artk
বৃহস্পতিবার, মার্চ ২১, ২০১৯ ১২:২৯   |  ৬,চৈত্র ১৪২৫

লাইফস্টাইল ডেস্ক

রোববার, জানুয়ারি ১৩, ২০১৯ ৮:৪৮

কমোডের চেয়েও বেশি জীবাণু স্মার্টফোনে

media
পরিবেশবিজ্ঞানীদের মতে, সর্বত্র ব্যবহারের ফলে মোবাইল হয়ে উঠছে জীবাণুর অন্যতম বাহক। শিশুরা হাত এবং যে-কোনো জিনিস বারবার মুখে দেয়। তাই ওদের মোবাইল দেয়া উচিত নয়। 

দেশে টয়লেটের অভাব থাকতে পারে, কিন্তু মোবাইল ফোনের অভাব নেই। হাটেবাজারে, মাঠেঘাটে, এমনকি টয়লেটেও মোবাইল নিয়ে যাওয়া এখন নেশায় পরিণত হয়েছে। প্রযুক্তির ওপরে এই নির্ভরতায় যোগাযোগ হয়তো নিবি়ড় হয়েছে। কিন্তু জনস্বাস্থ্য বিজ্ঞানীরা বলছেন, মোবাইলের বদৌলতে বাড়ছে জীবাণুঘটিত সংক্রমণের বিপদও।

সম্প্রতি বিদেশের বিভিন্ন সমীক্ষায় উঠে এসেছে, উন্নত দেশের নাগরিকদের স্মার্টফোনে লেগে থাকা জীবাণুর পরিমাণ নাকি টয়লেটের কমোডের চেয়েও বেশি। সেইসব জীবাণুর মধ্যে রয়েছে ‘ই কোলাই’সহ নানা ধরনের রোগ সৃষ্টিকারী ব্যাক্টেরিয়াও। এ দেশে এমন সবিস্তার সমীক্ষা এখনও হয়নি। তবে নাগরিক অভ্যাস যে পথে হাঁটছে, তাতে এখানেও সমীক্ষা করলে ফলাফল একই, বড়জোর ঊনিশ-বিশ হতে পারে বলে মনে করছেন বিজ্ঞানীরা। ২০১১ সালে লন্ডন স্কুল অব হাইজিন এবং ট্রপিক্যাল মেডিসিনের সমীক্ষায় ধরা পড়েছিল, সে দেশে প্রতি ছয়টি মোবাইলের মধ্যে একটিতে ফিক্যাল ব্যাক্টেরিয়া (মল থেকে উৎপন্ন) রয়েছে। সেই সঙ্গে পাওয়া গিয়েছিল ই-কোলাইয়ের মতো ব্যাক্টেরিয়াও। 

জনস্বাস্থ্য বিজ্ঞানী এবং পরিবেশবিদদের অনেকেই বলছেন, তরুণ প্রজন্ম মোবাইল নিয়ে সর্বত্র যাতায়াত তো করছেই। অনেকে বাড়ির একেবারে খুদে সদস্যকে ভোলাতেও হাতে মোবাইল ধরিয়ে দিচ্ছেন। সেই শিশুটি মোবাইল মুখেও দেয়। খেতে খেতে অনেকে কথা বলেন মোবাইলে, খাবার টেবিলেও মোবাইল রেখে দেন। দু’টোই সমান বিপজ্জনক। 

পরিবেশবিদদের মতে, শৌচাগারে গেলে ভালোভাবে সাবান দিয়ে হাত-পা-মুখ ধুতে বলা হয়। কিন্তু মোবাইল তো আর ধোয়া যায় না। তার ওপরে স্মার্টফোনে ‘কভার’ থাকে। মোবাইল ফোন যদিও বা মুছে নেয়া যায়, কিন্তু আবরণের আড়ালে তো রুমাল পৌঁছায় না।

ব্রিটেনের অ্যাবারডিন বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যাক্টেরিয়োলজির অধ্যাপক হিউ পেনিংটনের মতে, মোবাইল দিনের মধ্যে বহু বার শরীরের সংস্পর্শে আসে। তাই সংক্রমণের আশঙ্কা বাড়ে। 

কলকাতার অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অব পাবলিক হেল্‌থ অ্যান্ড হাইজিনের বিজ্ঞানী মধুমিতা দুবে বলছেন, টয়লেট থেকে বেরিয়ে ঠিকমতো হাত না-ধুলে বা টয়লেটে মোবাইল নিয়ে গেলে তার মাধ্যমে নানা ধরনের ক্ষতিকর ব্যাক্টেরিয়া ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা থাকে। সব সময় হয়তো সঙ্গে সঙ্গে রোগ দেখা দেবে না। কিন্তু বিপদের আশঙ্কা থেকেই যায়।

তার কথায়, মোবাইলের ব্যবহার তো বন্ধ করা যাবে না। তবে বিপদ রুখতে নিয়ম করে হাত-পা-মুখ ধোয়ার মতো স্বাস্থ্য-সচেতনতা জরুরি।

জনস্বাস্থ্য ও পরিবেশবিজ্ঞানীদের মতে, সর্বত্র ব্যবহারের ফলে মোবাইল হয়ে উঠছে জীবাণুর অন্যতম বাহক। শিশুরা হাত এবং যে-কোনো জিনিস বারবার মুখে দেয়। তাই ওদের মোবাইল দেয়া উচিত নয়। 

অ্যাসিনেটোব্যাক্টর, সিউডোমোনাস, স্টেফাইলোকক্কাসের মতো ব্যাক্টেরিয়া এভাবে বেশি ছড়ায়। আমজনতা, চিকিৎসক— সোইকেই এই বিষয়ে আরো সচেতন হওয়া জরুরি। শুধু শিশু নয়, এই জীবাণু সব বয়সের মানুষেরই ক্ষতি করতে পারে।

এক নারীকে ধাক্কা দিয়ে বাস নিয়ে পালাচ্ছিলেন চালক ‘গাঁজা না খেয়ে গাড়ি চালাতে পারেন না সু-প্রভাত চালক সিরাজুল’ শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে বিএনপির ‘পূর্ণ সমর্থন’ আন্দোলনকারী দুই ছাত্রীর ওপর গাড়ি উঠিয়ে দিলেন জবি শিক্ষক সুপ্রভাত ও জাবালে নূরের সব বাস নিষিদ্ধ প্রাথমিকে তৃতীয় শ্রেণি পর্যন্ত পরীক্ষা থাকছে না একই বিমানের পাইলট মা-মেয়ে, ছবি ভাইরাল বেনাপোলে ভারতীয় ট্রাকসহ পণ্য জব্দ বিশ্বের সবচেয়ে সস্তা শহর কোনটি? সন্তানকে চৌকিদার বানাতে চাইলে মোদিকে ভোট দিন আর্ন্তজাতিক বাণিজ্যে বেসরকারি ব্যাংকের আধিপত্য খালেদা জিয়ার মানহানির দুই মামলায় অভিযোগ গঠন ১৫ এপ্রিল ত্রিশে পা দিলেন তামিম ইকবাল, আইসিসির শুভেচ্ছা ৩৭তম বিসিএসে নিয়োগ পেলেন ১ হাজার ২২১ জন আইসিসি বিশ্বকাপে কাউকে ভয় করবে না আফগানরা: রশিদ খান আইপিএলের আগেই পুরোপুরি ফিট সাকিব পুঁজিবাজারে সূচক পতনসহ কমেছে লেনদেন হোটেলের বিল দেখে পালালেন অভিনেত্রী সুপ্রভাত বাস চালকের ৭ দিনের রিমান্ড সাবেক প্রেমিকের গালে দীপিকার চুমু! ‘রাজধানীতে অধিকাংশ দুর্ঘটনার জন্য দায়ী বেপরোয়া বাস চালনা’ ভারতের বিরুদ্ধে ঘুরে দাঁড়াতে পারলো না মেয়েরা হয়তো এটাই আমার শেষ বক্তব্য: জন্মদিনে এরশাদ ২৮ মার্চ পর্যন্ত বিইউপি শিক্ষার্থীদের আন্দোলন স্থগিত জমি নিয়ে বিরোধে ব্যবসাীয়কে হত্যা: ১৫ আসামির মৃত্যুদণ্ড দুদক মহাপরিচালক মুনির চৌধুরীকে বদলিতে র‌্যাকের প্রতিবাদ বঙ্গবন্ধুর জন্ম অনুষ্ঠান তৃণমূল পর্যায়ে ছড়িয়ে দিতে চাই: প্রধানমন্ত্রী জাহালমকে নিয়ে চলচ্চিত্র-নাটক নির্মাণে নিষেধাজ্ঞা সময় থাকতে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিন: ফখরুল ওবায়দুল কাদেরের বাইপাস সার্জারি সম্পন্ন