artk
মঙ্গলবার, জুলাই ২৩, ২০১৯ ৩:৫০   |  ৭,শ্রাবণ ১৪২৬
বুধবার, জানুয়ারি ২৩, ২০১৯ ১২:৫৬

ত্বকের জন্য যে অভ্যাসগুলো ক্ষতিকর

লাইফস্টাইল ডেস্ক
media
ঘন ঘন ব্লিচ বা স্ক্রাবিং ত্বককে ফর্সা তো করেই না, উল্টো ত্বককে কালচে করে দেয়।

শীতে শুষ্ক আবহাওয়ার কারণে ত্বক হয় মলিন ও নিষ্প্রাণ। তা সাথে ত্বকের উজ্জ্বলতাও একেবারেই কমে যায়। কিন্তু সব পরিবর্তনই আবহাওয়ার জন্য হয় না। নিজেদের কিছু ভুল অভ্যাসের কারণে ধীরে ধীরে স্থায়ী ভাবে ত্বক নষ্ট হয়। জেনে নিন সে অভ্যাসগুলো কী কী?

ধূমপান

ত্বকের যত্নের পথে সবচেয়ে বড় বাধা ধূমপান। শুধু হৃদরোগ বা ফুসফুসের ক্যান্সার না ত্বকেরও অনেক ক্ষতি করে সিগারেটের নিকোটিন। এছাড়া সিগারেটের কার্বন মনো অক্সাইড ত্বকে অক্সিজেন পৌঁছনোর পথেও বাধা হয়ে দাঁড়ায়। ফলে ত্বক শুষ্ক হয় দ্রুত।

তেল-মসলা

খাবারের সঙ্গে শরীরে প্রবেশ করা তেল-মসলার পরিমান কমাতে না পারলে ত্বকের ক্ষতি প্রতিরোধ প্রায় অসম্ভব। শরীরের অতিরিক্ত তেল ত্বকের কোষের মুখগুলোকে আটকে দেয়। এর প্রভাবে ব্রণ হয় অনেক বেশি।

ব্লিচ ও স্ক্রাব

ত্বকের রং ফর্সা করার জন্য ব্লিচ ও স্ক্রাব করান অনেকেই। কিন্তু গায়ের রং বদলানো একেবারেই অসম্ভব। তাই ব্লিচ বা স্ক্রাবিংয়ে ফর্সা হওয়ার কোনো উপায় নেই। বরং বয়স ৪০ হওয়ার আগে ব্লিচ করার প্রয়োজন হয় না। আর করলেও তা ত্বকের অবস্থার উপর নির্ভর করে করানোই বুদ্ধিমানের কাজ। ঘন ঘন ব্লিচ বা স্ক্রাবিং ত্বককে ফর্সা তো করেই না, উল্টো ত্বককে কালচে করে দেয়।

গরম পানি

সারা শীতকাল জুড়ে গরম পানিতে মুখ পরিষ্কার করছেন নিশ্চয়ই। গরম পানি ত্বকের স্বাভাবিক আর্দ্রতাকে নষ্ট করে ও ত্বকের প্রয়োজনীয় তেল কমিয়ে দেয়। ফলে চামড়া ভাজ পড়া ও ত্বক রুক্ষ হওয়া সবচেয়ে বেশি হয় গরম পানির কারণে।

ইচ্ছামতো ওষুধ

চিকিৎসকের পরামর্শ না মেনে ইচ্ছামতো ওষুধ খাওয়া শরীরের জন্য তো খারাপই, ত্বকের জন্যও খুব ক্ষতিকর। আপনার ত্বকের জন্য ক্ষতিকর কিনা তা না জেনে একেবারেই ওষুধ খাওয়া যাবে না। প্রসাধনী বিজ্ঞাপন দেখেই বা অন্য কারো কথা শুনেই প্রসাধন কেনা উচিত নয়। প্রত্যেকের ত্বকের প্রকৃতি আলাদা হয় তাই না জেনে প্রসাধনী ব্যবহার করা উচিত নয়। তাই প্রসাধনী কেনার আগে রূপবিশেষজ্ঞদের পরামর্শ নিন।

ছেলেধরা সন্দেহে কুষ্টিয়ায় ৮ ঘণ্টায় ৬ জনকে গণপিটুনি সন্দেহ হলে গণপিটুনি নয়, ৯৯৯ এ জানাতে পরামর্শ বন্যায় দেওয়ানগঞ্জে রেল লাইনের মাটি ধসে গেছে বন্যার্তদের পাশে বিএনপির ৫ টিম প্রিয়া সাহার এনজিও থেকে একযোগে ২৫ সদস্যের পদত্যাগ চার কারণে এসিড সন্ত্রাস কমেছে শিবপুরের ইউএনওকে লিগ্যাল নোটিশ পরিচ্ছন্ন রাজশাহীর প্রশংসা ভারতীয় হাইকমিশনারের ছেলেধরা সন্দেহে পাঁচ জেলায় ১৫ জনকে গণপিটুনি হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ থেকে বরখাস্ত প্রিয়া সোমালিয়ায় হোটেলের সামনে বোমা হামলা, নিহত ১৭ ১৭ মার্কিন গুপ্তচরকে গ্রেপ্তার করে কয়েকজনকে ফাঁসিতে ঝুলিয়েছে ইরান প্রিয়া সাহা বিভ্রান্তিমূলক ও নীতি গর্হিত বক্তব্য দিয়েছেন: বারকাত প্রায় দেড়শ গ্রামে জন্ম নিচ্ছে না কোনো কন্যাসন্তান শর্তসাপেক্ষে কপারটেক ইন্ডাস্ট্রিজকে তালিকাভুক্তির অনুমোদন কলকাতার রাস্তায় শ্লীলতাহানির শিকার অভিনেত্রী প্রণোদনার ৮৫ কোটি ৬৩ লাখ টাকা ছাড়ে চিঠি শ্রীলঙ্কায় গেলেন সাব্বির-বিজয়-মিঠুনরা গণপিটুনি বিএনপি-জামায়াতের নিখুঁত পরিকল্পনা: আইনমন্ত্রী স্ত্রী দোষ করলে স্বামী কেন তার দায় নেবেন: কাদের ফিলিস্তিনিদের ঘরবাড়ি ভেঙে ফেলছে ইসরায়েল এখন থেকে এক ক্লিকেই অনুমোদন ইসরায়েলের বিরুদ্ধে লড়াই ছাড়া বিজয় আসবে না কোহলিদের কোচ হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে কারস্টেন, মুডি, মাহেলা ব্যারিস্টার সুমনের বিরুদ্ধে যে অভিযোগে মামলা ব্যবসায়ী নূর আলীকে দুদকে তলব ব্যাংকারদের সক্ষমতা বাড়ানোর ওপর জোরারোপ পাকিস্তান ক্রিকেট দলকে ঢেলে সাজাচ্ছেন ইমরান খান! সৈয়দ মঞ্জুরের নেতৃত্বে বিএনপির শতাধিক নেতাকর্মীর জাপায় যোগদান জাতিসংঘের আবাসিক প্রতিনিধি ডেঙ্গুতে আক্রান্ত