artk
বৃহস্পতিবার, জুলাই ১৮, ২০১৯ ১০:০৯   |  ৩,শ্রাবণ ১৪২৬

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

বৃহস্পতিবার, মার্চ ২১, ২০১৯ ৯:৫০
হোটেলে গোপন ক্যামেরা

দক্ষিণ কোরিয়ায় হোটেলে পর্নোগ্রাফির শিকার ১৬শ মানুষ

media

দক্ষিণ কোরিয়ায় হোটেল রুমে অতিথিদের ব্যক্তিগত মুহূর্ত গোপনে ধারণ করা, এরপর সেই ফুটেজগুলো মোটা অংকের অর্থের বিনিময়ে একটি ওয়েবসাইটের মাধ্যমে বিক্রির অভিযোগ উঠেছে।

এর শিকার হয়েছেন হোটেলে থাকতে আসা অন্তত ১৬শ অতিথি।

গোপনে এসব ভিডিও ধারণের ঘটনায় জড়িত সন্দেহে এ পর্যন্ত চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।‌ বিবিসি।

এই ছোট আকারের বা মিনি ক্যামেরাগুলো হোটেল কক্ষের টেলিভিশন, চুল শুকানোর হেয়ার ড্রায়ারের হাতল এবং প্লাগের সকেটে অভিনব কায়দায় বসানো হতো যেন খালি চোখে বোঝা না যায়।

অতিথিদের অজান্তে ধারণ করা এসব ভিডিও থেকে দুষ্কৃতকারীরা ৬ হাজার ২শ ডলারের মতো আয় করতো বলে জানা গেছে।

গ্রেপ্তার ওই চার সন্দেহভাজন আদালতে দোষী সাব্যস্ত হলে, তাদের প্রত্যেককে ১০ বছর পর্যন্ত জেল, সঙ্গে হাজার হাজার ডলার জরিমানা করা হতে পারে।

দক্ষিণ কোরিয়ায় যৌনমিলন এবং নগ্ন দৃশ্য গোপনে ক্যামেরায় ধারণের ঘটনা মহামারি আকারে বেড়ে গেছে। যার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করে আসছে সাধারণ মানুষ।

বিবিসিকে দেয়া এক সাক্ষাতকারে কোরীয় পুলিশ জানায়, দুষ্কৃতকারীরা গত বছরের আগস্ট মাসে দক্ষিণ কোরিয়ার ১০টি শহরের অন্তত ৩০টি হোটেলে এই মিনি ক্যামেরাগুলো স্থাপন করেছিল বলে তারা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানতে পেরেছে।

ওই গোপন ক্যামেরাগুলো এক মিলিমিটার লেন্স ক্যামেরা হওয়ায় অতিথিদের কেউই টের পাননি যে তারা নিজেদের অজান্তেই শিকার হচ্ছেন পর্নোগ্রাফির।

পুলিশ জানায়, গত নভেম্বরে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করা হয় যেখানে সেই গোপনে ধারণকৃত ফুটেজগুলো ছাড়া হয়।

ভিডিওগুলোর প্রথম ৩০ সেকেন্ড ফ্রিতে দেখার সুযোগ পান ইউজাররা। এরপরের পুরো দৃশ্য দেখতে তাদের অর্থ পরিশোধ করতে হতো। মূলত এভাবেই চলতো এই অবৈধ ব্যবসা।

দুষ্কৃতকারীরা এ পর্যন্ত ৮শর বেশি ভিডিও ওই ওয়েবসাইটে পোস্ট করেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

এছাড়া বিদেশে ওয়েবসাইট সার্ভার পরিচালনার আইনও তারা লঙ্ঘন করেছে বলে জানা যায়।

পুলিশ বলছে, এই মাসেই তারা ওই ওয়েবসাইটটি সরিয়ে ফেলে। তার আগ পর্যন্ত ওই ব্যক্তিরা ৯৭ জন পেয়িং মেম্বারদের থেকে নিয়মিত আয় করতো।

মিডিয়া ক্যাপশন লুকানো এবং আপ স্কার্ট ক্যামেরা ব্যবহার দক্ষিণ কোরিয়ার একটি বিশাল সমস্যা।

সিউল মেট্রোপলিটন পুলিশ এজেন্সিটির এক মুখপাত্র কোরিয়া হেরাল্ডকে বলেন, “পুলিশ সংস্থা কঠোরভাবে সেইসঙ্গে কৌশলী হয়ে অপরাধীদের থেকে তথ্য সংগ্রহের কাজ করছে। মূলত, যারা অবৈধভাবে ভিডিওগুলো পোস্ট এবং শেয়ার করেছে। কারণ এ বিষয়টি গুরুতরভাবে মানুষের মর্যাদাকে ক্ষতিগ্রস্ত করে।”

দক্ষিণ কোরিয়াতে পর্নোগ্রাফি তৈরি ও প্রচার করা অবৈধ। তা সত্ত্বেও দেশটির দ্রুতগতির ইন্টারনেট সুবিধার কারণে গোপনে চিত্রগ্রহণের হার ক্রমেই বেড়ে যাচ্ছে বলে মনে করা হয়।

অনেক ভিডিও পোশাক পরিবর্তন কক্ষে এমনকি টয়লেটেও গোপন ক্যামেরায় ধারণ করা হয়েছে।

আবার অনেক ক্ষেত্রেই প্রাক্তন প্রেমিক-প্রেমিকা প্রতিশোধের বশবর্তী হয়ে এসব ভিডিও ওয়েবসাইটে ছেড়ে দেয়।

দক্ষিণ কোরিয়ায় ২০১৭ সালে এইধরনের গোপন ভিডিও ধারণের ছয় হাজার অভিযোগ পুলিশের কাছে জমা পড়ে। ২০১২ সালে এইধরনের অভিযোগের সংখ্যা ছিল আড়াই হাজারের কাছাকাছি।

২০১৭ পুলিশ অভিযান চালিয়ে গোপন ক্যামেরা সংশ্লিষ্ট অপরাধের জেরে সাড়ে পাঁচ হাজার সন্দেহভাজনকে আটক করে। তবে এর মধ্যে দুই শতাংশেরও কম মানুষের কারাদণ্ড নিশ্চিত করা গেছে।

এভাবে একের পর এক গোপন ভিডিও ধারণ এবং তা ফাঁস হওয়ার ঘটনায় পুরো দক্ষিণ কোরিয়া জুড়ে ব্যাপক বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে।

গত বছর রাজধানী সিউল শহরে কয়েক দফা বিক্ষোভ হয় এবং আন্দোলনকারীরা এই চক্রের সঙ্গে জড়িত সবার কঠোর শাস্তি নিশ্চিতের আহ্বান জানান।

তুরস্কে বাস দুর্ঘটনায় বাংলাদেশিসহ নিহত ১৭ প্রশাসনকে ক্ষমতাসীনদের স্বার্থে ব্যবহার করা হচ্ছে: ড. কামাল কর সংগ্রহ নিয়ে ডিসি-রাজস্ব কর্মকর্তারা মুখোমুখি অবস্থানে ক্রিকেটকে খেলা মানতে নারাজ রাশিয়া! ‘চোরাই তেলসহ’ বিদেশি জাহাজ আটক করেছে ইরান পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী আব্বাসি গ্রেপ্তার পুঁজিবাজারে লাভ-লসের সঙ্গে সরকারের কোনো সম্পৃক্ততা নেই: অর্থমন্ত্রী শিশু সজীবের মাথাহীন দেহ উদ্ধার, নিহত ঘাতকের পরিচয় মিলেছে নামাজরত মুসল্লিদের ওপর ইসরালি বাহিনীর হামলা দ. আফ্রিকা সফরে মেয়েদের ইমার্জিং দল ঘোষণা উন্নয়নের নামে বল্গাহীন লুণ্ঠন চলছে: রিজভী মশার ভয়ে পরিকল্পনা কমিশনে যাচ্ছেন না অর্থমন্ত্রী! প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে বিনিয়োগকারীদের স্মারকলিপি পেশ ১৫ দফা দাবি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে বিনিয়োগকারীরা বদলে গেলো দৌলতদিয়া পতিতাপল্লীর নাম এফ-৩৫ না দিয়ে অন্যায় করছে যুক্তরাষ্ট্র: তুরস্ক শিশুর মাথা কেটে নিয়ে পালানোর সময় পিটুনিতে যুবক নিহত রিফাত হত্যায় মিন্নি সরাসরি জড়িত: এসপি চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ, পরে বিয়ের আশ্বাস! সরল বিশ্বাসে কৃতকর্ম অপরাধ নয়: দুদক চেয়ারম্যান ধর্ষণ মামলার বিচার বিষয়ে হাইকোর্টের ৭ নির্দেশনা জাপানে অগ্নিহামলা! নিহত অন্তত ৩৩ ওয়াসার ১১ দুর্নীতির উৎস চিহ্নিত করেছে দুদক ‘হটলাইন কমান্ডো’ নিয়ে আসছেন সোহেল তাজ ওয়েলসে বক্সিংয়ে শিখ ও মুসলিমদের দাড়ির ওপর নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার হচ্ছে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের খাদ্য ঘাটতি পূরণ করেছি, লক্ষ্য এখন পুষ্টির চাহিদা পূরণ: প্রধানমন্ত্রী রিফাত হত্যা: তৃতীয় আসামি রিশান ফরাজী গ্রেপ্তার আদালতে নিজেকে নির্দোষ দাবি মিন্নির সিরাজগঞ্জের কাজীপুরে রিং বাঁধের ৬০ মিটার ধসে গেছে