artk
মঙ্গলবার, মার্চ ২৬, ২০১৯ ১:১৩   |  ১২,চৈত্র ১৪২৫
সোমবার, মার্চ ১১, ২০১৯ ৮:০৪

ক্রাশ ডায়েট যে কারণে ক্ষতিকর

লাইফস্টাইল ডেস্ক
media

ক্রাশ ডায়েটের সময় শরীরের ওজন বেড়ে যাওয়ার ভয়ে উপোস করার অভ্যাস বা অন্যান্য ‘ইটিং ডিজঅর্ডার’ দেখা দিতে পারে।

দ্রুত ওজন কমাতে ক্রাশ ডায়েট প্ল্যান বেশ জনপ্রিয়। সাত থেকে ১০ দিনে ৫ কেজি পর্যন্ত ওজন কমানো সম্ভব এতে। অতিরিক্ত বা কঠোর খাদ্যনিয়ন্ত্রণের (প্রায় না খেয়ে থাকা) ফলে ওজন দ্রুত কমবে ঠিকই, কিন্তু এ কারণে শরীরের পুষ্টিঘাটতি প্রকট আকার ধারণ করে।

সাধারণত পুষ্টিবিদরা, ছিপছিপে, সুস্থ শরীরের জন্য কার্বোহাইড্রেট জাতীয় খাবার অর্থাৎ ভাত, রুটি, আলু জাতীয় খাবার কমই খেতে বলেন। তবে অনেকেই হয়তো জানেন না ছিপছিপে বা স্লিম হওয়ার চেষ্টায় এ ডায়েটের ফলে শরীরের ক্ষতিই হয় বেশি। চলুন তাহলে ক্রাশ ডায়েটের ক্ষতিকর দিকগুলো সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক-

১. ক্রাশ ডায়েট দীর্ঘদিন চালিয়ে যাওয়া সম্ভব নয়, উচিতও নয়। ফলে আবার স্বাভাবিক ডায়েটে ফিরে এলে ওজন আগের চেয়েও বেড়ে যেতে পারে।

২. ক্রাশ ডায়েটের ফলে শরীর তার প্রয়োজনীয় পুষ্টি পায় না, ফলে ধীরে ধীরে পেশী দুর্বল হয়ে পড়ে।

৩. ক্রাশ ডায়েটের সময় শরীরের ওজন বেড়ে যাওয়ার ভয়ে উপোস করার অভ্যাস বা অন্যান্য ‘ইটিং ডিজঅর্ডার’ দেখা দিতে পারে।

৪. নারীদের ক্ষেত্রে খুব অল্প বয়সে ক্রাশ ডায়েট করলে নানা রকম মেনস্ট্রুয়াল ডিজঅর্ডার বা অনিয়মিত ঋতুর সমস্যা দেখা দিতে পারে।

৫. নারীদের ক্ষেত্রে ক্রাশ ডায়েটের ফলে শরীর পর্যাপ্ত ক্যালসিয়াম না পেলে অস্টিওপরেসিস বা হাড় ক্ষয়ের সমস্যা দেখা দিতে পারে।

৬. ক্রাশ ডায়েটের ফলে শরীর যদি সঠিক পরিমাণ প্রোটিন, ফ্যাট, কার্বহাইড্রেট, ক্যালসিয়াম না পায় তাহলে অপুষ্টির সমস্যায় ধীরে ধীরে শরীর ভেঙে যেতে পারে। শুধু তাই নয়, শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও কমে যায়।

৭. ক্র্যাশ ডায়েটের ফলে শরীর প্রয়োজনীয় পুষ্টি না পেলে চেহারায় বয়সের ছাপ পড়ে যেতে পারে। ত্বক তার ঔজ্জ্বল্য হারাতে পারে।

হবিগঞ্জে স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে হামলা, ২০ শিক্ষার্থী আহত জানেন কি ঢেঁড়সের এই উপকারিতাগুলো? স্বামী ও আমাকে হয়রানি করতেই এ মামলা: সালমা ফতুল্লায় ডাইং কারখানায় ভয়াবহ কেমিক্যাল বিস্ফোরণ টেকনাফে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে রোহিঙ্গা নিহত স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে যাওয়ার পথে দুর্ঘটনায় স্কুলছাত্রী নিহত সাংবাদিকদের সঙ্গে দুর্ব্যবহারে বিএসইসির দুঃখ প্রকাশ ভালো কোম্পানি আনতে আইপিওর পদ্ধতির পরিবর্তন জরুরি ফরিদপুরে মহান স্বাধীনতা দিবস পালিত তোমাদেরই গঠন করতে হবে বলিষ্ঠ জাতি: শিশুদের উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী ব্যাঙের সব পাঞ্জাবিতে ৫০ ভাগ ছাড় মেলবোর্নে বাংলাদেশি নারীদের অভিনব মিলনমেলা মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস মঙ্গলবার আইপিএলে পাঞ্জাবের নাটকীয় জয় স্মৃতিসৌধে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা সালমার স্বামী সাগরের বিরুদ্ধে প্রথম স্ত্রীর মায়ের মামলা দেশব্যাপী ১ মিনিট বিদ্যুৎ বন্ধ রেখে কালরাত্রিকে স্মরণ ব্যাংক কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ‘ঘুষ না খাওয়ার’ শপথ পড়ালেন অর্থমন্ত্রী সোনালী ব্যাংকের সাবেক জিএম-ডিজিএমের বিরুদ্ধে চার্জশিট আগারগাঁও পাসপোর্ট অফিসে দুদকের হানা, আটক ৩ হিরো আলমের সঙ্গে সংসার করব: স্ত্রী সুমি সেই নারী বললেন ‘প্রতিক্রিয়াশীল চক্র আমাদের ছবি নিয়ে বিকৃত মন্তব্য করছে’ সাংবাদিককে পেটালেন ছাত্রলীগ নেতা এ কোন চরিত্রে দীপিকা! সাংবাদিকদের সঙ্গে বিএসইসির কর্মকর্তাদের দুর্ব্যবহারে সিএমজেএফের নিন্দা ভাসানচরে স্থানান্তর রোহিঙ্গাদের ইচ্ছায় কিনা জানতে চায় জাতিসংঘ মারুফের টানা দ্বিতীয় সেঞ্চুরিতে রূপগঞ্জের সহজ জয় প্রশ্নফাঁসে শিক্ষক-কর্মচারী জড়িত থাকলে বরখাস্ত: শিক্ষামন্ত্রী চীন-মার্কিন যুদ্ধ কি শিগগিরই? বিভাজন বিদ্বেষে দেশ এগোতে পারে না: শাহদীন মালিক