artk
বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ২৫, ২০১৯ ২:৪৩   |  ১২,বৈশাখ ১৪২৬

স্টাফ রিপোর্টার

বুধবার, এপ্রিল ১০, ২০১৯ ৯:৫৩

কার্যতালিকার শীর্ষে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আজহার ও কায়সারের আপিল

media

একাত্তরের মহান মুক্তিযুদ্ধকালে সংঘটিত মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেল এটিএম আজহারুল ইসলাম এবং সাবেক কৃষি প্রতিমন্ত্রী সৈয়দ মোহাম্মদ কায়সারের আপিল আবেদন বুধবারের কার্যতালিকায় এসেছে। 

পর্যায়ক্রমে এক ও দুই নম্বরে থাকা মামলা দুটি এদিন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে চার সদস্যের আপিল বেঞ্চে আদেশের জন্য রয়েছে।

মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্টের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত বুধবারের আপিল বিভাগের কার্যতালিকায় (কজলিস্টে) দেখা যায়, প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন আপিল বেঞ্চের এক নম্বরে আজহারের আপিলটি আদেশের জন্য রয়েছে। ২ নম্বরে রয়েছে জাতীয় পার্টির (জাপা) সাবেক নেতা সৈয়দ কায়সারের আপিল।

২০১৪ সালের ৩০ ডিসেম্বর আজহারকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ডের রায় দেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে রংপুর অঞ্চলে এক হাজার ২৫৬ জনকে হত্যা-গণহত্যা, ১৭ জনকে অপহরণ, এক নারীকে ধর্ষণ, ১৩ জনকে আটক, নির্যাতন ও গুরুতর জখম এবং শত শত বাড়ি-ঘরে লুণ্ঠন ও অগ্নিসংযোগের মতো নয়৯ ধরনের ছয়টি মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ আনা হয় তার বিরুদ্ধে।

এসব অভিযোগের মধ্যে ১ নম্বর বাদে বাকি পাঁচটি অভিযোগই প্রমাণিত হয়েছে ট্রাইব্যুনালের রায়ে। সুপিরিয়র রেসপনসিবিলিটির (ঊর্ধ্বতন নেতৃত্বের দায়) অভিযোগ ছাড়াও তিনি যে আলবদর কমান্ডার ছিলেন তাও প্রমাণিত হয়েছে।

ট্রাইব্যুনালের দেয়া মৃত্যুদণ্ডের রায়ের বিরুদ্ধে ২০১৫ সালের ২৮ জানুয়ারি আপিল করেন আজহারুল ইসলাম। সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের সংশ্লিষ্ট শাখায় তার আইনজীবীরা এ আপিল করেন। আপিলে খালাস চান তিনি। মোট ৯০ পৃষ্ঠার আপিলে খালাসের পক্ষে ১১৩টি যুক্তি তুলে ধরা হয়।

মুক্তিযুদ্ধকালে নিজের নামে ‘কায়সার বাহিনী’ গঠন করে যুদ্ধাপরাধ সংঘটিত করেন হবিগঞ্জ মহকুমার রাজাকার কমান্ডার ও শান্তি কমিটির সদস্য সৈয়দ মোহাম্মদ কায়সার। ২০১৪ সালের ২৩ ডিসেম্বর তাকে সর্বোচ্চ সাজাসহ ২২ বছরের কারাদণ্ড দেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২। তার বিরুদ্ধে একাত্তরে ১৫২ জনকে হত্যা-গণহত্যা, ২ নারীকে ধর্ষণ, ৫ জনকে আটক, অপহরণ, নির্যাতন ও মুক্তিপণ আদায় এবং দুই শতাধিক বাড়ি-ঘরে অগ্নিসংযোগ, লুণ্ঠন এবং ষড়যন্ত্রের ১৬টি মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ আনা হয়। এসব অভিযোগের মধ্যে ১৪টিই প্রমাণিত হয়েছে।

যুদ্ধাপরাধীদের মধ্যে প্রথমবারের মতো অন্য অপরাধের পাশাপাশি ধর্ষণের দায়ে ফাঁসির আদেশ পান কায়সার। সাঁওতাল নারী হীরামনি ও অপর নারী মাজেদাকে ধর্ষণের অপরাধ দুটি প্রমাণিত হয়। পরের বছর ১৯ জানুয়ারি নিজেকে নির্দোষ দাবি করে ফাঁসির সাজা বাতিল ও বেকসুর খালাসের আরজি জানিয়ে আপিল করেন তিনি।

সিদ্ধান্ত অমান্য করে শপথগ্রহণকারীরা জাতীয়তাবাদী শক্তির দুশমন: গয়েশ্বর পরীক্ষা কেন্দ্রে যৌন হয়রানির অভিযোগে শিক্ষক গ্রেপ্তার শ্রীলঙ্কার নেগোম্বো থেকে মুসলিমরা পালাচ্ছে ১৭ প্রতিষ্ঠানের বোর্ড সভার তারিখ ঘোষণা ১৯ প্রতিষ্ঠানের বোর্ড সভা বিকেলে জুমার খুতবায় জঙ্গিবাদ নিয়ে কথা বলার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর শপথ নিলেন বিএনপির জাহিদুর কেঁপে উঠলো মঙ্গল, শোনা গেল গোঙানি বনলতা এক্সপ্রেস উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী ঘরে ঢুকে ৪ ঘুমন্ত শ্রমিকের প্রাণ কাড়লো ট্রাক টিউবওয়েল থেকে পানি নেয়ায় নারীকে রাস্তায় পেটালেন মাদ্রাসার পরিচালক স্কুলছাত্রীকে অচেতন করে অপহরণকালে যুবক আটক শ্রীলংকায় হামলা: এক হামলাকারীকে ঠেকিয়েছেন যিনি চুকুরের গুণ ১৩৭তম খুলনা দিবস ‘অনেকের সঙ্গেই পরকীয়ায় আসক্ত আমার স্বামী’ মোবাইল চুরি: সাংবাদিকদের আটকে রাখলেন শমী কায়সার অস্বাভাবিক কিছু দেখলেই আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে জানাবেন: প্রধানমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীর ফুফু হামিদা খানমের ইন্তেকাল বাসা-বাড়িতে নতুন গ্যাস সংযোগ আর নয়: প্রতিমন্ত্রী ১০ জন নারীর মধ্যে সাতজনই পরকীয়ায় লিপ্ত শরবত খাওয়াতে আসা মিজানুরের ‘মানসিক সমস্যা’: ওয়াসার এমডি ডায়াবেটিস নিরাময় করতে জার্মানিতে অভিনব উদ্যোগ গেম অফ থ্রোনসের শুটিং হলো যে জাদুময় জায়গায় চাপমুক্ত থাকবে ইউনাইটেড ফাইন্যান্সের শেয়ার হোল্ডাররা শ্রীলঙ্কার পুলিশ প্রধান ও স্বরাষ্ট্র সচিবকে পদত্যাগের নির্দেশ ‘ধর্ষণ মহামারি আকার ধারণ করেছে, আইন শৃঙ্খলার অবনতি হয়েছে’ মানুষের দাড়ি কি কুকুরের পশমের চেয়েও বিপজ্জনক? ৩০ এপ্রিল শাহাবাগে ঐক্যফ্রন্টের গণজমায়েত ভোটের মেশিন থেকে বের হলো সাপ