artk
শনিবার, ডিসেম্বার ১৪, ২০১৯ ১১:২৪   |  ৩০,অগ্রহায়ণ ১৪২৬
মঙ্গলবার, ফেব্রুয়ারী ১২, ২০১৯ ১০:০০

মা‌নিকগ‌ঞ্জে তরুণী ধর্ষণ: ২ পুলিশ কর্মকর্তা গ্রেপ্তার

মানিকগঞ্জ সংবাদদাতা
media

এর আগে শ‌নিবার এ ঘটনায় মা‌নিকগঞ্জ পুলিশ সুপারের কাছে মৌ‌খিক অভিযোগ দায়েরের পর তাৎক্ষণিক ওই অভিযুক্ত দুই কর্মকর্তাকে পুলিশ লাইনে ক্লোজ করা হয়।

মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া থানার দুই পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে তরুণীকে ধর্ষণ ও জোর করে ইয়াবা সেবন করানোর অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পেয়েছে পুলিশের তদন্ত কমিটির সদস্যরা। এর পর ওই তরুণীর করা মামলায় তাদের গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

সোমবার (১১ ফেব্রুয়ারি) রাতে মামলাটি দায়ের করার পরই তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

মামলার আসামিরা হলেন-সাটুরিয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সেকেন্দার হোসেন ও সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) মাজহারুল ইসলাম।

এর আগে রোববার (১০ ফেব্রুয়ারি) পুলিশ সুপারের কাছে নির্যাতনের শিকার ওই তরুণী লিখিত অভিযোগ করেন। অভিযোগের ভিত্তিতে সোমবার সকালে মানিকগঞ্জ সদর সার্কেলের দায়িত্বে থাকা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হাফিজুর রহমান ও ডিএসবির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হামিদুর রহমান সিদ্দীকীকে নিয়ে ঘটনা তদন্তে একটি কমিটি করেন পুলিশ সুপার।

এর আগে শ‌নিবার এ ঘটনায় মা‌নিকগঞ্জ পুলিশ সুপারের কাছে মৌ‌খিক অভিযোগ দায়েরের পর তাৎক্ষণিক ওই অভিযুক্ত দুই কর্মকর্তাকে পুলিশ লাইনে ক্লোজ করা হয়।

মানিকগঞ্জ সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হাফিজুর রহমান জানান, তদন্ত কমিটির কাছে নির্যাতনের শিকার ওই তরুণী তার ওপর নির্যাতনের বর্ণনা দেন। দিনভর প্রাথমিক তদন্তে প্রমাণিত হয়েছে ওই তরুণী পুলিশ সুপারের কাছে যে অভিযোগ করেছেন তার সত্যতা রয়েছে।

এ ব্যাপারে ওই তরুণী সাটুরিয়া থানায় এসআই সেকেন্দার ও এএসআই মাজহারুলকে আসামি করে মামলার পর গ্রেপ্তার দেখানো হয়। মামলাটি তদন্ত করবেন সাটুরিয়া থানার (ওসি তদন্ত) আবুল কালাম আজাদ।

ধর্ষণের অভিযোগ প্রমাণের জন্য ওই তরুণীর মেডিক্যাল পরীক্ষাসহ প্রয়োজনে ডিএনএ টেস্ট করা হবে।

সাটুরিয়া থানার ওসি আমিনুর ইসলাম জানান, সাটুরিয়া থানার এসআই সেকেন্দার ও এএসআই মাজহারুলকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া উপ‌জেলায় এক তরুণীকে দুই দিন আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ উঠে সাটু‌রিয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সেকেন্দার হোসেন ও সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) মাজহারুল ইসলাসের বিরুদ্ধে।
অস্ত্রের মুখে ওই তরুণীকে মাদক সেবনেও বাধ্য করা হয়েছে বলে অভিযোগ করা হয়ে। এ সময় পাশের আরেকটি রুমে আটকে রাখা হয় তরুণীর খালাকে।

এ ঘটনায় মা‌নিকগঞ্জ পুলিশ সুপারের কাছে অভিযোগ দায়েরের পর তাৎক্ষণিক ওই অভিযুক্ত দুই কর্মকর্তাকে পুলিশ লাইনে ক্লোজ করা হয়ে।

নির্যাত‌নের শিকার ওই তরুণীর খালা জানায়, সাটুরিয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সেকেন্দার হোসেন আশুলিয়া থানায় কর্মরত থাকার সময় তার কাছ থেকে এক লাখ টাকা ধার নিয়ে জমি কেনে। জমি বিক্রির লাভের অংশ তাকে দেওয়ার কথা ছিল। সেই হিসাবে তিনি সেকেন্দার হোসেনের কাছে প্রায় তিন লাখ টাকা পাবে। কিন্তু টাকা শোধ না করে সেকেন্দার তাকে ঘুরাতে থাকে। সাটুরিয়া থানায় বদলি হওয়ার পরও তিনি সেকেন্দারের সঙ্গে যোগাযোগ করে।

এরই ধারাবাহিকতায় বুধবার সে তার এক ভাগ্নিকে (২০) সঙ্গে নিয়ে সাটুরিয়া থানায় যায়। সেখানে সেকেন্দার তাকে টাকা দেওয়া হবে জানিয়ে ডাকবাংলোতে নিয়ে যায়। সন্ধ্যার পর সাটুরিয়া থানার এএসআই মাজহারুলকে সঙ্গে নিয়ে ডাক বাংলোতে যায় সেকেন্দার।

তিনি আ‌রও জানান, সেখানে দুই পুলিশ কর্মকর্তা টাকা দিতে অস্বীকার করে উল্টো হুমকি দেন। পরে তারা ডাকবাংলোর একটি কক্ষে ইয়াবা সেবন করে ও তার ভাগ্নিকে জোর করে ইয়াবা সেবন করায়। তারা তার ভাগ্নিকে সারারাত আটকে রেখে ধর্ষণ করে। পরে বৃহস্পতিবার বিকেলে টাকা দেওয়ার কথা জানায় এসআই সেকেন্দার। এ জন্য দুই নারীকে বিকেল পর্যন্ত অপেক্ষা করতে বলা হয়। টাকার জন্য তারা ওই ডাকবাংলোতেই অপেক্ষা করে। বিকেল গড়িয়ে সন্ধ্যা হওয়ার পর ওই দুই কর্মকর্তা সেখানে পৌঁছায়। কিন্তু ওই সময়েও তাদের কোনো টাকা দেননি এসআই সেকেন্দার। বরং আগের রাতের মতোই তারা পাওনাদারের ভাগ্নিকে ধর্ষণ করে। পরে শুক্রবার সকালে পাঁচ হাজার টাকা হাতে দিয়ে তাদের বাড়ি পাঠিয়ে দেয় এসআই সেকেন্দার ও এএসআই মাজহারুল।

নির্যাতনের শিকার তরুণী বলেন, প্রতিবেশী খালার সঙ্গে তিনি সাটুরিয়া গিয়েছিল। তাদের সেদিনই ফিরে আসার কথা থাকলেও দুই পুলিশ কর্মকর্তা তাদের আটকিয়ে রাখে। তারা অস্ত্রের মুখে তাকে মাদক সেবন করানোর পর ধর্ষণ করে বলেও অভিযোগ করেন ভুক্তভোগী তরুণী। ওই সময় ঘটনা প্রকাশ করলে গুম করার হুমকিও দিয়েছে পুলিশ কর্মকর্তারা। শুক্রবার সকালে সেখান থেকে ছাড়া পাওয়ার পরে রোববার মানিকগঞ্জ পুলিশ সুপারের কাছে ওই দুই পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেন।

মূলধন কমেছে ৮৬৭৭ কোটি টাকা, সূচকেও পতন শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে জনতার ঢল টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ ইয়াবা কারবারি নিহত সা’দত আল-মাহমুদের দুটি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন ভিটামিন ডি-এর চাহিদা পূরণ করবেন কিভাবে? খুলনায় পাটকল শ্রমিকদের অনশন তিনদিনের জন্য স্থগিত মঙ্গলে অদ্ভূত অক্সিজেন বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা ভারতের নাগরিকত্ব আইনের সংশোধন চায় জাতিসংঘ শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস শনিবার, শ্রদ্ধা জানাতে প্রস্তুত স্মৃতিসৌধ বিশ্বে ক্ষমতাধর নারীর তালিকায় ২৯তম শেখ হাসিনা দণ্ডপ্রাপ্ত ব্যক্তিকে মুক্ত করা আইনের পরিপন্থী: গণপূর্তমন্ত্রী দৈনিক সংগ্রামের অফিসে ভাঙচুর, সম্পাদক পুলিশ হেফাজতে উত্তাল পরিস্থিতিতে শিলং সফর বাতিল করলেন অমিত শাহ ফিলিং স্টেশনে ৪ বছরে ৪৮ কোটি টাকার গ্যাস চুরি! ট্রাকের ধাক্কায় কবি নজরুল কলেজের শিক্ষার্থীর মৃত্যু ৪০ বছরের অভিজ্ঞতায় এত ভয়াবহ বার্ন দেখিনি: সামন্ত লাল শাজাহান খানের সম্পত্তির খোঁজ নেয়া উচিৎ: নিক্সন চৌধুরী ‘যত খুশি পেঁয়াজ নিয়া যান’ বীরগঞ্জে একসঙ্গে ২০ জোড়া এতিম তরুণ-তরুণীর বিয়ে ত্বকের যত্নে উপটান এনআরসি-সিএবি বিলের বিরুদ্ধে গণ-আন্দোলনের ডাক মমতার চাঁদপুরে গ্রাহকদের কোটি টাকা নিয়ে উধাও এনজিও জাপানের প্রধানমন্ত্রীও বাতিল করলেন ভারত সফর ২ মন্ত্রীর ভারত সফর বাতিলের কারণ জানালেন ওবায়দুল কাদের যুক্তরাজ্যে প্রথমবারের মতো এমপি সুনামগঞ্জের কন্যা আফসানা পাঞ্জাবি ও জ্যাকেটের পকেটে দুই কেজি স্বর্ণ খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে বিএনপির বিক্ষোভ সামুদ্রিক মাছে কাপড়ের রং মিশিয়ে বিক্রি নির্বাচনের ফল ব্রেক্সিটের জন্য শক্তিশালী ম্যান্ডেট: বরিস জনসন