artk
বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী ২১, ২০১৯ ৫:০৬   |  ৯,ফাল্গুন ১৪২৫
বুধবার, ফেব্রুয়ারী ৬, ২০১৯ ১২:৩৮

প্রায় ১১ বছর কারাভোগ করছেন ‘ভুল আসামি’!

media

ছবি: সংগৃহিত

‘‘বাদলের মুক্তির বিষয় নিয়ে আমরা আলোচনা করেছি। আইন মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে কথা বলব। কীভাবে তাকে বের করা যায়, একটা উপায় বের করতে হবে।’

বাদল ফরাজি প্রায় ১১ বছর আগে ভারতে বেড়াতে গিয়ে গ্রেপ্তার হয়েছিলেন। তাকে বাদল সিং ভেবে একটি খুনের মামলায় অভিযুক্ত করে যাবজ্জীবন সাজা দেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশ সরকারের চেষ্টার পর গত বছরের জুলাইয়ে ভারত তাকে দেশে ফেরত পাঠালেও তিনি মুক্তি পাননি।

ভারতের আদালতে দণ্ডিত হওয়ায় তিনি কেরানীগঞ্জে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে সাজাভোগ করছেন।

গত সোমবার এই প্রতিবেদক কারা কর্তৃপক্ষের অনুমতি নিয়ে কারাগারে গিয়ে বাদল ফরাজির সঙ্গে কথা বলেন। বাদল বলেন, তিনি নির্দোষ বলেই বন্দিবিনিময় চুক্তির আওতায় দিল্লির তিহার জেল থেকে তাকে বাংলাদেশে ফেরত আনা হয়। তাকে জানানো হয়েছিল, যত দ্রুত সম্ভব মুক্ত করতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবে বাংলাদেশ সরকার। কিন্তু দেশে ফেরার সাত মাস হলেও মুক্তির কোনো লক্ষণ দেখছেন না। দাগি আসামিদের সঙ্গেই দিন পার করছেন তিনি।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান গণমাধ্যমকে বলেন, ‘‘বাদলের মুক্তির বিষয় নিয়ে আমরা আলোচনা করেছি। আইন মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে কথা বলব। কীভাবে তাকে বের করা যায়, একটা উপায় বের করতে হবে।’’

বাদল ফরাজি প্রায় ১১ বছর আগে শখের বশে তাজমহল দেখতে পর্যটক ভিসায় ভারতে যাচ্ছিলেন। বেনাপোল সীমান্ত পার হতেই বিএসএফ তাকে ‘বাদল সিং’ হিসেবে গ্রেপ্তার করে। বাদল সিং দিল্লির অমর কলোনির এক বৃদ্ধা খুনের মামলার আসামি। ওই সময় তিনি ইংরেজি বা হিন্দি বলতে না পারায় বিএসএফকে সঠিক বিষয়টি বোঝাতে পারেননি। ফলে তাকে কারাগারে পাঠাতে হয়। কারাগারেই তিনি মাধ্যমিক, উচ্চমাধ্যমিক ও স্নাতক পাস করেন। একপর্যায়ে কারাগারে ইংরেজির শিক্ষকতা শুরু করেন। সহবন্দীদের ইংরেজি শেখাতেন। স্নাতকের পর আটটি ডিপ্লোমা কোর্সও করেন। বাগেরহাটের ছেলে বাদল গ্রেপ্তার হয়েছিলেন ১৮ বছর বয়সে, এখন তার বয়স ২৯।

ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের সাক্ষাৎকক্ষের দ্বিতীয় তলায় কথা বলার একপর্যায়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন বাদল। তিনি অনর্গল ইংরেজি ও মাঝে মাঝে ভাঙা বাংলায় কথা বলছিলেন। হতাশা প্রকাশ করে বলেন, ‘‘মাতৃভূমিতে ফেরার ডাক পেয়ে আমি আর অপেক্ষা করতেও চাইলাম না। কিন্তু দেশে আসার সাত মাস হলেও মুক্তি পাওয়ার কোনো লক্ষণ দেখছি না। মা হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছেন। মাকে দেখতে পাই না। আগে মন্ত্রণালয় থেকে আমার কাছে অনেকে আসতেন, এখন কেউ আসে না। আমি পত্রিকায় পড়েছি, সরকারের অনেকে বারবার বলছে আমি নির্দোষ। তাহলে কেন তারা আমাকে কারাগারে রেখেছেন?’’

একটা নির্দোষ ছেলেকে কেন আটকে রাখা হয়েছে, এ প্রশ্নের জবাবে কারাধ্যক্ষ মাহবুবুল ইসলাম বলেন, “ভারতের আদালতের রায়ে খুনের দায়ে তার সাজা হয়েছে। এখন দেশে ফিরলেও তাকে বাকি সাজা খাটতে হবে।

বাকি সাজা বলতে আর কত দিন, জানতে চাইলে উপকারাধ্যক্ষ আমিরুল ইসলাম বলেন, ভারতের প্যানাল কোড অনুযায়ী, বাদলের সাজা ১৪ বছর আর বাংলাদেশের আইন অনুযায়ী ৩০ বছর। এখন কোন আইনে তার সাজা কার্যকর হবে, তা এখনো স্পষ্ট হয়নি। তবে তিনি যে নির্দোষ, সে বিষয়টি হয়তো স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবেচনায় রয়েছে।

হাসপাতালে লাশের মিছিল রাসায়নিক কারখানা সরাতে মেয়রকে সহযোগিতা করা হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী চকবাজারে আগুন: ৭৮ জনের মৃতদেহ উদ্ধার কান্না থামছে না কাওসারের ফুটফুটে দুই শিশুর রামপালে মৎস্যঘের কেটে খামারির ৩ লাখ টাকা ক্ষতি ভাষা আন্দোলন থেকে শিক্ষা নিলে দুর্নীতি বাসা বাঁধতো না: দুদক চেয়ারম্যান ভাষা আন্দোলন থেকে শিক্ষা নিলে দুর্নীতি বাসা বাঁধতো না ভাই হারানো এক প্রত্যক্ষদর্শীর বর্ণনায় চকবাজারের আগুন বঙ্গোপসাগরে ১ লাখ ইয়াবাসহ মিয়ানমারের ১১ নাগরিক আটক চকবাজারে আগুন: অভিযান সমাপ্ত চকবাজারে অগ্নিকাণ্ডে স্পিকারের শোক বর্তমান সরকার সব ক্ষেত্রে ব্যর্থ: ফখরুল চকবাজারে অগ্নিকাণ্ড: ফায়ার সার্ভিসের ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি ঘন কুয়াশায় শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী রুটে সাড়ে ৮ ঘণ্টা ফেরি বন্ধ চকবাজারে অগ্নিকাণ্ড: প্রয়োজনীয় সহায়তার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর সরকার যথাযথ ক্ষতিপূরণ দেবে: কাদের ঢামেকে ৫২ জন ভর্তি, আশঙ্কাজনক ২ জন মিটফোর্ডে ৭০ মৃতদেহ উদ্ধার, আরো থাকতে পারে: আইজিপি বৃহস্পতিবার অমর একুশে বিনম্র শ্রদ্ধায় ভাষা শহীদদের স্মরণ চকবাজারে ভয়াবহ আগুন, মৃতের সংখ্যা ৬৯ যুক্তরাষ্ট্রকে সতর্ক করে দিলেন পুতিন একুশ আমাদের মাথা নত না করা শিখিয়েছ: প্রধানমন্ত্রী শামীমা বেগমকে নিয়ে এত হইচই কেন? সৌদি-ভারত সম্পর্ক জিনগত: সৌদি যুবরাজ ১২ দেশে ১২ বার বিয়ে! মালয়েশিয়ায় অগ্নিকাণ্ডে বাংলাদেশিসহ ৬ জনের মৃত্যু খালেদা জিয়ার মুক্তি কবে? তোপের মুখে বিএনপি নেতারা ‘শত্রুর চোখে দেখলে সেই চোখ উপড়ে ফেলা হবে’ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫ শিক্ষার্থীকে সাময়িক বহিষ্কার