artk
মঙ্গলবার, মে ২১, ২০১৯ ১১:৫৫   |  ৭,জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

রোববার, ফেব্রুয়ারী ২৪, ২০১৯ ১২:৪৫

জাপানের ওকিনাওয়া মার্কিন ঘাঁটি নিয়ে গণভোট

media

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে মিত্রশক্তির কাছে জাপানের হেরে যাওয়ার পর দেশটির দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থিত ওকিনাওয়া দ্বীপটির দখল নেয় যুক্তরাষ্ট্র। সে সময় এই দ্বীপেই মার্কিন সেনাদের সঙ্গে জাপানি সেনাদের হয়েছিলো তুমুল লড়াই। সেই লড়াইয়ে প্রতি চারজন দ্বীপবাসীর একজন প্রাণ হারিয়েছিলেন। ১৯৭২ সালে দ্বীপটি জাপানকে ‘ফিরিয়ে’ দিলেও সেখানে রয়ে যায় বিজয়ী বাহিনীর ঘাঁটি।

বর্তমানে ওকিনাওয়ার মূল দ্বীপের প্রায় ১৮ শতাংশ জমির ওপর রয়েছে মার্কিন বিমান ঘাঁটি। ১৯৯৫ সালে তিন মার্কিন সেনার হাতে এক জাপানি তরুণী ধর্ষিত হওয়ার ঘটনার পর দাবি উঠে সেখান থেকে ঘাঁটি সরানোর। সেই দাবি রূপ নেয় জনরোষের। ফলে, পরের বছর জাপান ও যুক্তরাষ্ট্র সরকার সিদ্ধান্ত নেয় দ্বীপের কম বসতিপূর্ণ উপকূলীয় গ্রাম হেনোকোয় সরিয়ে নেয়া হবে সেই ঘাঁটি।

জাপানে অবস্থানরত ৪৭ হাজার মার্কিন সেনার অধিকাংশের বেশি থাকেন ভূ-রাজনৈতিকভাবে গুরুত্বপূর্ণ সেই ওকিনাওয়া দ্বীপের ফুতেনমা ঘাঁটিতে।

দ্য জাপান টাইমসের এক খবরে বলা হয়, আজকের (২৪ ফেব্রুয়ারি) গণভোটে ওকিনাওয়ার ১০ লাখের বেশি অধিবাসীকে- যাদের বয়স ১৮ বছর বা এর ওপরে- দেয়া হবে তিনটি প্রশ্ন। হেনোকো গ্রামে মার্কিন ঘাঁটি সরাতে নতুন করে স্থাপনা নির্মাণ করার অনুমতি দেয়া হবে কিনা সে বিষয়ে ভোটাররা ‘হ্যাঁ’, ‘না’ অথবা ‘কোনটিই নয়’ উত্তর দেবেন।

গত সপ্তাহে এক হাজারের বেশি ভোটারের ওপর জরিপ চালিয়ে জাপানের কেয়েদো নিউজ জানায়, দ্বীপটির নতুন এলাকায় মার্কিন ঘাঁটি সরানোর বিরোধিতা করছেন ৬৭ শতাংশ ভোটার। পক্ষে মত দিয়েছেন প্রায় ১৬ শতাংশ এবং ১৩ শতাংশ জানিয়েছেন তারা ‘হ্যাঁ’ বা ‘না’ এর কোনোটিই সমর্থন করেন না।

তবে, জরিপে অংশগ্রহণকারীদের ৪৬ শতাংশ বলেছেন, গণভোটের ফলাফলের ওপর জাপানের কেন্দ্রীয় সরকারের শ্রদ্ধা জানানো উচিত। কেন না, এই গণভোটের ফলাফল মানতে সরকারের কোনো আইনগত বাধ্যবাধকতা থাকবে না।

এদিকে, ওকিনাওয়া দ্বীপের গভর্নর ডেনি তামাকি আশা প্রকাশ করে বলেছেন, মার্কিন বিমানঘাঁটি সরানোর বিষয়ে স্থানীয় জনগণের ইচ্ছা প্রতিফলিত হবে আসন্ন গণভোটে।

দ্বীপের ভেতরেই মার্কিন ঘাঁটি সরিয়ে নেয়ার বিরোধিতা করে তামাকি গত সেপ্টেম্বর গভর্নর নির্বাচিত হন। একই সঙ্গে তার আবেদন, জাপান ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে বিদ্যমান সামরিক চুক্তিটি (ইউএস-জাপান স্ট্যাটাস অব ফোর্সেস অ্যাগ্রিমেন্ট) নতুন করে খতিয়ে দেয়া হোক।

ওকিনাওয়ার অধিকাংশ অধিবাসী দ্বীপটিতে মার্কিন ঘাঁটির বিরোধী। কেন না, শান্তিপ্রিয় দ্বীপবাসীরা মার্কিন সেনাদের হট্টগোল, দুর্ঘটনা এবং বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে বেশ বিরক্ত। তারা চান তাদের দ্বীপ থেকেই সরিয়ে নেয়া হোক বিদেশি সেনাদের ঘাঁটি।

দ্বীপের একজন অধিবাসী ইয়ুকিকো চিনেন গণমাধ্যমকে জানান- ফুতেনমা বিমানঘাঁটির কাছে একটি নার্সারি স্কুলে পড়ে তার ছয় বছর বয়সী মেয়ে। গতবছর মার্কিন হেলিকপ্টার থেকে কিছু দ্রব্য এসে পড়েছিলো স্কুলটির ছাদে। গণভোটের প্রাক্কালে ইয়ুকিকোর মন্তব্য, “আমাদেরকে বলা হচ্ছে মার্কিন ঘাঁটি হেনোকোতে হবে কী না। আসলে বলতে চাই যে আমরা এই দ্বীপে কোনো সামরিক ঘাঁটিই চাই না।”

তবে, দেশটির প্রধানমন্ত্রী শিনজু আবের প্রশাসন ভাবছে এর বিপরীত। আবে গত ২৩ ফেব্রুয়ারি দেশটির গণপরিষদে বলেন, “আমরা ফুতেনমা থেকে মার্কিন ঘাঁটি সরিয়ে নেওয়ার জন্যে কাজ করছি। আমরা এই কাজ চালিয়ে যাবো যাতে ওকিনাওয়ার ভার লাঘব হয়।”

আবের প্রশাসন জনগণকে বোঝাচ্ছে এই বলে যে- দ্বীপটির নতুন এলাকায় ঘাঁটি সরিয়ে নিয়ে সেখানে কয়েক মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করা হবে। এর ফলে সেখানকার আর্থ-সামাজিক অবস্থার পরিবর্তন হবে।

উল্লেখ্য, ওকিনাওয়া দ্বীপটি এক সময় ছিলো স্বাধীন রাজার অধীনে। রিউকিউ দ্বীপমালা নামে পরিচিত সেই অঞ্চলে জাপানি সেনাদের অনুপ্রবেশ ঘটে ১৬০৯ সালে। এরপর ১৮৭৯ সালে সেই অঞ্চলটি জাপানের অন্তর্ভুক্ত করে নেয়া হয়।

পুলিশের ডিম ভাঙার তদন্ত শেষ, ওসিকে প্রত্যাহার সন্তানকে হাসপাতালে রেখে উধাও ‘বাবা-মা’ গণমাধ্যম ও সুশীল সমাজ গণতন্ত্রের বিকাশে ভূমিকা রাখছে: স্পিকার রকেটের চেয়েও দ্রুত গতিতে জাল বুনে মাকড়সা! জামিনে কারামুক্ত হলেন বিএনপি নেতা রবি দেশজুড়ে বিড়ি ভোক্তাদের বিক্ষোভ, কর প্রত্যাহারের দাবি প্রভাবশালীদেরও আইনের মুখোমুখি হতে হচ্ছে: দুদক চেয়ারম্যান ভারতে নাগা জঙ্গিদের হাতে বিধায়কসহ নিহত ১১ যতদিন সিগারেট থাকবে ততদিন বিড়ি রাখার দাবি ভোক্তাদের বকেয়া মজুরি পরিশোধের শর্তে পাটকলশ্রমিকদের আন্দোলন স্থগিত রানার শেয়ারে দর বেড়েছে ৩৩ শতাংশ ৬৮ বছরের বৃদ্ধকে বিয়ে করছেন সেলেনা! ইভিএমে কারচুপি নিয়ে শঙ্কিত ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি বগুড়া উপনির্বাচন বর্জনের ঘোষণা বাম জোটের ছুটিতে ঘুরে বেড়াচ্ছেন সাকিব-মুশফিকরা আত্মহত্যা প্ররোচনার মামলায় ৫ জনের ১৩ বছর কারাদণ্ড পুঁজিবাজারে সূচকের পতন ২ লাখ কোটি টাকার এডিপি অনুমোদন পাঁচ সিনিয়রের বাইরে তরুণদের পারফরম্যান্সে দারুণ খুশি টাইগার কোচ বাংলাদেশে বিনিয়োগ আকর্ষণে ইতালির ফ্লোরেন্সে সেমিনার অনুষ্ঠিত রুমিন ফারহানাই হচ্ছেন বিএনপির নারী আসনের সাংসদ নকল পণ্যের জন্য এমএম প্লাস্টিককে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা কারাগারে আদালত স্থানান্তরের প্রজ্ঞাপন প্রত্যাহার চেয়ে আইনি নোটিশ আইসিডিডিআরবি, বুয়েট, ঢাবি ল্যাবে ওয়াসার পানি পরীক্ষার নির্দেশ পাকিস্তানিদের ভিসা বন্ধ করা হয়নি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী সারাদেশের পাস্তুরিত দুধ পরীক্ষার নির্দেশ আদালতের কেরানীগঞ্জ কারাগারে আদালত স্থাপন সংবিধান পরিপন্থী: মওদুদ কান উৎসবে আবারো নজর কাড়লেন ঐশ্বরিয়া সহকর্মী ধর্ষণের দায়ে প্রধান শিক্ষকের যাবজ্জীবন স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণকারী পুলিশ সদস্য কারাগারে