artk
বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী ২১, ২০১৯ ৫:১০   |  ৯,ফাল্গুন ১৪২৫

গাজীপুর সংবাদদাতা

রোববার, ফেব্রুয়ারী ১০, ২০১৯ ৯:৪৬

পুরোদমে চলছে ইজতেমার প্রস্তুতি কাজ

media

টঙ্গীর তুরাগ নদীর তীরে পুরোদমে চলছে বিশ্ব ইজতেমার মাঠ প্রস্তুতির কাজ। শুক্রবার শুরু হচ্ছে চার দিনব্যাপী তাবলীগ জামাতের আন্তর্জাতিক জমায়েত বিশ্ব ইজতেমা।

১৫ ও ১৬ ফেব্রুয়ারি ইজতেমার কার্যক্রম পরিচালনা করবেন মাওলানা জোবায়েরের অনুসারীরা। ১৭ ও ১৮ ফেব্রুয়ারি ইজতেমার কার্যক্রম পরিচালনা করবেন সা’দপন্থী ওয়াসিফুল ইসলামের অনুসারীরা।

ইজতেমা আয়োজক কমিটির শীর্ষ মুরব্বিরা জানিয়েছেন, বুধবারের মধ্যে মাঠের সকল প্রস্তুতি কাজ শেষ করবেন। এখন ময়দানে বিশাল এলাকা জুড়ে প্যান্ডেল, খুঁটি ও মাঠের ভেতরে রাস্তার মেরামত কাজ চলছে। স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে দল বেঁধে খুঁটি, চট দিয়ে সামিয়ানা টানাচ্ছেন, বিদ্যুতের তার টানাচ্ছেন এবং বিদেশি মেহমানদের জন্য আলাদা মঞ্চসহ বয়ানমঞ্চ প্রস্তুত করছেন।

টঙ্গীর বিশ্ব ইজতেমা মাঠে স্বেচ্ছাশ্রমে কাজ করতে ঢাকার কেরানীগঞ্জ থেকে মুসল্লী মো. সেলিম মিয়া এসেছেন। তিনি বলেন, “আমি একজন চাকরিজীবী। ইজতেমা মাঠে কাজ করতে এসে আমি অনেক খুশি।”

তিনি বলেন, “আল্লাহর রাস্তায় এসে আমি অনেক কিছু শিখেছি। তাবলিগের ওসিলায় আমি জীবনের পরিবর্তন পেয়েছি। পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদায়, দ্বীনের রাস্তায় চলার মতো রাস্তা আল্লাহ আমাকে দেখিয়েছেন। আমি এখানে এসেছি, কারণ এ কাজটিই চিরস্থায়ী আর দুনিয়ার কাজ হচ্ছে ক্ষণস্থায়ী।”

গাজীপুর থেকে আসা মো. জুনায়েত বলেন, “১৪০ জনের একটি জামাত মাঠে কাজ করার জন্য চান্দনা চৌরাস্তা থেকে এসেছি।”

তিনি তাবলীগের সঙ্গে ছোটকাল থেকে জড়িত। ১৯৯৮ সাল থেকে বিশ্ব ইজতেমা মাঠ প্রস্তুত্তির কাজ করে আসছেন। 

তিনি বলেন, “বিশ্ব ইজতেমায় যোগ দেয়া মুসল্লিরা সুন্দরভাবে অবস্থান নিয়ে বয়ান শুনতে পারেন। ইজতেমা যাতে সফল এবং সুন্দরভাবে শেষ হয়। এবার মাঠ প্রস্তুতির কাজ শুরু করতে একটু দেরি হলেও আমরা চেষ্টা করছি কাজ সময় মতো শেষ করতে।”

বিশ্ব ইজতেমার বয়ান মঞ্চ তৈরি এবং সাফাই জামাতের জিম্মাদার ফকির আতাউর রহমান বলেন, “১০ জন সূরা সদস্যের তত্ত্বাবধানে বিভিন্ন জামাতে বিভক্ত হয়ে মাঠ প্রস্তুতের কাজ চলছে। প্রায় ২০ হাজার তাবলিগ জামাতের সাথি স্বেচ্ছাশ্রমে মাঠ প্রস্তুতের কাজ করছেন।”

তিনি বলেন, “বুধবারের মধ্যে মুসল্লিদের জন্য মাঠ প্রস্তুতের কাজ শেষ হবে। ইজতেমার আখেরি মোনাজাত হবে শনিবার।”

হাসপাতালে লাশের মিছিল রাসায়নিক কারখানা সরাতে মেয়রকে সহযোগিতা করা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী চকবাজারে আগুন: ৭৮ জনের মৃতদেহ উদ্ধার কান্না থামছে না কাওসারের ফুটফুটে দুই শিশুর রামপালে মৎস্যঘের কেটে খামারির ৩ লাখ টাকা ক্ষতি ভাষা আন্দোলন থেকে শিক্ষা নিলে দুর্নীতি বাসা বাঁধতো না: দুদক চেয়ারম্যান ভাষা আন্দোলন থেকে শিক্ষা নিলে দুর্নীতি বাসা বাঁধতো না ভাই হারানো এক প্রত্যক্ষদর্শীর বর্ণনায় চকবাজারের আগুন বঙ্গোপসাগরে ১ লাখ ইয়াবাসহ মিয়ানমারের ১১ নাগরিক আটক চকবাজারে আগুন: অভিযান সমাপ্ত চকবাজারে অগ্নিকাণ্ডে স্পিকারের শোক বর্তমান সরকার সব ক্ষেত্রে ব্যর্থ: ফখরুল চকবাজারে অগ্নিকাণ্ড: ফায়ার সার্ভিসের ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি ঘন কুয়াশায় শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী রুটে সাড়ে ৮ ঘণ্টা ফেরি বন্ধ চকবাজারে অগ্নিকাণ্ড: প্রয়োজনীয় সহায়তার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর সরকার যথাযথ ক্ষতিপূরণ দেবে: কাদের ঢামেকে ৫২ জন ভর্তি, আশঙ্কাজনক ২ জন মিটফোর্ডে ৭০ মৃতদেহ উদ্ধার, আরো থাকতে পারে: আইজিপি বৃহস্পতিবার অমর একুশে বিনম্র শ্রদ্ধায় ভাষা শহীদদের স্মরণ চকবাজারে ভয়াবহ আগুন, মৃতের সংখ্যা ৬৯ যুক্তরাষ্ট্রকে সতর্ক করে দিলেন পুতিন একুশ আমাদের মাথা নত না করা শিখিয়েছ: প্রধানমন্ত্রী শামীমা বেগমকে নিয়ে এত হইচই কেন? সৌদি-ভারত সম্পর্ক জিনগত: সৌদি যুবরাজ ১২ দেশে ১২ বার বিয়ে! মালয়েশিয়ায় অগ্নিকাণ্ডে বাংলাদেশিসহ ৬ জনের মৃত্যু খালেদা জিয়ার মুক্তি কবে? তোপের মুখে বিএনপি নেতারা ‘শত্রুর চোখে দেখলে সেই চোখ উপড়ে ফেলা হবে’ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫ শিক্ষার্থীকে সাময়িক বহিষ্কার