artk
মঙ্গলবার, মে ২১, ২০১৯ ১১:৫৭   |  ৭,জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

ফিচার ডেস্ক

বুধবার, জানুয়ারি ৩০, ২০১৯ ৯:৩৬

কাগজের ব্যাগ কি পরিবেশবান্ধব?

media

কাগজের ব্যাগের জনপ্রিয়তা ছিল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে, কিন্তু ১৯৭০ সালের পর আরো টেকসই উপাদান হিসেবে প্লাস্টিকের ব্যবহার শুরুর পর থেকে সেগুলো তার জায়গা হারিয়ে ফেলে।

কিন্তু প্রশ্ন হলো, কাগজের ব্যাগ কি প্লাস্টিকের ব্যাগের চাইতে বেশি পরিবেশ বান্ধব?

উত্তরগুলো এভাবে খুঁজে দেখা যেতে পারে:

- এসব ব্যাগ উৎপাদনে কোন ক্ষেত্রে কত শক্তি ব্যবহার করা হয়?

- ব্যাগটি কতটা টেকসই বা বলা যেতে পারে যে এটি কতবার পুনঃব্যবহার করা যায়?

- ব্যবহার শেষে ফেলে দেবার পর কত দ্রুত এটি পচে যাবে?

চারগুণ বেশি শক্তি

উত্তর আয়ারল্যান্ডের ২০১১ সালের একটি গবেষণায় বলা হচ্ছে যে, 'একটি প্লাস্টিক ব্যাগ উৎপাদনের চাইতে অন্তত ৪গুণ বেশী শক্তি প্রয়োজন একটি কাগজের ব্যাগ তৈরিতে।'

এছাড়াও প্লাস্টিক ব্যাগের বিপরীতে কাগজের ব্যাগ তৈরিতে উজাড় হয় বনভূমি।

গবেষণাটিতে আরো উল্লেখ করা হয় যে, প্রতি এক একটি প্লাস্টিক ব্যাগ তৈরির তুলনায় কাগজের ব্যাগ উৎপাদনের সময় অত্যন্ত বিষাক্ত রাসায়নিক বর্জ্যও তৈরি হয়।

এর বাইরে কাগজের ব্যাগের ওজন বেশী হয় প্লাস্টিকের তুলনায়। সুতরাং এটি পরিবহনে প্রয়োজন আরো বেশি শক্তি, ফলে কার্বন উৎসরনের হারও বেশি- গবেষণা তেমনটাই নির্দেশ করে।

সুপারমার্কেট মরিসন বলছে যে, তারা যেসব কাগজের ব্যাগ ব্যবহার করছে তা শতভাগ বনের উপাদান থেকেই উৎপন্ন।

কেটে ফেলা গাছগুলির পরিবর্তে যদি দ্রুত নতুন বনায়ন করা সম্ভব হয় তবে তা জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবকে বন্ধ করতে সহায়তা করবে, কেননা গাছ বায়ুমণ্ডল থেকে কার্বন শুষে নেয়।

২০০৬ সালে, এনভায়রনমেন্ট এজেন্সি একটি সমীক্ষা চালিয়েছিল। বৈশ্বিক উষ্ণায়ণের নিয়ামক খুঁজতে তারা দেখতে চেয়েছিল যে একটি ব্যাগ কতবার ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

পরীক্ষায় দেখা যায় যে, কাগজের তৈরি ব্যাগগুলো অন্তত ৩ বার পুন:ব্যবহার করা দরকার, প্লাস্টিকের ব্যাগের তুলনায় তা একবার কম।

অন্যপক্ষে দেখা গেছে, কাপড়ের তৈরি ব্যাগ সবচেয়ে বেশি ব্যবহার করা হয়, সংখ্যাটি ১৩১। তুলা থেকে সুতা উৎপাদনে যে বিশাল শক্তি ক্ষয় হয় এটি তাকে কিছুটা লাঘব করে।

কিন্তু কাগজের ব্যাগ যদি সবচেয়ে কম বার ব্যবহার উপযোগী হয়, তবে কি এটি সুপারমার্কেটে টিকে থাকবে?

বিশেষ করে ভিজে গেলে কাগজের ব্যাগের ব্যবহার উপযোগিতা যেখানে দ্রুত কমে যায়।

তাই এনভায়রনমেন্ট এজেন্সি তাদের গবেষণার উপসংহারে বলছে, কাগজের ব্যাগের টিকে থাকার অযোগ্যতার কারণেই তার পুনঃব্যবহার কম হয়ে থাকে।

যদিও প্লাস্টিক ব্যাগের চাইতে কাগজের ব্যাগের পুনঃব্যবহার হার কম, তবুও 'মরিসন' এটি ব্যবহারে জোড় দিচ্ছে। তাদের মতে কিভাবে বা কি উপায়ে ব্যাগটি ব্যবহার করা হবে সেটিও গুরুত্বপূর্ণ।

কাপড়ে ব্যাগ উৎপাদনে সবচেয়ে বেশী কার্বন নিঃসরণ সত্ত্বেও এটি সবচেয়ে টেকসই এবং দীর্ঘস্থায়ী।

তবে, স্থায়িত্ব সবচেয়ে কম হলেও কাগজের ব্যাগ প্লাস্টিকের তুলনায় প্রকৃতিতে দ্রুত পচনশীল।

এছাড়া, কাগজ অনেক বেশী পরিমাণে রিসাইকেল করা হয়ে থাকে। যেখানে প্রকৃতিতে মিশে যেতে একটি প্লাস্টিকের তৈরি ব্যাগের ৪০০ থেকে হাজার বছর পর্যন্ত সময় লাগতে পারে।

সুতরাং, কোনটি সেরা?

একবার ব্যবহার উপযোগী প্লাস্টিক ব্যাগের তুলনায় কাগজের ব্যাগগুলি কিছু কম পুন:ব্যবহার প্রয়োজন। কেননা এটি অনেক বেশী পরিবেশ বান্ধব।

অন্যদিকে কাগজের ব্যাগ অন্যান্য উপকরণের ব্যাগের চাইতে কম টেকসই হয়। তাই গ্রাহক যদি এটি একবারের বেশী ব্যবহার না করেন, তবে তার প্রভাব প্রকৃতিতে ভীষণভাবে পরবে।

নর্থহ্যাম্পটন ইউনিভার্সিটির টেকসই বর্জ্য ব্যবস্থাপনার অধ্যাপক মার্গারেট বেটস বলছেন যে, বহন উপযোগী ব্যাগ কি উপাদানে তৈরি সেটি মূল বিষয় নয়। আসল ব্যাপার হলো ব্যাগটি কতবার ব্যবহার করা হচ্ছে।

তার মতে, বেশিরভাগ মানুষই সপ্তাহের বাজার করতে সুপারমার্কেটে আসার সময় পুনরায় ব্যবহার উপযোগী ব্যাগটি নিয়ে আসতে ভুলে যায়। ফলাফল, আরো নতুন ব্যাগ সে কিনে নিয়ে যায়।

সুতরাং, কাগজ, প্লাস্টিক বা কাপড়ের তৈরি ব্যাগ বড় কথা নয়। অধ্যাপক বেটস বলছেন, একটি ব্যাগের পুন পুন ব্যবহারই পরিবেশের ওপর সবচেয়ে বড় প্রভাব রাখতে পারে।

পুলিশের ডিম ভাঙার তদন্ত শেষ, ওসিকে প্রত্যাহার সন্তানকে হাসপাতালে রেখে উধাও ‘বাবা-মা’ গণমাধ্যম ও সুশীল সমাজ গণতন্ত্রের বিকাশে ভূমিকা রাখছে: স্পিকার রকেটের চেয়েও দ্রুত গতিতে জাল বুনে মাকড়সা! জামিনে কারামুক্ত হলেন বিএনপি নেতা রবি দেশজুড়ে বিড়ি ভোক্তাদের বিক্ষোভ, কর প্রত্যাহারের দাবি প্রভাবশালীদেরও আইনের মুখোমুখি হতে হচ্ছে: দুদক চেয়ারম্যান ভারতে নাগা জঙ্গিদের হাতে বিধায়কসহ নিহত ১১ যতদিন সিগারেট থাকবে ততদিন বিড়ি রাখার দাবি ভোক্তাদের বকেয়া মজুরি পরিশোধের শর্তে পাটকলশ্রমিকদের আন্দোলন স্থগিত রানার শেয়ারে দর বেড়েছে ৩৩ শতাংশ ৬৮ বছরের বৃদ্ধকে বিয়ে করছেন সেলেনা! ইভিএমে কারচুপি নিয়ে শঙ্কিত ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি বগুড়া উপনির্বাচন বর্জনের ঘোষণা বাম জোটের ছুটিতে ঘুরে বেড়াচ্ছেন সাকিব-মুশফিকরা আত্মহত্যা প্ররোচনার মামলায় ৫ জনের ১৩ বছর কারাদণ্ড পুঁজিবাজারে সূচকের পতন ২ লাখ কোটি টাকার এডিপি অনুমোদন পাঁচ সিনিয়রের বাইরে তরুণদের পারফরম্যান্সে দারুণ খুশি টাইগার কোচ বাংলাদেশে বিনিয়োগ আকর্ষণে ইতালির ফ্লোরেন্সে সেমিনার অনুষ্ঠিত রুমিন ফারহানাই হচ্ছেন বিএনপির নারী আসনের সাংসদ নকল পণ্যের জন্য এমএম প্লাস্টিককে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা কারাগারে আদালত স্থানান্তরের প্রজ্ঞাপন প্রত্যাহার চেয়ে আইনি নোটিশ আইসিডিডিআরবি, বুয়েট, ঢাবি ল্যাবে ওয়াসার পানি পরীক্ষার নির্দেশ পাকিস্তানিদের ভিসা বন্ধ করা হয়নি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী সারাদেশের পাস্তুরিত দুধ পরীক্ষার নির্দেশ আদালতের কেরানীগঞ্জ কারাগারে আদালত স্থাপন সংবিধান পরিপন্থী: মওদুদ কান উৎসবে আবারো নজর কাড়লেন ঐশ্বরিয়া সহকর্মী ধর্ষণের দায়ে প্রধান শিক্ষকের যাবজ্জীবন স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণকারী পুলিশ সদস্য কারাগারে