artk
রোববার, মে ১৯, ২০১৯ ১১:৩৪   |  ৫,জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

স্টাফ রিপোর্টার

বুধবার, ফেব্রুয়ারী ২০, ২০১৯ ৯:০৮

খালেদা জিয়ার মুক্তি কবে? তোপের মুখে বিএনপি নেতারা

media

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার কারামুক্তির দাবি কেন কোনো ধরনের কর্মসূচি নেই, এ নিয়ে নেতাকর্মীদের তোপের মুখে পড়েছেন দলটির সিনিয়র নেতারা। 

মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় এ নিয়ে বারবার হট্টগোল সৃষ্টি হয়। 

রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে ওই সভায় দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদের বক্তব্যের এক পর্যায়ে দর্শক সারি থেকে এক নেতা বলে ওঠেন- খালেদা জিয়ার মুক্তির কথা বলেন, কবে এবং কীভাবে তিনি মুক্তি পাবেন? খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে কর্মসূচি নেই কেন? আজকে হল রুম খালি কেন? 

মুহুর্তের মধ্যেই পুরো পরিস্থিতি পাল্টে যায়। উপস্থিত নেতাকর্মীরা স্লোগান দিতে থাকেন। এ সময় বাধ্য হয়ে বক্তব্য থামিয়ে দেন মওদুদ।  স্লোগান শেষ হলে ব্যারিস্টার মওদুদ বলেন, “বিএনপি চেয়ারপারসনকে আজ কোর্র্টে আনার কথা ছিল। কিন্তু অসুস্থতার কারণে তিনি আসতে পারেননি।”

আজকে তাকে দেখার সৌভাগ্যও হয়নি। এই কথাই বলতে চাচ্ছিলাম। তিনি বলেন, আপনারা স্লোগানকে বাস্তবায়ন করতে চান না? আপনারা খালেদা জিয়ার কথা শুনতে চান না। খালেদা জিয়া অত্যন্ত অসুস্থ। আইনী প্রক্রিয়ায় তার মুক্তি সম্ভব না। একমাত্র আন্দোলনের মাধ্যমেই তাকে মুক্ত করা সম্ভব। সুপরিকল্পিত আন্দোলন কর্মসূচি দিতে হবে। যাতে এবার আমরা পরাজিত না হই। আর বেগম জিয়ার মুক্তি হবে আমাদের এক নাম্বার এজেন্ডা।

সভাটির সভাপতিত্ব করছিলেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তার বক্তব্যের এক পর্যায়ে বিক্ষুব্ধ নেতারা ফের স্লোগানে স্লোগানে উত্তপ্ত করে তোলে সভাস্থল। এবারও দর্শক সারি থেকে এক নেতা মহাসচিবকে উদ্দেশ্য করে বলেন, “বিএনপির কমিটি ভেঙে দেন। আজকে হল খালি কেন?” 

এ সময় নেতাকর্মীরা সমস্বরে প্রশ্ন করতে থাকেন, “খালেদা জিয়া কবে মুক্তি পাবেন? তার মুক্তির দাবিতে কর্মসূচি দেয়া হচ্ছে না কেন?”

জবাবে বিএনপির মহাসচিব বলেন, “হলে বসে চিৎকার করলে হবে না। কর্মসূচি দেয়া হবে ধৈর্য ধরেন। চাইলেই কর্মসূচি দেয়া যায় না। কর্মসূচি পালন করতে হবে তো। সব কিছুই হবে। ধৈর্য ধরতে হবে। এখানে হলের মধ্যে বসে চিৎকার করলে হবে না।”

তিনি বলেন, “কথা শুনুন, থামেন আপনারা। ”

এ সময় নেতাকর্মীরা বলেন, হয় কর্মসূচি দেন, না হয় কমিটি ভেঙে দেন। পরে পরিস্থিতি সামলে তিনি বলেন, “আপনারা কেন ভাবছেন, ব্যর্থ হয়েছেন। আপনারা ব্যর্থ হননি। আওয়ামী লীগ পরাজিত হয়েছে। আওয়ামী লীগ একদলীয় শাসন কায়েম করতে ১০ বছর ধরে নির্যাতন চালাচ্ছে।”

ইতালিতে ঝড় তুলেছে বাংলাদেশি বংশদ্ভূত ফাইমের মুভি ‘বাংলা’ আদালতের আদেশ না মানায় ‘বাঘাবাড়ী ঘি’কে ২২ লাখ টাকা জরিমানা ছেলের জন্য চিকিৎসা চেয়ে চিকিৎসকের হাতে মার খেলেন বাবা! ছেলেশিশুকে রেখে পালিয়ে গেলেন মা মুক্তিযোদ্ধা-এতিমদের সঙ্গে ইফতার করলেন প্রধানমন্ত্রী ১৫ টাকার ওষুধের দাম ৬০০ টাকা, জরিমানা ২০ হাজার প্রধানমন্ত্রীর কাছে ছাত্রলীগ নেতার খোলা চিঠি বগুড়া-৬ উপনির্বাচনে আ.লীগের প্রার্থী টি জামান নিকেতা ‘ইয়েমেনে সহস্রাধিক মসজিদ ধ্বংস করেছে সৌদি জোট’ ভোটগ্রহণ শেষ, জরিপে এগিয়ে মোদি বাড়ানো হয়েছে মোবাইল ব্যাংকিং লেনদেনের সীমা বিড়ি শিল্প টিকিয়ে রাখতে যৌক্তিক আন্দোলনের সঙ্গে আছি: রসিক মেয়র মোস্তফা ‘দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন না করা অপরাধ’ ভর্তুকি দিয়ে হলেও চাল রপ্তানি করা হবে: অর্থমন্ত্রী রূপপুরে হরিলুট: ঠিকাদারি বিল বন্ধের নির্দেশ হরিণের মাংসের অবৈধ ব্যবসা যেভাবে চলে কেউই আইনের ঊর্ধ্বে নয়: দুদক চেয়ারম্যান নিজেকে সমকামী ঘোষণা করলেন ভারতের দ্রুততম নারী ছাত্রলীগ নেত্রী দিশাকে অপহরণের চেষ্টা ক্লাসিফাইড লোন কমিয়ে আনবে পূবালী ব্যাংক তিন মোবাইল কোম্পানিকে ১৫ কোটি টাকা জরিমানা মন্ত্রিসভায় রদবদল, ডা. মুরাদ স্বাস্থ্য থেকে তথ্যে রিপোর্টিং আর মতামত আলাদা করতে হবে: আইনমন্ত্রী এটি পুরোটাই দলীয় অর্জন: মাশরাফি মুক্তিযোদ্ধা স্বীকৃতির ন্যূনতম বয়সের পরিপত্র হাই কোর্টে বাতিল বিশ্বকাপে ক্যারিবীয়দের রিজার্ভ স্কোয়াডে ব্রাভো-পোলার্ড সিডনিতে কুরআন ক্লাসের ইফতার অনুষ্ঠিত ওবায়দুল কাদেরের ‘দ্বিতীয় ইনিংস’ শুরু উড়ন্ত লাথির শিকার টার্মিনেটর তারকা আর্নল্ড শোয়ার্জনেগার ১৫তম শিক্ষক নিবন্ধনের প্রিলিমিনারির ফল প্রকাশ