artk
মঙ্গলবার, জুলাই ১৬, ২০১৯ ১২:৫৫   |  ৩১,আষাঢ় ১৪২৬

স্টাফ রিপোর্টার

মঙ্গলবার, মার্চ ২৬, ২০১৯ ৮:৫২

পুলিশ ডেকে খালি করতে হলো সোহরাওয়ার্দী উদ্যান

media

মাগরিবের নামাজের আজান হয়েছে অনেকক্ষণ আগে। সূর্য ডুবে চারিদিকে অন্ধকার নেমে এসেছে। এ দিক সে দিক থেকে ক্রমাগত বেজে চলেছে নিরাপত্তা প্রহরীর হুইসেল। কিন্তু হাজারো মানুষ কখনো উদ্যানের ভেতর। শেষমেষ পুলিশের গাড়ি এসে সাইরেন বাজিয়ে মানুষকে উদ্যান থেকে বের হতে বাধ্য করলো।

মাগরিবের নামাজের আজান হয়েছে অনেকক্ষণ আগে। সূর্য ডুবে চারিদিকে অন্ধকার নেমে এসেছে। এ দিক সে দিক থেকে ক্রমাগত বেজে চলেছে নিরাপত্তা প্রহরীর হুইসেল। কিন্তু হাজারো মানুষ কখনো উদ্যানের ভেতর। শেষমেষ পুলিশের গাড়ি এসে সাইরেন বাজিয়ে মানুষকে উদ্যান থেকে বের হতে বাধ্য করলো।

এমনই এক দৃশ্যপটের সৃষ্টি হয় মঙ্গলবার রাজধানীর ঐতিহাসিক শহীদ সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে। মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে সারাদিন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ও শহীদ সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে তেমন ভিড় না থাকলেও শেষ বিকেলে হাজারো মানুষের পদচারণায় উদ্যান ভরে যায়।

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকার মানুষ পরিবার- পরিজন নিয়ে সোহরাওয়ার্দী উদ্যোন ঘুরতে আসেন। দিনভর গরম থাকলেও বিকেল ৪টার পর থেকে মৃদু বাতাস বইতে থাকে। এ সময় উদ্যানের ভেতর আগতরা আয়েশ করে বসে, কেউ আড্ডা মারে, কেউ লেকের পাড়ে ছবি তোলায় ব্যস্ত হয়ে পড়ে। মানুষের ভিড়ের মধ্যেও একদল যুবক ক্রিকেট খেলায় মত্ত থাকে। হাজারো মানুষ উপস্থিত হওয়ায় হকারদের ও যেন পোয়াবারো। কেউ বাদাম-আইসক্রিম, কেউ পাপড়, গাজর, শসা আবার কেউ বা কোমল পানীয় নিয়ে এদিক সেদিক ঘুরে বেরিয়ে বিক্রি করতে থাকে।

রাজধানীর ধোলাইপাড় থেকে এসেছেন বেসরকারি একটি প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজার হাসানুজ্জামান। তিনি তার পাঁচ বছর বয়সী ছেলের দিকে বার বার ছোট্ট একটি বাতাসে ফোলানো বল ছুঁড়ে মার ছিলেন। ছেলেটিও খুব আনন্দের সঙ্গে দৌড়ে গিয়ে বলটি কুড়িয়ে আনছিল।

হাসানুজ্জামান বলেন, সপ্তাহের ছয়দিন চাকরির কাজে এতটাই ব্যস্ত থাকতে হয় যে, যে দিন ছুটি থাকে সেদিন আর ছেলেকে নিয়ে বাইরে বের হতে ইচ্ছা হয় না। তাই এ ধরনের ছুটির দিনে তিনি সপরিবারে বের হন। আজ সকালে বের হতে চেয়েছিলাম কিন্তু গরমের কারণে দুপুরের পর বের হন। সোহরওয়ার্দী উদ্যানে এসে প্রাণভরে নিঃশ্বাস ও ছেলেটির সঙ্গে কিছুক্ষণ খেলাধুলা করতে পেরে তার খুব ভালো লাগছে বলে জানান।

রাজধানীর মিরপুর থেকে দুই মেয়েকে নিয়ে বেড়াতে এসেছেন গৃহবধূ সালমা বেগম। শেষ বিকেলে কিছুটা ঝড়ো হওয়া শুরু হলে তিনি বাড়ি ফিরে যাওয়ার জন্য বারবার মেয়েদের তাগাদা দিচ্ছিলেন। কিন্তু মেয়েরা আরও কিছুটা সময় এখানে কাটিয়ে যাওয়ার বায়না ধরে। তাদের মা নাছোড়বান্দা সন্ধ্যার আগেই বাসায় ফিরতে হবে বলে প্রায় টেনে তুলে নিয়ে বাসার দিকে রওনা হন।

সন্ধ্যার কিছুক্ষণ পর শত শত নারী-পুরুষ শিশু থাকলেও পুলিশ এসে সাইরেন বাজানোর মিনিট দশেকের মধ্যে গোটা এলাকা জনশূন্য হয়ে পড়ে।

ঈদুল আজহা উপলক্ষে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট ২৯ জুলাই বিএনপি ডিজিটাল বাংলাদেশ বোঝে না, ডিজিটাল চুরি বোঝে: তথ্যমন্ত্রী বিদিশাও বললেন, তাই যেন হয় কুড়িগ্রামে পানিতে ডুবে ৫ শিশুর মৃত্যু টমেটো ছাড়াই তৈরি হচ্ছে টমেটো সস, জরিমানা ২০ লাখ মাদ্রাসার ভেতরেই মন্দির! সেই ছয় রান নিয়ে বিতর্ক চলছেই হজ ব্যবস্থাপনার কাজে সৌদি যাচ্ছেন সিইসি চড়া দামের ইলেকট্রিক বাইক আনছে হার্লে ডেভিডসন পাটকলের সাড়ে ৭ কোটি টাকা আত্মসাত: ৩ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট সামনে কঠোর কর্মসূচির হুঁশিয়ারি সিরাজগঞ্জে ট্রেনের ধাক্কায় বর-কনেসহ নিহত ৮ আইসিসির বিশ্বকাপ একাদশে সাকিব আল হাসান রামপুরায় ভারতীয় জাল রুপি তৈরির কারখানার সন্ধান শ্রীলংকা সফরে টাইগারদের প্রধান কোচ সুজন-আকরাম আফগানদের বিপক্ষে দ্বিতীয় ম্যাচেও জিততে পারেনি বাংলাদেশ মেয়াদোত্তীর্ণ লবণ বিক্রির দায়ে ৩ দোকানিকে জরিমানা কন্যার প্রথম ছবি শেয়ার করলেন সামিরা রেড্ডি আইসিসির এ নিয়ম মানি না: যুবরাজ তরুণদের মধ্যে যারা বিশ্বকাপ মাতিয়েছেন নিউজিল্যান্ডে এখন সবচেয়ে ‘ঘৃণিত’ স্টোকসের বাবা! নাটকীয় ফাইনালের আলোচিত যত ঘটনা নিয়মের ঘেরাটোপে এমন হার হজম করা কঠিন: উইলিয়ামসন ছোটদের ক্রিকেট খেলতে মানা করলেন জিমি নিশাম! রংপুরে এরশাদের কবর খোঁড়া হচ্ছে সাভারে ময়লার ভাগাড়ে নারীর ৬ টুকরো লাশ! দেব-রাধিকার গোপন ভিডিও ফাঁস! সুইডেনের উত্তরাঞ্চলে বিমান বিধ্বস্ত হয়ে নিহত ৯ ‘সত্যিকারের অনলাইন মিডিয়ার নিবন্ধন শিগগিরই’ কুমিল্লায় আদালত কক্ষে আসামির হাতে আসামি খুন