artk
বৃহস্পতিবার, মার্চ ২১, ২০১৯ ২:৪৬   |  ৭,চৈত্র ১৪২৫

স্টাফ রিপোর্টার

বুধবার, মার্চ ১৩, ২০১৯ ৩:২৯

মানুষের ভেতরে ভীতি কাজ করছে, বললেন নির্বাচন কমিশনার

media

ফাইল ফটো

‘অনেক জায়গায় মানুষের ভেতরে একটা ভীতি কাজ করছে’ বলে মন্তব্য করেছেন নির্বাচন কমিশনার মো. রফিকুল ইসলাম। 

তিনি বলেন, “কোনো কোনো ক্ষেত্রে আমরাও কিন্তু পরোক্ষভাবে দায়ী।”

বুধবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ের ইটিআই ভবনে উপজেলা নির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহারের প্রশিক্ষকদের প্রশিক্ষণ উদ্বোধনকালে তিনি এসব কথা বলেন।

কর্মকর্তাদের উদ্দেশে মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, “এই যে, মানুষের ভেতরে কথা বলা হচ্ছে যে, মানুষের ভেতরে একটা ভীতি কাজ করতেছে অনেক জায়গাতে। আসলে কোনো কোনো ক্ষেত্রে আমরাও কিন্তু পরোক্ষভাবে দায়ী। আমরা এমন সব কাজ করেছি যেগুলো ঠিক না।”

কর্মকর্তাদের উদ্দেশে রফিকুল ইসলাম বলেন, “ম্যানুয়ালি ভোটের ক্ষেত্রে আমরা বলে বলে ঠিক করার চেষ্টা করেছি সেটা হচ্ছে যে, ব্যালট পেপারের উল্টো দিকে সিল বা স্বাক্ষর মেরে রাখত ভোট শুরু হওয়ার আগে। জিজ্ঞাস করলে বলত যে, স্যার একটু কাজ করে রেখেছি, কাজ এগিয়ে রেখেছি। আমি প্রায় সময় বলি যে, নামাজ পড়াটা হচ্ছে আল্লাহর ইবাদত করা। কিন্তু ঈশার নামাজটা কি ফজরের সঙ্গে পড়ে নিতে পারবেন? বা জোহরের নামাজটা ফজরে সঙ্গে পড়ে নিতে পারবেন? পারবেন না। এটা অত্যন্ত ভালো কাজ কিন্তু তারপরও আল্লাহতাআলা এটা অ্যালাউ করেন নাই। সেই ক্ষেত্রে এখানেও একটু প্রবলেম আছে। এ জন্য এগুলো আপনারা বারবার বলবেন যাতে প্রশিক্ষণার্থীদের কানে ঢুকে যায়। শুধু কানে নয়, মগজে, মননে ঢুকে যায়।”

নির্বাচন কমিশনার আরো বলেন, “মনে রাখবেন, আইনকে কোনো সময় টেকনোলজির কাছে স্যারেন্ডার করাবেন না। টেকনোলজি ইজ টেকনোলজি, রুল ইজ রুল। টেকনোলজিকে রুলের ওপরে স্থান দেয়ার কোনো মানে হয় না। আইনে আছে কেন্দ্রভিত্তিক রেজাল্ট ঘোষণা দিয়ে আমরা একটি ফর্মে টাঙিয়ে দেব। আপনারা যদি কেন্দ্রে না করে কক্ষ থেকে রেজাল্ট দিয়ে দেন। আপনারা বলতে পারেন, কক্ষে করলাম তাতে এমন কী হয়েছে। কক্ষে করলাম, তারপর সবকক্ষ মিলিয়ে কেন্দ্রেরটা করে দিলাম। কেন এটি একটি অত্যন্ত গর্হিত অপরাধ জানেন? একটা কক্ষে সর্বোচ্চ ৫০০ ভোটার থাকে। ওই কক্ষের রেজাল্ট যদি দেন এবং দেখা যায় যে, কোনো একটা প্রতীকে বা লোকের পক্ষে সব ভোট চলে গেছে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ওই লোকটা পাস করতে পারেন নাই। ওই সামান্য কয়েকটা ভোটারের কি অবস্থা হবে জানেন? এসব ক্ষেত্রে ডিসি, এসপি থেকে শুরু করে ডিআইজি সবাই এসেও কিন্তু পরিস্থিতি সামাল দিতে পারে না।”

জলবায়ু নীতিমালায় বিশ্বের ১০০ প্রভাবশালী ব্যক্তির তালিকায় ড. সালেমুল হক আন্দোলনকারীদের একাংশের মানববন্ধন খুলনায় ট্রলিচাপায় শিশু নিহত ২৫ ক্যাজুয়াল কর্মচারীকে স্থায়ী করলো বিমান এবার ঝরলো শিক্ষকের প্রাণ বৃহস্পতিবার শুরু হচ্ছে ‘শিশু একাডেমি বইমেলা’ জাতীয় দল থেকে ছিটকে গেলেন ডি’মারিয়া এবার সিরাজগঞ্জে কলেজছাত্রের প্রাণ নিলো ঘাতক চালক সন্ধ্যায় বঙ্গবন্ধু সম্মেলন কেন্দ্রে গাইবেন সোমলতা ১৯৬টি শো নিয়ে কানাডায় যাত্রা করছে ‘যদি একদিন’ পদ্মাসেতুর নবম স্প্যান বসছে বৃহস্পতিবার কুমিল্লায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ১১ মামলার আসামি নিহত দক্ষিণ কোরিয়ায় হোটেলে পর্নোগ্রাফির শিকার ১৬শ মানুষ আধা স্বয়ংক্রিয় অস্ত্র নিষিদ্ধ করতে যাচ্ছে নিউজিল্যান্ড চুয়াডাঙ্গা স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যার পর স্বামীর আত্মহত্যা এক নারীকে ধাক্কা দিয়ে বাস নিয়ে পালাচ্ছিলেন চালক ‘গাঁজা না খেয়ে গাড়ি চালাতে পারেন না সু-প্রভাত চালক সিরাজুল’ শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে বিএনপির ‘পূর্ণ সমর্থন’ আন্দোলনকারী দুই ছাত্রীর ওপর গাড়ি উঠিয়ে দিলেন জবি শিক্ষক সুপ্রভাত ও জাবালে নূরের সব বাস নিষিদ্ধ প্রাথমিকে তৃতীয় শ্রেণি পর্যন্ত পরীক্ষা থাকছে না একই বিমানের পাইলট মা-মেয়ে, ছবি ভাইরাল বেনাপোলে ভারতীয় ট্রাকসহ পণ্য জব্দ বিশ্বের সবচেয়ে সস্তা শহর কোনটি? সন্তানকে চৌকিদার বানাতে চাইলে মোদিকে ভোট দিন আর্ন্তজাতিক বাণিজ্যে বেসরকারি ব্যাংকের আধিপত্য খালেদা জিয়ার মানহানির দুই মামলায় অভিযোগ গঠন ১৫ এপ্রিল ত্রিশে পা দিলেন তামিম ইকবাল, আইসিসির শুভেচ্ছা ৩৭তম বিসিএসে নিয়োগ পেলেন ১ হাজার ২২১ জন আইসিসি বিশ্বকাপে কাউকে ভয় করবে না আফগানরা: রশিদ খান