artk
মঙ্গলবার, মার্চ ১৯, ২০১৯ ১০:৫৭   |  ৫,চৈত্র ১৪২৫

গাজীপুর সংবাদদাতা

শুক্রবার, ফেব্রুয়ারী ১৫, ২০১৯ ৯:৪৩

বিশ্ব ইজতেমা শুরু

media

রোববার ১৭ ফেব্রুয়ারি বাদ ফজর শুরু হবে সাদ অনুসারীদের ইজতেমার কার্যক্রম। ১৮ ফেব্রুয়ারি সোমবার আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে এবারের বিশ্ব ইজতেমা শেষ হবে। এবার ইজতেমায় থাকছে না কোনো ধাপ বা পর্ব।

গাজীপুরের টঙ্গীর তুরাগ তীরে আম বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে মুসলিম সম্প্রদায়ের দ্বিতীয় বৃহত্তম জমায়েত বিশ্ব ইজতেমা। 

শুক্রবার ফজরের নামাজের পর পাকিস্তানের মাওলানা জিয়াউল হকের আম বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয় চারদিনব্যাপী এই ইজতেমা। ময়দানে বয়ান, জিকির, তালিম আর মাশোআরায় মগ্ন মুসল্লিরা।

তবে এর আগেই বুধবার রাত থেকে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে ইজতেমা ময়দানে জড়ো হয়েছেন মুসুল্লিরা। কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে ওঠে ইজতেমা ময়দান।

এবারের বিশ্ব ইজতেমায় মাওলানা জোবায়ের ও মাওলানা সাদ অনুসারীদের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি ও সংঘর্ষ নিয়ে যে অচল অবস্থার সৃষ্টি হয়েছিল তার সমঝোতা হয়েছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে উভয় অনুসারীদের পৃথক ব্যবস্থাপনায় দুদিন করে টানা চারদিন অনুষ্ঠিত হবে এবারের বিশ্ব ইজতেমা। প্রথম দুই দিনের ইজতেমায় মাওলানা জোবায়ের অনুসারীরা এবং পরবর্তী দুই দিন মাওলানা সাদ অনুসারীরা অংশ নেবে। এ উপলক্ষে ইজতেমা ময়দানের প্রায় এক বর্গ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে নির্মাণ করা হয়েছে বিশাল প্যান্ডেল।

একদিন আগেই শুরু

বুধবার রাত থেকে দলে দলে মুসুল্লিরা দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে ইজতেমা ময়দানে আসতে শুরু করেন। বৃহস্পতিবার বাদ আছর থেকে জোবায়ের অনুসারীদের বিশ্ব ইজতেমার বয়ান শুরু হয়েছে। পাকিস্তানের মাওলানা ওবায়দুল্লাহ খুরশিদ এ বয়ান করেন। বয়ান তরজমা করেন বাংলাদেশের মাওলানা মো. জাকির হোসেন। বাদ মাগরিব শুরু হয় ইজতেমার আম বয়ান। আম বয়ান করেন ভারতের মাওলানা আহমেদ লাট। আম বয়ান তরজমা করেন বাংলাদেশের মাওলানা ওমর ফারুক। প্রতি বছর আম বয়ান দিয়েই বিশ্ব ইজতেমা শুরু হয়। শনিবার দুপুরের আগে সকাল ১০টা থেকে ১১টার মধ্যে যে কোনো সময় আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে এ পক্ষের বিশ্ব ইজতেমা। পরে শনিবার রাত ১২টার মধ্যে তারা ইজতেমাস্থল ত্যাগ করবে।

পরদিন রোববার ১৭ ফেব্রুয়ারি বাদ ফজর শুরু হবে সাদ অনুসারীদের ইজতেমার কার্যক্রম। ১৮ ফেব্রুয়ারি সোমবার আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে এবারের বিশ্ব ইজতেমা শেষ হবে। এবার ইজতেমায় থাকছে না কোনো ধাপ বা পর্ব।

এবার বিশ্ব ইজতেমায় যোগ দিতে দেশ-বিদেশের কয়েক লাখ মুসল্লি এরই মধ্যে ময়দানে অবস্থান নিয়েছেন। এ ছাড়া মুসুল্লিদের আগমন অব্যাহত রয়েছে। এবার বিশ্ব ইজতেমায় অংশ নিচ্ছেন দেশের ৬৪ জেলার মুসুল্লি। তাঁরা ময়দানের তাবুর নিচে ৫০টি খিত্তায় বসে ইজতেমার মুরুব্বিদের বয়ান শুনবেন।

বিশ্ব ইজতেমা ময়দান ঘুরে দেখা গেছে, টঙ্গীর তুরাগ তীরে ১৬০ একর বিস্তৃত বিশ্ব ইজতেমা ময়দান প্রায় কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে গেছে। দেশ-বিদেশের মুসুল্লিরা অবস্থান নিয়েছেন তাদের নির্ধারিত তাঁবুর নিচে। তারা জিগির-আজগার এবং আল্লাহর ইবাদতে ব্যস্ত সময় পার করছেন। এসব মিলিয়েই টঙ্গীর তুরাগ তীরে যেন মুসুল্লিদের মিলন মেলায় পরিণত হয়েছে। বৃদ্ধ, যুবক, কিশোর ও তরুণসহ সব  বয়সের মুসুল্লিরা পায়জামা পাঞ্জাবী পরে ও টুপি মাথায় ইসলামের এ মেলায় শরিক হয়েছেন। ইজতেমা ময়দানে যতটুকু চোখ যায়, শুধু দেখা মিলে টুপি-পাঞ্জাবী পরা মুসুল্লিদের। মাথার ওপর চটের তাবু, নিচে সবুজ ঘাস।

বিশ্ব ইজতেমা উপলক্ষে বাংলাদেশ রেলওয়ে ও বিআরটিসি মুসুল্লিদের আনা-নেয়ার জন্য বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। গাজীপুর সিটি করপোরেশন তাদের নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় ইজতেমা মাঠের সংস্কার কাজ এবং সেবামূলক কার্যক্রম নিশ্চিত করেছে। বিশ্ব ইজতেমার সার্বিক কার্যক্রম মনিটরিংয়ের জন্য ইজতেমা মাঠে পাঁচটি কন্ট্রোল রুম স্থাপন করা হয়েছে। গাজীপুর সিটি করপোরেশন, গাজীপুর জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, র‌্যাব, আনসার ও ভিডিপির কন্ট্রোল রুম স্থাপন করা হয়েছে। সার্বিক নিরাপত্তার জন্য পুলিশ প্রশাসনের ১৫টি ওয়াচ টাওয়ার, র‌্যাবের ১০টি ওয়াচ টাওয়ার, মুসুল্লিদের জন্য ৩৫০টি অস্থায়ী শৌচাগার নির্মাণ, ওজু, গোসল, পয়ঃনিষ্কাশন ও সুপেয় পানি সরবরাহের লক্ষ্যে ১৩টি গভীর নলকূপ থেকে পানি সরবরাহের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। প্রতিদিন তিন কোটি ৫৪ লাখ গ্যালন সুপেয় পানি সরবরাহের ব্যবস্থাও রয়েছে। এ ছাড়া রয়েছে আকাশ ও নৌ-পথে পুলিশ, র‌্যাবের নিয়মিত টহল। নিরাপত্তা চাঁদরে ঘিরে ফেলা হয়েছে টঙ্গী শিল্পনগরী পুরো শহরটিকে।

দুই মুসল্লির মৃত্যু

এদিকে বিশ্ব ইজতেমায় যোগ দিতে আসা দুই মুসুল্লির মৃত্যু হয়েছে। তারা হলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মো. জব্বর আলী ওরফে রাজ্জাক (৪২) ও নাটেরের মোহাম্মদ আলী (৫৫)।

ধারণা করা হচ্ছে, তারা হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছিলেন। 

রাজধানীতে প্রাইভেটকার চালককে গুলি করে হত্যা বছরে ২ হাজার কোটি টাকার বৈদেশিক মুদ্রা আয় করছে মেরিন গ্রাজুয়েটরা রাজধানীতে বাসচাপায় বিইউপি শিক্ষার্থী নিহত রাতে সুনিদ্রার সহজ কিছু কৌশল সুখী হওয়ার ৫ উপায় কাব্য বিলাস মঞ্চায়ন করল ‘হইয়া গেল নির্বাচন’ ওবায়দুল কাদেরের বাইপাস সার্জারির বিষয়ে সিদ্ধান্ত মঙ্গলবার ডাকসুর প্রথম সভা ২৩ মার্চ সিডনিতে ‘বহুজাতিক বৈশাখী মেলা’ ১৩ এপ্রিল বিএনপির আরো ৫ নেতা বহিষ্কৃত ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে সজনে ডাটা স্তন ক্যান্সার শনাক্তকারী বক্ষবন্ধনী আবিষ্কার চট্টগ্রামে তিন নারী ছিনতাইকারী গ্রেপ্তার জিয়া ভোটের রাজনীতিকে সম্পূর্ণভাবে ধ্বংস করেছে: হাসিনা ট্রেনের ভাড়া বৃদ্ধির বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়নি: রেলমন্ত্রী নেদারল্যান্ডসে হামলাকারী তুরস্কের নাগরিক রাতে সিল মারা ঠেকাতে ব্যালট পেপার যাবে সকালে: ইসি সচিব ভুয়া মামলাকারীর বিরুদ্ধে চার্জশিট নাচের লড়াইয়ে মাধুরী-আলিয়া, জিতল কে? পুঁজিবাজার মন্দার প্রতিবাদে বিক্ষোভ ক্রাইস্টচার্চে নিহতদের জন্য দোয়া, মনোবিদের কথা ভাবছে বিসিবি টালিউডের সৃজিতকে বিয়ে করছেন মিথিলা! টেস্ট জিতে আফগানদের ইতিহাস ডাকাতের কবলে রোজী সিদ্দিকী শিষ্যদের রেখে ফিরে গেলেন রোডস-শ্রীনিবাসন বলিউডে কার অভিষেক হচ্ছে? বিদেশ সফরে নিরাপত্তার বিষয় সবার আগে: বিসিবি শ্রীলঙ্কায় দ্বি-পাক্ষিক সাইডলাইন বৈঠকে দুদক চেয়ারম্যান রাঙ্গামাটিতে ভোট শেষে গুলি, প্রিসাইডিং অফিসারসহ নিহত ৬ মাছের খামার করলেই নিবন্ধন