artk

স্বাস্থ্য-পুষ্টি ডেস্ক

মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী ১২, ২০১৯ ১২:৪২

আলঝেইমার্সে আক্রান্ত হতে না চাইলে

media

বয়স হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে শারীরিক কসরত করে যেতে পারলে শরীরের নানা কলকব্জা যেমন সক্রিয় থাকে, তেমনই শরীরের বিভিন্ন হরমোন ক্ষরণের মান ভালো থাকে। 

আবদুল খালেক বয়স ৮০ পেরিয়েছেন। এখন বাড়ি থেকে বেরোনো বলতে টুকটাক হাঁটাহাঁটি কিংবা বন্ধুদের সঙ্গে গল্পগুজবে যোগ দিতে যাওয়া। ফেরার পথে বাড়ির প্রয়োজনে টুকটাক কিছু কিনে ফিরতে বললেই শুরু হয় বিপত্তি। কিছুতেই মনে রাখতে পারেন না কী চাই! মাত্র দু’-তিনটে জিনিস হলেও ফর্দই ভরসা।

যদিও তার বন্ধু আনিসুর রহমান ৮৪ পেরিয়েও স্মৃতিশক্তিতে পাল্লা দিতে পারেন যে কোনো মধ্যবয়সীকে। ছোটবেলার পড়া কবিতা হোক বা আড্ডায় কবে কে কী বলেছিলেন— গড়গড় করে বলে দিতে পারেন একনাগাড়ে।

এমন বৈষম্য কেন হলো হঠাৎ? চার পাশের এমন অনেকেই থাকেন, বৃদ্ধ বয়সে পৌঁছনোর পরেও যাদের স্মৃতিশক্তি তরুণদের সঙ্গেই পাল্লা দেয়। বয়স পেরিয়ে গেলেও তাদের খুব একটা কাবু করতে পারে না আলঝেইমার্স।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রশ আলঝেইমার্স ডিজিস সেন্টারের গবেষকরা এবার খুঁজে বের করলেন এমন বিভেদের কারণ। আলঝেইমার্স বা স্মৃতিভ্রষ্ট হওয়ার অসুখের সঙ্গে যোগাযোগ খুঁজে পেলেন শারীরিক কসরতের। গবেষণায় অংশ নেয়া কয়েক জন অশীতিপর বৃদ্ধের জীবিত অবস্থায় জীবনশৈলীর প্রতি নজর রাখেন বিজ্ঞানীরা। মৃত্যুর পর দেহদান করেছিলেন তারা সকলেই। ফলে তাদের মস্তিষ্ক নিয়ে কাজ করা আরও সহজ হয়ে ওঠে। সেখান থেকেই বিজ্ঞানীরা বুঝতে পারেন মস্তিষ্ক সতেজ থাকার অন্যতম উপায় কী।

গবেষণার প্রধান এরোন এস বুচম্যানের কথায়, যে সব মানুষ বৃদ্ধ বয়সে পৌঁছনোর আগে থেকেই শারীরিক কসরতে অভ্যস্ত ছিলেন ও জীবনের শেষ পর্যায় পর্যন্ত তা শরীর বুঝে চালিয়ে গিয়েছেন, তাদের স্মৃতিশক্তির ধার বেশি। আলঝেইমার্স আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনাও তাদের ক্ষেত্রে অত্যন্ত কম।

এ দিকে যারা বয়স বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে সব রকম শারীরিক কসরত বন্ধ করে কেবলমাত্র শুয়ে-বসে দিন কাটিয়েছেন কিংবা শারীরিক অসুস্থতার জন্য ওঠা-হাঁটা বা ব্যায়ামে অপারগ ছিলেন, তাদের ক্ষেত্রে আলঝেইমার্স কোপ বসায় বেশি।

বয়স হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে শারীরিক কসরত করে যেতে পারলে শরীরের নানা কলকব্জা যেমন সক্রিয় থাকে, তেমনই শরীরের বিভিন্ন হরমোন ক্ষরণের মান ভালো থাকে। মস্তিষ্কের কোষও তাই তুলনামূলকভাবে বেশি সক্রিয় থাকে। স্নায়ু ও পেশিরা সক্রিয় থাকায় মস্তিষ্ককে ঠিক সময় ঠিক সিগন্যাল পাঠাতে সক্ষম হয় তারা। তাই ভুলে যাওয়ার সমস্যা কমে।

চিকৎসকদের মতে, অল্প বয়স থেকেই তাই নিয়মিত শরীরচর্চা করা উচিত। তা হলে স্নায়ু-পেশি-অস্থি এগুলি বরাবর সতেজ থাকে ও ব্যায়াম করার অনুকূল অবস্থায় থাকে। কাজেই স্মৃতিশক্তি কমে আসছে মনে হলে শরণ নিন শরীরচর্চার। সেখানেই লুকিয়ে মনে রাখার চাবিকাঠি।

যেভাবে জানবেন ভোটার নম্বর ও কেন্দ্র পদ ছাড়লেন আবদুল্লাহ, কাতারের নতুন প্রধানমন্ত্রী খালিদ টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতে মিসবাহ’র স্বস্তির নিঃশ্বাস করোনা আতঙ্ক: এবার তামাবিল স্থলবন্দরে মেডিকেল টিম গভীর রাতে নিরাপদে দেশে ফিরেছে ক্রিকেট দল রোমান সানাকে ল্যান্সনায়েক পদে সম্মানিত প্রধানমন্ত্রী ইতালি সফরে যাচ্ছেন ফেব্রুয়ারিতে করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণ করতে সরকার প্রস্তুত: স্বাস্থ্যমন্ত্রী দেনমোহর হিসেবে স্ত্রীর বই দাবি মৌলভীবাজার, হবিগঞ্জ ও ফেনীতে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৭ অস্ত্র মামলায় জেএমবি সদস্যের ১০ বছরের কারাদণ্ড ফখরুলের কাছে ভোট ও দোয়া চাইলেন আতিক নির্বাচন কমিশনে ১৪০ অভিযোগ তাবিথের ডেসটিনির এমডি রফিকুলের ৩ বছরের কারাদণ্ড অতি উজ্জ্বল একটি তারা কি বিস্ফোরিত হবে? মৌলভীবাজারে আগুনে পুড়ে একই পরিবারের ৫ জনের মৃত্যু সিনিয়র-জুনিয়র দ্বন্দ্বে সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে সংঘর্ষ ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে তীব্র যানজট ১০৫ নম্বরে এসএমএস পাঠালেই ভোটের তথ্য পুলিশে যোগ দিয়ে পরীমনির ‘স্বপ্ন পূরণ’ চীনে করোনাভাইরাসে মৃত্যু ১০৬ জনের বলিউডের ‘রোহিঙ্গা’ ছবিতে বাংলাদেশি মেয়ে বাণিজ্য মেলার সময় বাড়লো চার দিন সেনবাগে গ্রেপ্তারের পর ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত যুবক করোনাভাইরাস : চীন থেকে বাংলাদেশিরা ফিরতে পারবেন ১৪ দিন পর ১৫ লাখ টাকা শিক্ষাবৃত্তি দিবে এডুহাইভ মিষ্টি জাতীয় খাবার দাঁত ক্ষয় বাড়ায় খোলামেলা পোষাকে প্রিয়াঙ্কা সমালোচনায় নেটিজেনরা করোনা আতঙ্ক: হিলি ও বিরল স্থলবন্দরে মেডিকেল টিম গঠন ৩০ জানুয়ারি থেকে ৩ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বৈধ অস্ত্র বহন ও প্রদর্শনে নিষেধাজ্ঞা