artk
বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ২৫, ২০১৯ ৮:৫৭   |  ১২,বৈশাখ ১৪২৬
মঙ্গলবার, মার্চ ২৬, ২০১৯ ২:৩৯

ষোলো আনা মুক্তির জন্য আন্দোলন অব্যাহত রাখতে হবে: ড. কামাল

নিউজ ডেস্ক
media
আজ স্মৃতিসৌধে কামাল হোসেনের সঙ্গে গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসীন মন্টু, নির্বাহী সভাপতি সুব্রত চৌধুরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন বলেছেন, “স্বাধীনতার ৪৮ বছর পরও দেশের মানুষকে ভোটাধিকারের জন্য লড়াই করতে হচ্ছে। আমরা আন্দোলনের মধ্যেই আছি। তবে ষোলো আনা মুক্তি পাওয়ার জন্য আন্দোলন অব্যাহত রাখতে হবে। এবার ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের মাধ্যমে আদায় করা হবে নিজেদের অধিকার।”

মঙ্গলবার জাতীয় স্মৃতিসৌধে মহান স্বাধীনতাযুদ্ধে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানানো শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন।

ড. কামাল বলেন, ‘এ দেশের মানুষের কথা বলার অধিকার নেই, গণতান্ত্রিক অধিকার নেই। ৩০ ডিসেম্বর একটি ভুয়া ভোটের মাধ্যমে অবৈধ সরকার গঠিত হয়েছে। স্বাধীনতার ৪৮ বছর পর আমরা এমনটি আশা করিনি।’

সংবিধান প্রণেতা ড. কামাল বলেন, ‘‘গণতন্ত্রের জন্য দেশ স্বাধীন হয়েছে। অথচ সেই গণতন্ত্রই এ দেশে অনুপস্থিত। এমন অবস্থা চলতে দেয়া যাবে না। ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের মাধ্যমে মানুষের ভোটের অধিকার প্রতিষ্ঠা করা হবে। দেশের মালিকানা জনগণের হাতে তুলে দেয়া হবে।’’

গণফোরাম সভাপতি আরও বলেন, ‘‘সংবিধানে স্বাধীনতার লক্ষ্য সম্পর্কে বলা বলা আছে, জনগণ সব ক্ষমতার মালিক। এ মালিকানা থেকে যদি কেউ তাদের বঞ্চিত করে, তবে তারা সংবিধানবিরোধী কাজ করছে, স্বাধীনতাবিরোধী কাজ করছে। কেউ যেন তাদের অধিকার থেকে বঞ্চিত না হয়, সে জন্য আমাদের ঐক্যবদ্ধভাবে লড়াই করতে হবে।’’

কামাল হোসেন বলেন,‘‘ বঙ্গবন্ধু সব সময় বলতেন, ঐক্য ধরে রাখতে হবে। তার অসাধারণ নেতৃত্বেই জাতি একতা ধরে রাখতে পেরেছিল।’’

দেশে বাকশালের শাসনব্যবস্থা কায়েম হতে চলেছে কি না—এমন প্রশ্নের জবাবে কামাল হোসেন বলেন, ‘‘আমরা তো বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে সংবিধানে বহুদলীয় গণতন্ত্রের কথা লিখেছিলাম। বঙ্গবন্ধু বেঁচে থাকাকালে আমরা বহুদলীয় গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করতে পেরেছিলাম। এখন যেন একনায়কতন্ত্র না আসে, সেটাই ঐক্যবদ্ধভাবে সবাইকে নিশ্চিত করতে হবে।’’

গণফোরাম সভাপতি আরও বলেন, ‘‘জনগণের ঐক্য হলো সব শক্তির মূলে। সেই শক্তি থেকে যারা আমাদের বঞ্চিত করতে চায়, তারা জনগণের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি করতে চায়। ষোলো আনা মুক্তি পেতে গেলে আমাদের ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন করতে হবে।’’

আজ স্মৃতিসৌধে কামাল হোসেনের সঙ্গে গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসীন মন্টু, নির্বাহী সভাপতি সুব্রত চৌধুরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

১৩৭তম খুলনা দিবস ‘অনেকের সঙ্গেই পরকীয়ায় আসক্ত আমার স্বামী’ মোবাইল চুরি: সাংবাদিকদের আটকে রাখলেন শমী কায়সার অস্বাভাবিক কিছু দেখলেই আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে জানাবেন: প্রধানমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীর ফুফু হামিদা খানমের ইন্তেকাল বাসা-বাড়িতে নতুন গ্যাস সংযোগ আর নয়: প্রতিমন্ত্রী ১০ জন নারীর মধ্যে সাতজনই পরকীয়ায় লিপ্ত শরবত খাওয়াতে আসা মিজানুরের ‘মানসিক সমস্যা’: ওয়াসার এমডি ডায়াবেটিস নিরাময় করতে জার্মানিতে অভিনব উদ্যোগ গেম অফ থ্রোনসের শুটিং হলো যে জাদুময় জায়গায় চাপমুক্ত থাকবে ইউনাইটেড ফাইন্যান্সের শেয়ার হোল্ডাররা শ্রীলঙ্কার পুলিশ প্রধান ও স্বরাষ্ট্র সচিবকে পদত্যাগের নির্দেশ ‘ধর্ষণ মহামারি আকার ধারণ করেছে, আইন শৃঙ্খলার অবনতি হয়েছে’ মানুষের দাড়ি কি কুকুরের পশমের চেয়েও বিপজ্জনক? ৩০ এপ্রিল শাহাবাগে ঐক্যফ্রন্টের গণজমায়েত ভোটের মেশিন থেকে বের হলো সাপ শেখ হাসিনা আমাকে প্রতিবছর মিষ্টি পাঠান: মোদি বন্ড পণ্য অবৈধভাবে বিক্রি করছে অলিম্পিক এক্সেসরিজ সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানে ইভিএম ব্যবহারের বিকল্প নেই: সিইসি শেষবার জায়ানকে দেখতে শেখ সেলিমের বাসায় প্রধানমন্ত্রী সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের কেডস ও কিপিং গ্লাভস দিলেন তামিম প্রক্টরের আশ্বাসে নীলক্ষেত ছাড়লেন সরকারি সাত কলেজের শিক্ষার্থীরা দ্বৈত কর পরিহার চুক্তিতে সম্মত বাংলাদেশ-মালদ্বীপ রণদা প্রসাদ হত্যায় অভিযুক্ত টাঙ্গাইলের মাহবুবুরের রায় যে কোনো দিন ব্যবস্থাপত্র ছাড়া অ্যান্টিবায়োটিক বিক্রি বন্ধে নির্দেশনা চেয়ে রিট হাতিকে চাঁদা না দেয়ায় শূন্যে তুলে আছাড়, ইজিবাইকচালক মরণাপন্ন! পাবনায় তিন পুলিশ হত্যার দায়ে ৮ চরমপন্থীর যাবজ্জীবন অভিনেতা সালেহ আহমেদ আর নেই বিশ্বকাপ দল নিয়ে সমালোচনা বন্ধের আহ্বান তামিমের ৩শ রান চেজ করে জেতার জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে: তামিম