুরুত্ব দিত না। তাই তা অনির্দিষ্ট করে রেখে মানুষকে অনুসন্ধান করতে বলা হয়েছে। কেউ কেউ রমজানের যেকোনো অংশে এ রাত হতে পারে বলে মন্তব্য করেন; কিন্তু বেশির ভাগ মনীষীর মতে রমজানের শেষ দশকেই তা লুকায়িত রয়েছে।

আবার কারো কারো মতে, এ রাতের তারিখ পরিবর্তনশীল। কোনো বছর একুশ, কোনো বছর তেইশ, কোনো বছর পঁচিশ, কোনো বছর সাতাইশ, আবার কোনো বছর ঊনত্রিশ তারিখের রাত লাইলাতুল কদর হয়। কিন্তু সাহাবায়ে কেরাম থেকে শুরু করে পরবর্তী সময়ে অনেক মনীষী রমজানের সাতাইশ তারিখের রাতকে লাইলাতুল কদর হিসেবে চিহ্নিহ্নত করেছেন। লাইলাতুল কদরের কিছু আলামত হাদিসে বর্ণিত আছে।

সেগুলো হলো, এ রাতটি রমজান মাসে। আর এ রাতের ফজিলত কিয়ামত পর্যন্ত জারি থাকবে। রাতটি রমজানের শেষ দশকে। এটি রমজানের বেজোড় রাতে হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। এ রাত রমজানের শেষ সাত দিনে হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। রমজানের ২৭তম রজনী লাইলাতুল কদর হওয়ার সম্ভাবনা সবচেয়ে বেশি।

হজরত উবাই ইবনে কাব থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন যে, আল্লাহর শপথ করে বলছি, আমি যত দূর জানি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম আমাদেরকে যে রজনীকে কদরের রাত হিসেবে কিয়ামুল লাইল করতে নির্দেশ দিয়েছিলেন তা হলো রমজানের ২৭তম রাত। (মুসলিম শরিফ)

হজরত আবদুল্লাহ বিন উমার থেকে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘যে ব্যক্তি কদরের রাত অর্জন করতে ইচ্ছুক, সে যেন তা রমজানের ২৭ রজনীতে অনুসন্ধান করে। (মুসনাদে আহমাদ)।

হজরত আয়েশা সিদ্দিকা (রা.) নবী করিম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে জিজ্ঞাসা করলেন, হে আল্লাহর রাসূল! আমি যদি শবে কদরের সন্ধান পাই তবে সে রাতে কী বলব? নবী করিম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বললেন, তুমি তখন বলবে, আল্লাহুম্মা ইন্নাকা আফুব্বুন, তুহিব্বুল আফওয়া ফা‘ফু আন্নি। অর্থ : হে আল্লাহ! তুমি ক্ষমাশীল। তুমি ক্ষমা করতে ভালোবাসো। অতএব, তুমি আমাকে ক্ষমা কর।

লাইলাতুল কদরে সালাত, তিলাওয়াত ও জিকির-তাসবিহের সাথে যেমন অতীত জীবনের পাপরাশি মোচনের জন্য মহান প্রভুর কাছে আকুল আবেদন জানাতে হবে, তেমনি তার তাওফিক প্রার্থনা করতে হবে কুরআনকে জীবনের দিশারি হিসেবে মেনে চলার।

রোহিঙ্গাদের আর বসিয়ে বসিয়ে খাওয়াতে পারব না: পররাষ্ট্রমন্ত্রী বাংলাদেশ সফরের আগে আবুধাবিতে প্রস্তুত হচ্ছেন রশিদ বাহিনী ভ্যানিটি ব্যাগে পাওয়া গেলো ২৫ বোতল ফেনসিডিল ভালুকায় অজ্ঞানপার্টির কবলে পুলিশ অধ্যাপক মোজাফফর আহমদ আর নেই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে সাংবাদিক গ্রেপ্তার রোহিঙ্গ প্রত্যাবাসনে সরকার কূটনৈতিকভাবে ব্যর্থ: রিজভী কুমিল্লায় ট্রেনের নিচে কাটা পড়ে কিশোর-কিশোরী নিহত নারীকর্মীর সঙ্গে জামালপুরের ডিসির অন্তরঙ্গ ভিডিও ভাইরাল ভুটানকে উড়িয়ে দিয়ে সাফ শুরু করলো বাংলাদেশ সাকিব না থাকলে সব কিছুই কঠিন হবে: তাইজুল সাতক্ষীরায় সাপের কামড়ে বেদের মৃত্যু মেয়েকে ধর্ষণচেষ্টা, সৎ বাবা আটক রাঙ্গামাটিতে সেনাবাহিনীর গাড়িতে গুলি, পাল্টা গুলিতে সন্ত্রাসী নিহত ‘বোন হত্যা ও ধর্ষণের বিচার চাইতে এসেছি’ আমাজনে আগুন আন্তর্জাতিক সংকট: ম্যাক্রোঁ অফিসে ঘুমালে বাড়ে কাজের মান ৯ ঘণ্টার বেশি বসে কাজ করলে অকালে মৃত্যু রোহিঙ্গাদের ফিরে যাওয়ার পরিস্থিতি মিয়ানমারে নেই: জাতিসংঘ গাজীপুরে ছাত্রলীগ নেতাদের ওপর হামলা, আহত ৪ মোহাম্মদপুরে ছাদ থেকে পড়ে মিস্ত্রির মৃত্যু বউ কথা কও ‘মাদক বিক্রেতার গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার’ দুই সপ্তাহ ধরে পুড়ছে পৃথিবীর ‘ফুসফুস’ শুভ জন্মাষ্টমী শুক্রবার সাতক্ষীরায় ডেঙ্গুতে নারীর মৃত্যু আন্তর্জাতিক দাস বাণিজ্য স্মরণ ও রদ দিবস দেশ নিয়ে চাওয়া পাওয়া পোল্যান্ডে বজ্রপাতে ৪ পর্বতারোহীর মৃত্যু যুবলীগ নেতাকে ধরে নিয়ে গুলি করে হত্যা করলো রোহিঙ্গারা