artk
বুধবার, মে ২২, ২০১৯ ১২:০২   |  ৮,জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

তরিকুল ইসলাম মিঠু, যশোর প্রতিনিধি

বুধবার, এপ্রিল ১৭, ২০১৯ ৯:০৯

বেনাপোলে অগ্নি নির্বাপন ব্যবস্থা ছাড়াই গড়ে উঠছে শতশত মার্কেট ও বহুতল ভবন

media

দেশের প্রধান স্থলবন্দর বেনাপোলে অগ্নি নির্বাপন সংস্থার সক্রিয়তার যথেষ্ট অভাব রয়েছে। ফায়ার সার্ভিসের অনুমোদন ছাড়াই এখানে গড়ে উঠেছে বহুতল বাণিজ্যিক ভবনসহ বিলাসবহুল শপিংমল। বিলাসবহুল মার্কেটগুলোতে রঙচঙের কোনো কমতি না থাকলেও অগ্নি নির্বাপনের সুব্যবস্থার অভাব রয়েছে। ফলে যে কোনো সময়ে এসব বহুতল ভবন ও মার্কেটে আগুন লেগে বড় ধরনের ক্ষতি হতে পারে। 

মার্কেটগুলোর মধ্যে রয়েছে লাল মিয়া সুপার মার্কেট, হিরা সুপার মার্কেট, ডব্লু মাকের্ট, মিলন মার্কেট, বিশ্বাস মার্কেট, স্কুল মার্কেট, মাদ্রাসা মার্কেট, হাজী মার্কেটসহ অর্ধশতাধিক মার্কেট। 

এছাড়া বন্দরে সাত কিলোমিটার এলাকা জুড়ে রয়েছে চার শতাধিক বহুতল ভবন। যেগুলোর কোনোটিতেই নেই কোনো অগ্নি নির্বাপন ব্যবস্থা। এসব ভবনের মধ্যে রয়েছে বেনাপোল কাস্টমস হাউসের সামনে অহি-সহি ভবন, ওয়াজেদ সাহেবের বিল্ডিং আলোম হাজীর হিমালয় ভবন, গাজী ভবন, গফুর ম্যানসনসহ বন্দরের চার শতাধিক ভবনে কোনো অগ্নি নির্বাপন যন্ত্র নেই। ফলে এসব মার্কেট ও বাণিজ্যিক ভবনগুলোতে আগুন ধরলে জানমালের অপূরণীয় ক্ষতি হতে পারে।  

ফারুক সুপার মার্কেটের কাপড়ের ব্যবসায়ী সাইদুর রহমান, বাবুসহ কয়েকজন ব্যবসায়ী জানান, বেনাপোলের মার্কেট মালিকরা প্রতিমাসে ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে মোটা অংকের ভাড়া নিলেও ব্যবসায়ীদের কোনো সুযোগ-সুবিধা দেখে না। এখানে অগ্নি নির্বাপনের ব্যবস্থা নেই। বেনাপোল বাজার থেকে দুই কিলোমিটার দূরে একটি ফায়ার সার্ভিস স্টেশন আছে। কিন্তু মার্কেটেগুলোতে আগুন লাগলে ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি আসতে আসতে জানমাল পুড়ে সব শেষ হয়ে যাবে। 

লালমিয়া সুপার মার্কেটের কাপড়ের ব্যবসায়ী খোকন বলেন, “এখানকার ব্যবসায়ীদের কোনো ইউনিটি না থাকায় মার্কেট মালিকরা কোনো রকম মার্কেট করেই ভাড়া তুলে খাওয়া শুরু করে। ব্যবসায়ীরা এসব বিষয় নিয়ে কথা বললে মালিক কর্তৃপক্ষ কারো কথায় কর্ণপাত করে না। ব্যবসায়ীরা পুড়ে মরুক আর যাই হোক না কেন সে বিষয়ে কারো কোনো দৃষ্টি নেই।”

তাছাড়া দেশের প্রধান এ স্থলবন্দরে ভারত থেকে আমদানিকৃত বিপুল পরিমাণের মালামাল বন্দরের সরকারি গোডাউনের শেডে নিয়ে সংরক্ষণ করা হয়। বিশেষ করে রাসায়নিক দ্রব্য ও দাহ্য পদার্থ এসব শেডে রাখা হয়। বিগত বছরগুলোতে এসব রাসয়নিক দ্রব্য ও দাহ্য পদার্থে  আগুন ধরে বড় ধরনের ক্ষয়-ক্ষতি হয়। এখনও কর্তৃপক্ষের চরম উদাসীনতার কারণে এখনো বন্দর ব্যবহারকারী ব্যবসায়ী ও সাধারণ মানুষের মধ্যে আতঙ্ক কাটেনি। এমনকি বেনাপোল ফায়ার সার্ভিসের কার্যক্রমও মানুষের নজরে আসনি। 

বেনাপোল ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের কর্মকর্তা তৌহিদুর রহমানের কাছে বন্দরের হাইরাজিং ভবন ও বিপণি বিতানগুলোতে আগুন নির্বাপনের কোনো ব্যবস্থা আছে কিনা জানতে চাইলে তিনি নিউজবাংলাদেশকে বলেন, “বেনাপোল বন্দর দেশীয় প্রধান স্থলবন্দর হওয়ায় প্রতিনিয়ত এখানে নতুন নতুন এপার্টমেন্ট হাইরাইজিং বিল্ডিং ও বহুতল শপিং মল হচ্ছে। অথচ এখানে অগ্নি নির্বাপনের কোনো সুব্যবস্থা নেই। মার্কেটগুলোতে আগুন লাগলে ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি গিয়ে পানির উৎস খুঁজে বের করতে করতে সব কিছু পুড়ে ছাই হয়ে যায়। তাই এখানকার মার্কেট মালিক ও হাইরাইজিং বিল্ডিং মালিকদের  অগ্নি নির্বাপনের ব্যবস্থা করার জন্য পরামর্শ দেয়া হয়েছে। তাছাড়া নতুন করে যারা মার্কেট ও বহুতল ভবন তৈরি করছে তাদের বিল্ডিং কোড ও অগ্নি নির্বাপন ব্যবস্থা বাধ্যতামূলক করা হচ্ছে।”

রেলসেবা অ্যাপে মিলছে না একটি টিকিটও আর্জেন্টিনার চূড়ান্ত দল ঘোষণা অল্পের জন্য রক্ষা পেলো ৩ শতাধিক লঞ্চযাত্রী পিএসসিতে স্বাস্থ্য ক্যাডারে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ সিডনিতে বিএসসিএ’র ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত চিত্রশিল্পী ধোনি! ইতিকাফ ইবাদতকে ফলপ্রসূ করে তারায় তারায় মিলন সেপ্টেম্বর থেকে ফেইসবুক-ইউটিউব নিয়ন্ত্রণ করবে সরকার আট বছর বয়সেই ১০৬ ভাষায় পারদর্শী! ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু বুধবার মেহেরপুরে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১ পানিশূন্যতা কি রোজা ভঙ্গের কারণ হতে পারে? পুলিশের ডিম ভাঙার তদন্ত শেষ, ওসিকে প্রত্যাহার সন্তানকে হাসপাতালে রেখে উধাও ‘বাবা-মা’ গণমাধ্যম ও সুশীল সমাজ গণতন্ত্রের বিকাশে ভূমিকা রাখছে: স্পিকার রকেটের চেয়েও দ্রুত গতিতে জাল বুনে মাকড়সা! জামিনে কারামুক্ত হলেন বিএনপি নেতা রবি দেশজুড়ে বিড়ি ভোক্তাদের বিক্ষোভ, কর প্রত্যাহারের দাবি প্রভাবশালীদেরও আইনের মুখোমুখি হতে হচ্ছে: দুদক চেয়ারম্যান ভারতে নাগা জঙ্গিদের হাতে বিধায়কসহ নিহত ১১ যতদিন সিগারেট থাকবে ততদিন বিড়ি রাখার দাবি ভোক্তাদের বকেয়া মজুরি পরিশোধের শর্তে পাটকলশ্রমিকদের আন্দোলন স্থগিত রানার শেয়ারে দর বেড়েছে ৩৩ শতাংশ ৬৮ বছরের বৃদ্ধকে বিয়ে করছেন সেলেনা! ইভিএমে কারচুপি নিয়ে শঙ্কিত ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি বগুড়া উপনির্বাচন বর্জনের ঘোষণা বাম জোটের ছুটিতে ঘুরে বেড়াচ্ছেন সাকিব-মুশফিকরা আত্মহত্যা প্ররোচনার মামলায় ৫ জনের ১৩ বছর কারাদণ্ড পুঁজিবাজারে সূচকের পতন