artk
বুধবার, নভেম্বার ১৩, ২০১৯ ১২:০৪   |  ২৯,কার্তিক ১৪২৬
মঙ্গলবার, মে ১৪, ২০১৯ ১০:৫৪

রোজায় শরীরে যে পরিবর্তন ঘটে

স্বাস্থ্য ও পুষ্টি ডেস্ক
media
১৬ হতে ৩০ দিন: এই সময়ে আপনার শরীর পুরোপুরি রোজার সঙ্গে মানিয়ে নেবে। শরীরের পাচনতন্ত্র, লিভার, কিডনি এবং ত্বকে এক ধরনের পরিবর্তনের ভেতর দিয়ে যাবে।

চলছে রমজান মাস। সারা পৃথিবী জুড়ে বহু মুসলমানরা এই সময় রোজা রাখেন। টানা একমাস সূর্যোদয় থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত কিছু না খেয়ে থাকেন তারা। দীর্ঘ এক মাস রোজা থাকার ফলে শরীরেও বিশ কিছু পরিবর্তন আসে। রোজা রাখার সময় প্রথম কয়েক দিনই সবচেয়ে কষ্টের। শেষ বার খাবার খাওয়ার পর অন্তত আট ঘণ্টা পার না হওয়া পর্যন্ত কিন্তু শরীরে রোজার প্রভাব পড়ে না। আমরা যে খাবার খাই, পাকস্থলিতে তা পুরোপুরি হজম হতে এবং এর পুষ্টি শোষণ করতে অন্তত আট ঘণ্টা সময় নেয় শরীর। যখন এই খাদ্য পুরোপুরি হজম হয়ে যায়, তখন আমাদের শরীর যকৃৎ এবং মাংসপেশীতে সঞ্চিত গ্লুকোজ থেকে শক্তি শুষে নেয়ার চেষ্টা করে।

শরীর যখন এই চর্বি খরচ করতে শুরু করে, তা আমাদের ওজন কমাতে সাহায্য করে। এটি কোলেস্টেরলের মাত্রা কমায় এবং ডায়াবেটিসের ঝুঁকি কমায়। তবে যেহেতু রক্তে শর্করার মাত্রা কমে যায়, সেই কারণে হয়তো কিছুটা দুর্বল এবং ঝিমুনি আসতে পারে। এ সময়টাতেই সবচেয়ে বেশি ক্ষিদে পায়। প্রথম কয়েকদিনের পর আপনার শরীর যখন রোজায় অভ্যস্ত হয়ে উঠছে, তখন শরীরে চর্বি গলে গিয়ে তা রক্তের শর্করায় পরিণত হয়। কিন্তু রোজার সময় দিনের বেলায় যেহেতু আপনি কিছুই খেতে বা পান করতে পারছেন না, তাই রোজা ভাঙার পর অবশ্যই আপনাকে সেটার ঘাটতি পূরণের জন্য প্রচুর পানি খেতে হবে। ইফতারে যথেষ্ট শক্তিদায়ক খাবার, যেমন কার্বোহাইড্রেট বা শর্করা এবং চর্বি খেতে হবে।

৮ হতে ১৫ দিন: এই পর্যায়ে এসে আপনি অনুভব করতে পারবেন যে আপনার শরীর-মন ভাল লাগছে, কারণ রোজার সঙ্গে আপনার শরীর মানিয়ে নিতে শুরু করেছে। চিকিৎসরা বলছেন, সাধারণত দৈনন্দিন জীবনে আমরা অনেক বেশি ক্যালরিযুক্ত খাবার খাই এবং এর ফলে আমাদের শরীর অন্য অনেক কাজ ঠিকমত করতে পারে না। কিন্তু রোজার সময় না খেয়ে থাকার কারণে শরীর অন্যান্য কাজের দিকে মনোযোগ দিতে পারে।

১৬ হতে ৩০ দিন: এই সময়ে আপনার শরীর পুরোপুরি রোজার সঙ্গে মানিয়ে নেবে। শরীরের পাচনতন্ত্র, লিভার, কিডনি এবং ত্বকে এক ধরনের পরিবর্তনের ভেতর দিয়ে যাবে। সেখানে থেকে সব দূষিত পদার্থ বেরিয়ে শরীর যেন শুদ্ধ হয়ে উঠবে।

হুমায়ূন আহমেদের জন্মদিন ঘূর্ণিঝড়ে ৩ সহস্রাধিক মোবাইল টাওয়ার বন্ধ দাখিল পরীক্ষা দিচ্ছে হিন্দু সম্প্রদায়ের কিশোর ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ একজন নিহত ট্রেন দুর্ঘটনা: নিহত ১৬ জনের লাশ হস্তান্তর ভারতে পেঁয়াজের দাম না পেয়ে কৃষকের কান্না রেফারিকে এসপি হারুনের মারধরের ভিডিও ভাইরাল ‘ঘন কুয়াশার কারণে লালবাতি দেখতে পাননি চালক’ জাতীয় আয়কর মেলা শুরু বৃহস্পতিবার শিশুটির নাম নাইমা, সঙ্গে থাকা মা ও দাদীর সন্ধান মিলছে না খালেদা জিয়া নিজে হাতে খেতেও পারেন না: মির্জা ফখরুল আর দেখা যাবে না সোহার হাসিমুখ ছাত্রলীগ নেতা সুদীপ্ত হত্যা: আ.লীগ নেতা মাসুম কারাগারে গয়েশ্বর বাবু বিএনপি নামক বটগাছ থেকে কবে সরবেন: হাছান মাহমুদ অসুস্থ মায়ের পাশে থাকতে দেশে ফিরলেন মোসাদ্দেক ভুল প্রকাশের দায়ে ডিএসইর জুবায়ের বরখাস্ত সম্রাট ও এনামুলের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা ঢাকা উত্তর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলনে ভাঙচুর দেশে ফেরার কারণ জানালেন মোসাদ্দেক রেলকর্মীদের আরো দক্ষ করা উচিত: প্রধানমন্ত্রী চট্টগ্রামের সঙ্গে ঢাকা ও সিলেটের ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি হতে লাগবে স্নাতক মেক্সিকোতে আশ্রয় পেলেন ইভো মোরালেস বুলবুলে নিখোঁজ ৯ জেলের মরদেহ উদ্ধার ট্রেন দুর্ঘটনায় হতাহতের ঘটনায় প্রধানমন্ত্রীর শোক ১২ নভেম্বর: উপকূলবাসী আজো ভোলেনি ভয়াল সেই স্মৃতি পেঁয়াজের দাম বাড়ছেই জেএসসি-জেডিসির ৫ পরীক্ষার নতুন সময়সূচি সকালে ঘুম থেকে উঠে পানি পানে ৬ উপকার যুক্তরাজ্যে গাঁজার তৈরি দুটো ওষুধের অনুমোদন