artk
বুধবার, জুন ১৯, ২০১৯ ১২:০৩   |  ৫,আষাঢ় ১৪২৬
শুক্রবার, এপ্রিল ১২, ২০১৯ ৫:৫০

চাঁদে নামার আগেই বিধ্বস্ত ইসরায়েলি মহাকাশযান

বিদেশ ডেস্ক
media

ব্যক্তিগত অর্থায়নে পরিচালিত বিশ্বের প্রথম চন্দ্রাভিযানে ইসরায়েলি একটি মহাকাশযান চাঁদের বুকে আছড়ে পড়ে বিধ্বস্ত হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

ব্যক্তিগত অর্থায়নে পরিচালিত বিশ্বের প্রথম চন্দ্রাভিযানে ইসরায়েলি একটি মহাকাশযান চাঁদের বুকে আছড়ে পড়ে বিধ্বস্ত হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

মূল ইঞ্জিন অকার্যকর হয়ে পড়ার কারণেই অবতরণের আগ মুহূর্তে মহাকাশযানটি বিধ্বস্ত হয়। সংবাদ: বিবিসি।

সংশ্লিষ্টদের বরাত বিবিসি বলছে, বেরেশিট নামের ইসরায়েলি ওই যানটি চাঁদে স্বাভাবিকভাবেই নামার চেষ্টা করেছিল; কিন্তু অবতরণের সময় কারিগরি সমস্যা দেখা দেয়।

ব্যক্তিগত অর্থায়নে পরিচালিত ইসরায়েলের অলাভজনক সংস্থা স্পেসইল ও ইসরায়েল সরকারের অ্যারোস্পেস ইন্ডাস্ট্রিজ যৌথভাবে চাঁদের ছবি তোলা এবং সেখানে কিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালানোর লক্ষ্যে এ মহাকাশযানটি পাঠিয়েছিল। 

বেরেশিট সফল হলে ইসরায়েল চাঁদে নামা চতুর্থ দেশের স্বীকৃতি পেত।

এর আগে সোভিয়েত ইউনিয়ন, যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের সরকার পরিচালিত মহাকাশ গবেষণা সংস্থার যানই কেবল চন্দ্রপৃষ্ঠ সফলভাবে নামতে পেরেছে।

ইসরায়েলি প্রকল্পের অন্যতম উদ্যেক্তা ও পৃষ্ঠপোষক মরিস কান বলেন, “আমরা পারিনি, কিন্তু চেষ্টা করেছিলাম। অবশ্য যতটা পেয়েছি তাও অসাধারণ, আমার ধারণা- আমরা গর্ব করতে পারি।”

তেল আবিবের কাছে নিয়ন্ত্রণ কক্ষ থেকে বেরেশিটের চাঁদে অবতরণ দেখছিলেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। বেরেশিটের ব্যর্থতার পর তিনি ফের চাঁদে মহাকাশযান পাঠানোর ইঙ্গিত দিয়েছেন।

অভিযানের সঙ্গে সংশ্লিষ্টদের হতোদ্যম না হওয়ার পরামর্শ দিয়ে তিনি বলেন, “প্রথমে যদি আপনারা সফল নাও হন, ফের চেষ্টা করুন।”

পৃথিবী থেকে রওনা দেয়ার ৭ সপ্তাহ পর মনুষ্যবিহীন ওই যানটির চাঁদে অবতরণের চূড়ান্ত ক্ষণ দেখতে নিয়ন্ত্রণ কক্ষের বাইরেও অনেকে জড়ো হয়েছিলেন। ইতিহাসের সাক্ষী হতে এসে হতাশ হয়ে ফিরতে হয়েছে তাদের।

ইসরায়েলের অ্যারোস্পেস ইন্ডাস্ট্রিজের মহাব্যবস্থাপক অফের ডোরন। বলেন, “আমরা দুর্ভাগ্যজনকভাবে সফলভাবে অবতরণ করতে পারিনি।”

এ অভিযানে মাত্র ১০ কোটি ডলার খরচ হয়েছে; ভবিষ্যতে চাঁদে কম খরচে মহাকাশ অভিযানের ক্ষেত্রে এটি পথ দেখাতে পারে বলে মনে করছেন অনেকে।

বিকল্প পথে ঢাকা থেকে সিলেট, দীর্ঘ যানজট আকাশের তৈরি সেই পরিবেশবান্ধব গাড়ি চালালেন ডিসি ‘পাসওয়ার্ড’ ছবির বিরুদ্ধে সেন্সর বোর্ডে অভিযোগ রেস্টুরেন্টে আফগান ক্রিকেটারদের ঝগড়াঝাঁটি প্রেমের টানে জার্মান নারী স্বামী-সংসার ফেলে খুলনায় যশোরে গণপিটুনিতে সন্ত্রাসী নিহত উবার চালককে পেটানোর ভিডিও করায় নিগৃহীত মিস ইন্ডিয়া বর্ষা ঋতুতে ব্যাঙ দাঁতে পেনসিল রেখে, বুড়ো আঙুলে ফুঁ দিয়েও সমস্যায় মুক্তি সৌদির প্রথম নারী পাইলট ইয়াসমিন মেসিদের দেখে ক্রুদ্ধ ম্যারাডোনা বগুড়ায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ গুলিবিদ্ধ ৮ মামলার আসামির মৃত্যু মিষ্টি কুমড়ায় যেসব ফাস্টফুড খাবার তৈরি করা যায় গোল করেও গোলশূন্য ড্র ব্রাজিলের হেসেখেলেই আফগানদের হারালো ইংল্যান্ড বিষাক্ত পোল্ট্রি-ফিস ফিড: ৬ কারখানা সিলগালা, ১০ জনের কারাদণ্ড ডোমিনিকান রিপাবলিক: মার্কিন পর্যটকদের মৃত্যুকূপ ঢাকাগামী সুন্দরবন-১০ লঞ্চে আগুন জাপানে শক্তিশালী ভূমিকম্প, সুনামি সতর্কতা জারি গাজীপুরে আ.লীগ প্রার্থী জয়ী, বিএনপি নেতার ভোট বর্জন ভাগনে অপহরণ: ফেসবুক লাইভে যা বললেন সোহেল তাজ আব্বাস: বদলে যাওয়া এক নিরব সব বিমানবন্দরে ডগ স্কোয়াড গঠনের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর রূপপুর প্রকল্পের বালিশ-কাণ্ডে সংসদীয় কমিটির অসন্তোষ মিশরের প্রথম বৈধ প্রেসিডেন্ট মুরসির উত্থান যেভাবে দুষ্টু লোকজন সামান্য গণ্ডগোলের চেষ্টা করেছে: ইসি সচিব তুরস্কে মুরসির গায়েবানা জানাজায় জনতার ঢল দেশব্যাপী বিড়ি শ্রমিকদের বিক্ষোভ, মানববন্ধন ৩৬ বছরের লজ্জার রেকর্ড এখন রশিদের মোবাইলে লেনদেনে নতুন করে চার্জের সুযোগ নেই: বিটিআরসি