artk
বৃহস্পতিবার, জুলাই ১৮, ২০১৯ ৫:৩২   |  ২,শ্রাবণ ১৪২৬
সোমবার, এপ্রিল ১৫, ২০১৯ ৫:২৩

নুসরাত হত্যা: আলোচিত সেই শম্পা গ্রেপ্তার

সিনিয়র রিপোর্টার
media

 ফেনীর সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদরাসার ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফি হত্যাচেষ্টার ঘটনায় আলোচিত সেই শম্পা ওরফে চম্পাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) ফেনী।

ফেনীর সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদরাসার ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফি হত্যাচেষ্টার ঘটনায় আলোচিত সেই শম্পা ওরফে চম্পাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) ফেনী।

সোমবার পিবিআইয়ের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মনিরুজ্জামান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, নুসরাত জাহান রাফি হত্যাচেষ্টার ঘটনায় আলোচিত সেই শম্পা ওরফে চম্পাকে ফেনী থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তবে কখন গ্রেপ্তার করা হয়েছে সে বিষয়ে তিনি কিছু বলেননি।

নুসরাত হত্যায় মোট ১৩ জনের সংশ্লিষ্টতা মিলেছে। এর মধ্যে এজাহারভুক্ত আট আসামির মধ্যে পরিকল্পনাকারী শাহাদাত হোসেন শামীম (২০), নূর উদ্দিন (২০), মুকছুদ আলম কাউন্সিলর (২০), জোবায়ের আহম্মেদ, জাবেদ হোসেন (১৯) ও আফছার উদ্দিনকে (৩৫) গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

গত ৪ এপ্রিল সিরাজের সঙ্গে দেখা করতে কারাগারে যান মাদরাসা শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি শাহাদাত হোসেন শামীম ও মাদরাসার সাবেক ছাত্র নূর উদ্দিনসহ চারজন। সেখানে সিরাজ তাদের ‘একটা কিছু করে’ নুসরাতকে শায়েস্তা করার নির্দেশ দেন। নির্দেশনা অনুযায়ী শাহাদাত হোসেন শামীম নুসরাতকে কেরোসিন ঢেলে আগুনে পুড়িয়ে হত্যার পরিকল্পনা করেন।

পরিকল্পনা অনুযায়ী গত ৬ এপ্রিল (শনিবার) সকালে রাফি আলিম পরীক্ষা দিতে সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদরাসায় গেলে সেখানেই ভবনের ছাদে নিয়ে কেরোসিন ঢেলে তাকে আগুনে পোড়ানো হয়।

পরিকল্পনার অংশ হিসেবে দুই ছাত্রীর মাধ্যমে তিনটি বোরকা আনা হয়। আনা হয় কেরোসিন তেল। ৬ এপ্রিল বান্ধবী নিশাতকে ছাদের ওপর কেউ মারধর করছে বলে শম্পা ওরফে চম্পা নামে এক ছাত্রীর দেয়া সংবাদে ভবনের চারতলায় যান নুসরাত। সেখানে আগে থেকে লুকিয়ে ছিল শাহাদাতসহ চারজন। তারা নুসরাতকে অধ্যক্ষ সিরাজ উদ দৌলার বিরুদ্ধে মামলা ও অভিযোগ তুলে নিতে চাপ দেয়। কিন্তু নুসরাত অস্বীকৃতি জানালে ওড়না দিয়ে বেঁধে গায়ে আগুন দিয়ে তারা নির্বিঘ্নে বেরিয়ে যায়।

সকাল ৯টার পর ওদের ক্লাস পরীক্ষা শুরু হয়। এরই ফাঁকে ভবনের ছাদে চারজন অবস্থান নেয়। পরিকল্পনায় অংশ নেয়া শম্পা ওরফে চম্পা নামে ছাত্রী এক ছাত্রী নুসরাতকে জানায়, ভবনের চারতলায় যান নিশাতকে মারধর করা হচ্ছে। ওই খবরে নুসরাত ছাদে গেলে তাকে আটকে দেয়া হয়। প্রথমে ওড়না দিয়ে বেঁধে এরপর কেরোসিন ঢেলে আগুন দেয়া হয়।

বাইরে নূর উদ্দিনের নেতৃত্বে হাফেজ আব্দুল কাদেরসহ পাঁচজন পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ, গেট পাহারা ও স্বাভাবিক রাখার কাজ করে। আগুন দেয়ার পর সরাসরি অংশ নেয়ারা বোরকা পরে বের হয়ে যায়।

নুসরাতকে এর আগেও চুন মারার কারণে পাহাড়তলির হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছিল। যে কারণে হত্যাকারীরা মনে করেছিল নুসরাতকে মারাটা কঠিন কোনো বিষয় নয়।

ঘটনার পরই পিবিআই ছায়া তদন্ত শুরু করে। তদন্তের দায়িত্ব পাওয়ার পর পিবিআইয়ের ছয়টি ইউনিট তদন্তে অংশ নেয়। ঘটনায় এখন পর্যন্ত ১৩ জনের সংশ্লিষ্টতার প্রমাণ মিলেছে। তদন্তে জড়িতের সংখ্যা বাড়তে পারে।

‘রাষ্ট্রপতির কাছে ক্ষমা চাইলে খালেদা জিয়ার মুক্তি হতে পারে’ এইচএসসিতে ফেল করে ট্রেনের নিচে ঝাঁপ বৈদেশিক বাণিজ্য আধুনিকায়নে এনবিআরের কর্মপরিকল্পনা উপস্থাপন কিশোর গ্যাং নিয়ন্ত্রণে মাঠে নামছে র‌্যাব আদালতে মিন্নির পক্ষে কোনো আইনজীবী দাঁড়াননি কেন? মা পেলেন জিপিএ ৪, মেয়ে ৫ চাঁদের সাতটি মজার তথ্য জেনে নিন দীর্ঘমেয়াদে বাংলাদেশ দলের কোচ হতে চান সুজন সিবিএর সভাপতি ও সম্পাদকের বিরুদ্ধে মামলা বিশ্বকাপ ব্যর্থতায় নতুন কোচ খুঁজছে এশিয়ার দেশগুলো হিন্দু ছাত্রীকে কোরআন বিলি করার নির্দেশ দিলেন ভারতের আদালত রেললাইনের পাশের অবৈধ স্থাপনাও উচ্ছেদ করা হবে পাকিস্তানে জামাত-উদ-দাওয়ার প্রধান হাফিজ সাঈদ গ্রেপ্তার শেরেবাংলা নগর বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রবেশ মুখে চরম দুর্ভোগ! এইচএসসিও পাস করলেন সেই মা আমিরাতের তেল ট্যাংকার গায়েব করেছে ইরান! ব্যাংক ঋণে করপোরেট গ্যারান্টিতে সতর্কতার তাগিদ পুরান ঢাকায় শতবর্ষী ভবন ধস সেটেলমেন্ট অফিসের দুই কর্মকর্তা গ্রেপ্তার সরকারি জমি উদ্ধারে ডিসিদের দেয়া হবে পুরস্কার ইউরোমানি অ্যাওয়ার্ডস পেলেন আইডিএলসি ইনভেস্টমেন্ট ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি নিয়ে আমেরিকার সঙ্গে কখনোই আলোচনা হবে না: ইরান প্রধান নির্বাচকের পদ থেকে সরে দাঁড়াচ্ছেন ইনজামাম ডক্টরেট ডিগ্রি অর্জনের পথে মুশফিকুর রহিম দলে অনেক অতিথি পাখি ঢুকেছে: তথ্যমন্ত্রী শ্রীলঙ্কায় সব ম্যাচ জিততে চায় বাংলাদেশ ‘পুঁজিবাজার ধসের জবাব চাই’ স্লোগানে মতিঝিলে বিক্ষোভ শ্রীলঙ্কা সফরে টাইগারদের ব্যাটিং কোচ ভারতের ওয়াসিম জাফর বিশ্বকাপ বাছাইয়ে ‘ই’ গ্রুপে বাংলাদেশ নারী-শিশু নির্যাতনের ঘটনা আগেও ঘটেছে: প্রতিমন্ত্রী ইন্দিরা