artk
সোমবার, আগষ্ট ১৯, ২০১৯ ১২:২২   |  ৩,ভাদ্র ১৪২৬
সোমবার, ফেব্রুয়ারী ১৮, ২০১৯ ২:৪৬

ডিএসবির অফিস সহকারীর কয়েক কোটি টাকার সম্পদ!

তরিকুল ইসলাম মিঠু, যশোর প্রতিনিধি
media
অফিস সহকারী মোফাক্করুজ্জামান ওরফে ভুলুর বাড়ি সাতক্ষীরা জেলার আশাশুনি উপজেলার বাঁকড়া গ্রামে। অফিস সহকারী পদমর্যাদার ব্যক্তিটি খুলনা ও সাতক্ষীরার বিভিন্ন স্থানে নামে-বেনামে গড়ে তুলেছেন সম্পদের পাহাড়। গড়ে তুলেছেন একাধিক বিলাসবহুল ভবন।

যশোর ডিএসবির অফিস সহকারী জিএম মোফাক্কুরুজ্জামান ওরফে ভুলু ২৯ বছর চাকরি জীবনে কোটি কোটি টাকার সম্পদের মালিক বনে গেছেন।

২৯ বছর অফিস সহকারী চাকরি জীবনে তিনি ১০ বছরে ধরেই আছেন যশোরে। সাময়িক বদলি হলেও এ অফিস সহকারী ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের ম্যানেজ করেই আবার যশোরে চলে আসেন। বাল্যকাল থেকে তার নাম মোফাক্করুজ্জামান ওরফে ভুলু হলেও তার আর্থিক অবস্থার পরিবর্তন হলে নামেও তার পরিবর্তন আসে। বর্তমানে কর্মস্থলে তিনি ‘জামান সাহেব’  নামে সুপরিচিত।

এ অফিস সহকারী পদে গরিবানা হলেও জীবনযাপনে তিনি রাজকীয়। চলাফেরা করেন বিলাসবহুল গাড়িতে। যে ভুলু এক সময়ে বিড়ি খেতে পারতেন না সে এখন খান বিদেশি লিজেন্ট ও বেনসন সিগারেট ছাড়া খান না।

অফিস সহকারী মোফাক্করুজ্জামান ওরফে ভুলুর বাড়ি সাতক্ষীরা জেলার আশাশুনি উপজেলার বাঁকড়া গ্রামে। অফিস সহকারী পদমর্যাদার ব্যক্তিটি খুলনা ও সাতক্ষীরার বিভিন্ন স্থানে নামে-বেনামে গড়ে তুলেছেন সম্পদের পাহাড়। গড়ে তুলেছেন একাধিক বিলাসবহুল ভবন।

তাছাড়া তিনি জমি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান সৃষ্টি করেছেন। স্ত্রী ছেলের জন্যও রয়েছে দামি গাড়ি। ছেলেকে লেখাপড়া করাচ্ছেন নামিদামি স্কুলে। শুধু তাই নয়। তিনি তার গ্রামের বাড়ির পুকুরের সৌন্দর্য বর্ধনে ব্যয় করেছেন ২০ লক্ষাধিক টাকা।

অফিস সহকারী পদে চাকরি করে এত সম্পদের পাহাড় এবং বিলাসবহুল জীবনযাপন করা নিয়ে সৃষ্টি হয়েছে নানা প্রশ্নের। বেরিয়ে এসেছে তার অবৈধ অর্থ উপার্জনের কাহিনি।

পুলিশের নির্ভরযোগ্য সূত্রগুলো জানিয়েছে, যশোর ডিএসবি’র পাসপোর্ট শাখায় দীর্ঘ ১০ বছর ধরে দায়িত্ব পালন করছেন জিএম মোফাক্কুরুজ্জামান ওরফে ভুলু। বাবার সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হবার পর দুর্নীতি দমন কমিশনসহ সরকারি বিভিন্ন দপ্তরে তার সম্পদের ফিরিস্তি তুলে ধরে অভিযোগ করেছেন আপন বড়ভাই আখতারুজ্জামান টিপু।

আখতারুজ্জামান টিপুর দায়ের করা দুদকের অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, যশোর ডিএসবি অফিসের অফিস সহকারী জিএম মোফাক্করুজ্জামান ওরফে ভুলু তার স্ত্রী ও সন্তান খুলনা শহরের মিয়াপাড়া এলাকায় একটি বিলাসবহুল বাড়িতে বসবাস করে।

১৯৮৮ সালে মোফাক্কুরুজ্জামান ওরফে ভুলু অফিস সহকারী পদে চাকরিতে যোগদান করেন। প্রথমে তিনি বাগেরহাট জেলায়, পরে ঝিনাইদহ ও সর্বশেষ ২০০৯ সালে যশোর জেলা বিশেষ শাখায় (ডিএসবি) যোগদান করেন। তিনি এখানে ১০ বছর একাধারে বহাল তবিয়তে চাকরি করে যাচ্ছেন।

খুলনা মহানগরীর ২৫/১ মিয়াপাড়া এলাকায় মোফাক্কুরুজ্জামানের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, সেখানে পাঁচতলার ভীত দিয়ে অবকাশ নামে একটি বিলাসবহুল দুইতলা বাড়ি করেছেন।

স্থানীয় এক প্রকৌশলী নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, এটি নির্মাণে আনুমানিক খরচ হয়েছে দেড় কোটি টাকা। এছাড়া, খুলনা শহরের হরিণটানা এলাকার কৃষ্ণনগর মৌজায় ৫ কাঠার প্লট, বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে ৪ কাঠার প্লট, উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে ৫ কাঠার একটি প্লট রয়েছে। এসব প্লটের আনুমানিক মূল্য প্রায় ২ কোটি টাকা।

বড়ভাই মো. আখতারুজ্জামান টিপুর লিখিত অভিযোগে জানা যায়, কিছুদিন আগে মোফাক্কারুজ্জামান ভুলু সাতক্ষীরার বাঁকড়া এলাকায় বিলাসবহুল দ্বিতল বাড়ি করেছেন। জেলার ব্যাংদহ বাজারে ৮০ লাখ টাকা দিয়ে এক বিঘা জমি কিনেছেন। এছাড়া সাতক্ষীরা প্যারাডাইজ রোডে তার অপূর্ব স্টোর নামে একটি ডিপার্টমেন্টাল স্টোর রয়েছে। যশোরের বেনাপোলে রয়েছে পাথরের ব্যবসা।

অভিযোগে আরো জানা যায়, যশোরে কর্মরত থেকে তিনি পাসাপোর্ট ভেরিফিকেশনের মাধ্যমে এই কর্মস্থলে যোগদান করে এক সময় মাসে গড়ে ৫ লাখ টাকা হাতিয়ে নেন। এছাড়া তিনি বিভিন্নভাবে ক্ষমতার অপব্যবহার করে বছরে কোটি টাকারও বেশি আয় করেন।

টিপু আরো উল্লেখ করে বলেন, আমার ছোট ভাই হয়েও সে ক্ষমতার ভয় দেখিয়ে পৈত্রিক বাড়িটিও তার দখলে নিয়েছে। আমি এর প্রতিবাদ করলে সে আমাকে পুলিশ দিয়ে হয়রারির ভয় দেখায়। পৈত্রিক জমিজমা থেকেও তাকে বঞ্চিত করেছে বলে তিনি অভিযোগ করেন ।

বড়ভাই আক্তারুজ্জামান টিপু যাতে তার পৈত্রিক সম্পত্তির ভাগ না পান সেজন্য মোফাক্কারুজ্জামান ভুলু তার নিজ গ্রামেও পুলিশ পাঠিয়ে তাকে তাড়া করে ফেরেন। ‘এসপি অফিসে আসেন, অভিযোগের তদন্ত করা হবে’ বলে পুলিশ দিয়ে ফোনে করে সাতক্ষীরা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে ডাকেন।

সরেজমিনে তদন্ত করে পাওয়া যায়, গ্রামের পৈত্রিক ভিটায় তিনি প্রায় দেড় কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করছেন বিশাল অট্টালিকা ভবন। সেখানে আছে শান বাঁধানো পুকুর, যার নিচ থেকে উপর পর্যন্ত আরসিসি ঢালাই ও লাইটিং। এ বাবদ তিনি খরচ করেছেন প্রায় অর্ধকোটি টাকা। গ্রামে তিনি নামে বেনামে কিনেছেন একশ বিঘা মাছের ঘের। সম্প্রতি তিনি সাতক্ষীরা শহরের ব্যাংদহ বাজারে ৮০ লাখ টাকা দিয়ে এক বিঘা জমি কিনেছেন।

সাতক্ষীরার বাঁকড়া গ্রামের প্রতিবেশীরা জানান, অফিস সহকারী মোফাক্কারুজ্জামানের বাবা মৃত রিয়াজ উদ্দীন গাজী ছিলেন একজন স্কুলশিক্ষক। তিনি শিক্ষকতার পাশাপাশি কৃষি কাজ করে সংসার চালালেও ভুলু যেন আলাদীনের চেরাগ হাতে পেয়েছেন। পৈত্রিক সূত্রে তিনি মাত্র ২০ বিঘা কৃষি জমি পেয়েছেন। বর্তমানে তার ৮০ বিঘার মতো কৃষি জমি রয়েছে। এছাড়াও খুলনা ও সাতক্ষীরায় বাড়ি-গাড়ি-জমি করার পাশাপাশি নামে বেনামে প্রচুর ব্যাংক ব্যালেন্স রয়েছে।

জিএম মোফাক্কুরুজ্জামানের কাছে এ বিপুল সম্পাদ কীভাবে অর্জন করেছে তা জানতে চাইলে তিনি নিউজবাংলাদেশকে বলেন, “ভাই আমার বাবা একজন স্কুলশিক্ষক ছিলেন। তিনি আমাদের জন্য শত বিঘা জমি রেখে গেছেন। সেই সম্পদ থেকে আমি আজ এ বিপুল পরিমাণের সম্পদ তৈরি করেছি। আমার ভাই আমাকে বাবার সম্পদ থেকে বঞ্চিত করার জন্য সাংবাদিকদের কাছে এ ধরনের কুৎসা রটনা করছে। তার অভিযোগের ভিত্তিতে ইতোমধ্যে দুদকও পুলিশ বিভাগের পক্ষ থেকে তদন্ত চলছে বলেও তিনি জানান।

পেয়ারা পাড়তে গিয়ে স্কুলছাত্রীর করুণ মৃত্যু খুলনার সঙ্গে রেল যোগাযোগ বন্ধ ভারত পরমাণু যুদ্ধ বাধাতে পারে: ইমরান খান রাঙামাটিতে সন্ত্রাসীদের গুলিতে সেনা সদস্য নিহত এক মাসেই তিনবার বাড়লো সোনার দাম ছাত্রদলের নেতেৃত্বে আসতে মনোনয়নপত্র কিনলেন ১০৮ জন ‘অদৃশ্য খুঁটির’ জোরে ৪ লাখ টাকার গাছ ৮০ হাজার টাকায় বিক্রি সিপিডির ভবনে এডিস মশার লার্ভা, ২০ হাজার টাকা জরিমানা শোক দিবসের আলোচনা সভা করবেন ড. কামাল চামড়া শিল্পে আপাতত সমস্যা নেই: শিল্পমন্ত্রী শোক দিবসের অনুষ্ঠানে ছাত্রলীগের রক্তদান সোমবার রাতে ঢাকায় আসছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অতিরিক্ত ডিআইজি হলেন পুলিশের ২০ কর্মকর্তা এএসপির মেয়ের টেবিলের ওপর আঘাত হানলো কনস্টেবলের গুলি চামড়া বিক্রি বন্ধের সিদ্ধান্তে নেই আড়তদাররা দেশে এলো কলকাতায় নিহত ২ বাংলাদেশির মরদেহ ২৪ ঘণ্টায় ১৭০৬ ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে সাকিবের সঙ্গে আমার দ্বন্দ্ব নেই: মাহমুদউল্লাহ বিমানবন্দরে ১০ হাজার ইয়াবাসহ আটক ১ ধর্ষণ মামলায় খুলনার কর কমিশনারের ছেলে রিমান্ডে মওদুদ আহমদ এ যুগের শয়তান: কৃষিমন্ত্রী রেকর্ড গড়া টেস্টে কিউইদের ৬ উইকেটে হারালো শ্রীলঙ্কা জারিন খানকে বিয়ে করছেন সালমান! এফআর টাওয়ার দুর্নীতি মামলায় তাসভির গ্রেফতার লঙ্কানদের কাছে টাইগারদের লজ্জার হার আলোকচিত্রী শহিদুলের বিরুদ্ধে মামলায় হাই কোর্টের আদেশ বহাল নিজেই তৈরি করুন পছন্দের নেইল পলিশ ভেড়ার লোভে স্ত্রীকে দিলেন প্রেমিকের হাতে! ঈদ পরবর্তী কার্যদিবসে সূচকে উত্থান খাবার দিতে দেরি করায় ওয়েটারকে গুলি করে হত্যা