artk
রোববার, জুলাই ২১, ২০১৯ ১১:১৬   |  ৬,শ্রাবণ ১৪২৬

স্টাফ রিপোর্টার

বৃহস্পতিবার, মে ১৬, ২০১৯ ৮:৪৫

খুবই দুঃশ্চিন্তার মধ্যে আছি: কৃষিমন্ত্রী

media

কৃষক ধানের ন্যায্যমূল্য না পেয়ে ক্ষেতে আগুন দিচ্ছে। এ ব্যাপারে সরকারের উদ্যোগের বিষয়ে জানতে চাইলে আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘ধান ভালো হলে আমরা খুশি হই, বাম্পার ফলন হয়েছে। কেন ভালো হয়েছে? ধানে আমরা ঘাটতি ছিলাম। সারা পৃথিবীতে আমরা খাদ্যের ঝুলি নিয়ে ঘুরে বেড়াতাম। সেই বাংলাদেশে ধান এত উৎপাদন হয়েছে যে চাষিরা এখন এটাকে বার্ডেন মনে করছে।’

বোরোতে কৃষক ন্যায্যমূল্য না পাওয়ায় খুবই দুঃশ্চিন্তার মধ্যে আছেন বলে জানিয়েছেন কৃষিমন্ত্রী মো. আব্দুর রাজ্জাক। কৃষকের ন্যায্যমূল্য নিশ্চিতে সরকার গভীরভাবে চিন্তা-ভাবনা করছে বলেও জানান মন্ত্রী।

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে বাংলাদেশে নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত ঝাং জুর সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি।

কৃষক ধানের ন্যায্যমূল্য না পেয়ে ক্ষেতে আগুন দিচ্ছে। এ ব্যাপারে সরকারের উদ্যোগের বিষয়ে জানতে চাইলে আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘ধান ভালো হলে আমরা খুশি হই, বাম্পার ফলন হয়েছে। কেন ভালো হয়েছে? ধানে আমরা ঘাটতি ছিলাম। সারা পৃথিবীতে আমরা খাদ্যের ঝুলি নিয়ে ঘুরে বেড়াতাম। সেই বাংলাদেশে ধান এত উৎপাদন হয়েছে যে চাষিরা এখন এটাকে বার্ডেন মনে করছে।’

তিনি বলেন, ‘ইমিডিয়েটলি এ সমস্যার সমাধান করা কঠিন। আমরা বলি যে বাংলাদেশে মায়ের মুখের হাসি সোনালী ধানের শীষে। সোনালী ধান দেখে মানুষের মুখে হাসি ফোটে। কিন্তু এটা যে আমাদের জন্য এমন বিড়ম্বনা হবে আমরা ভাবিনি।’

কৃষিমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা বিভিন্ন সহযোগিতা দিয়েছি, আমরা সারের দাম কমিয়েছি, বিভিন্ন উপকরণের দাম কমিয়েছি। ঋণ দিয়েছি, ভালো বীজ দিয়েছি, গবেষণার ক্ষেত্রে অনেক বিনিয়োগ করেছি। ধানের ভালো জাত এসেছে।’

‘আমাদের এখন এগ্রো প্রসেসিং ইন্ডাস্ট্রি করতে হবে। খাদ্যকে কীভাবে প্রক্রিয়াজাত করা যায়, ভ্যালু অ্যাড করা যায়,’যোগ করেন কৃষিমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ‘এ মুহূর্তে উৎপাদন যা দেখছি, আমরা কিছু চাল রফতানির বিষয়টি গভীরভাবে চিন্তা করছি। দ্বিতীয়ত উপকরণ যেমন সেচের খরচ কীভাবে আরও কমানো যায়। সবচেয়ে বড় সমস্যা হচ্ছে শ্রমিকের খরচ। ধান লাগানো থেকে শুরু করে মাড়াই পর্যন্ত অনেক খরচ হচ্ছে, পোষাতে পারছে না কৃষক। এটাও জাতির জন্য অর্থনীতির জন্য একটি খুশির খবর যে, আজ শ্রমিকদের ঘাটতি। এর চেয়ে খুশির খবর আর কী হতে পারে।’

‘কিন্তু অন্যদিকে চাষির জন্য এটা একটা দুঃসংবাদ, সে এত কষ্ট করে মাথার ঘাম পায়ে ফেলে রোদে পুড়ে বৃষ্টিতে ভিজে সে ধান আবাদ করছে। তার রক্তকে সোনালী ফসলে রূপান্তর হচ্ছে, কিন্তু সে ন্যায্য দাম পাচ্ছে না’ বলেন আব্দুর রাজ্জাক।

তিনি বলেন, ‘এটার জন্য সরকারের একদম সর্বোচ্চ পর্যায় থেকে আমরা আলাপ করেছি, খুবই দুঃশ্চিন্তায় রয়েছি। এবং এটা নিয়ে আমরা গভীরভাবে চিন্তা-ভাবনা করছি, কী কী পদক্ষেপ নিলে এ পরিস্থিতি মোকাবেলা করতে পারি এবং চাষির মুখে হাসি ফোটাতে পারি।’

কৃষিমন্ত্রী বলেন, ‘চাল রফতানি, উপকরণের দাম কমানো ও আরও উন্নত জাত আবিষ্কার করে উৎপাদনশীলতা বাড়ানো- এই পদক্ষেপ আমাদের নিতে হবে। এগুলো খুব দীর্ঘেমেয়াদী প্রক্রিয়া নয়। তাৎক্ষণিকভাবে আমরা ১০ থেকে ১৫ লাখ টন রফতানিতে যেতে পারি।’

সরকার যাতে আরও বেশি চাল কিনতে পারে, সেই সক্ষমতাও অর্জন করতে হবে বলেও জানান মন্ত্রী।

কৃষকের কাছ থেকে সরাসরি ধান কিনে কৃষককে লাভবান করার ক্ষেত্রে স্থানীয় রাজনীতি প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করছে জানিয়ে কৃষিমন্ত্রী বলেন, ‘সেই এরশাদের আমল থেকে কৃষকদের কাছ থেকে সরাসরি কিনে কৃষককে লাভবান করার বিষয়ে গভীরভাবে চিন্তা হচ্ছে। আমরা ৩৬টাকা কেজি দরে কিনছি, কিন্তু চাষি পাচ্ছে না। এ বাস্তবতা এক কঠিন যে, কোনো পদ্ধতি বের করতে পারছি না, কীভাবে কৃষকের কাছ থেকে সরাসরি কেনা যায়।’

পুলিশ যা বলতে বলেছে আদালতে তাই বলেছি, বাবাকে মিন্নি সিনেমায় চুমু খেয়ে বিয়ে ভাঙলো নায়িকার! (ভিডিও) নোয়াখালীতে এক ব্যক্তিকে ধরে নিয়ে পিটিয়ে হত্যা এমপি হওয়ার পর ‘অসুরে’ প্রথম নুসরাত নিম্ন রক্তচাপকে স্বাভাবিক করুন খুব সহজে উদ্ভিদের বৃদ্ধিতে বাধার সৃষ্টি করছে সিগারেটের গোড়া যে ১৪ আত্মমূল্যায়নের প্রশ্নে বদলে যেতে পারে জীবন সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবিতে মস্কোতে হাজারো নাগরিকের বিক্ষোভ হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মঞ্চেই মারা গেলেন ভারতীয় কৌতুকাভিনেতা নিজের পিস্তলের গুলিতে আহত ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নেতা কুমিল্লায় টেলিভিশন জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের নির্বাচন অনুষ্ঠিত ছেলেধরা সন্দেহে পিটিয়ে হত্যা: ৫শ জনের বিরুদ্ধে মামলা পঞ্চগড়ে মাছ ধরতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে দুই ছেলেসহ বাবার মৃত্যু হজক্যাম্পের আশপাশের রেস্তোরাঁয় পচা খাবার, জরিমানা ২৬ লাখ জনগণকে নিয়ে গণঅভ্যুত্থান ঘটাতে হবে: ফখরুল ট্রাম্পের দাবি নাকচ, এই সেই ইরানি ড্রোন! জামালপুরে বন্যা পরিস্থিতি অপরিবর্তিত শ্বশুরকে হত্যা করে পলাতক জামাই ইনডোর এশিয়া কাপ হকিতে বাংলাদেশ সপ্তম আইনি লড়াইয়ে খালেদার মুক্তি নেই: গয়েশ্বর গণপিটুনির সঙ্গে জড়িতদের আইনের আওতায় আনা হবে কাদেরের মাথায় হাত বুলিয়ে রওশনের আশীর্বাদ ‘স্থানীয় হিন্দু-মুসলমানদের হয়রানি করছেন প্রিয়া সাহা’ দিল্লির ৩ বারের মুখ্যমন্ত্রী শীলা দীক্ষিত মারা গেছেন মিন্নিকে আইনি সহায়তা দিতে বরগুনায় আসকের ৪ আইনজীবী প্রিয়া সাহার অভিযোগ নিয়ে যা বলল জামায়াত সাংবাদিক পাইলেই গুলি করে মারব: ছাত্রলীগ নেতা ইঞ্জিনে পাখির বাসা, দেড়মাস বসে থাকলেন ট্রাকচালক উইন্ডিজ সফরে না গিয়ে সেনাবাহিনীতে সময় দেবেন ধোনি ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনি, প্রাণ গেলো ৩ জনের