artk
বৃহস্পতিবার, জানুয়ারি ২৪, ২০১৯ ৯:১৯   |  ১১,মাঘ ১৪২৫

নাটোর সংবাদদাতা

সংবাদ ডেস্ক

শনিবার, জানুয়ারি ১২, ২০১৯ ১:৪০

নাটোরে যুবক খুন, স্ত্রী আটক

media

ছবি প্রতীকী

স্ত্রী রুমা খাতুন দাবি করেন, অতিরিক্ত যৌন নির্যাতন সইতে না পেরে তিনি স্বামীর যৌনাঙ্গ কেটে ফেলেছেন। 

নাটোরের গুরুদাসপুরে এক যুবক খুন হয়েছেন। এ ঘটনায় স্ত্রীকে আটক করা হয়েছে।

শনিবার ভোরে উপজেলার মাশিন্দা মাঝপাড়া গ্রামে এই হত্যাকাণ্ড ঘটে।

নিহত কাবিল বিশ্বাস পাবনা জেলার চাটমহর উপজেলার ধানককুইনা গ্রামের নওশের বিশ্বাসের ছেলে।

নিহতের পরিবার ও পুলিশের ভাষ্য, প্রায় পাঁচ মাস প্রেমের সম্পর্ক থাকার পর পারিবারিকভাবে চার মাস আগে বিয়ে হয় কাবিল বিশ্বাস রুমা খাতুনের। 

শুক্রবার কাবিল বিশ্বাস মাশিন্দা মাঝপাড়া গ্রামে শ্বশুর বাড়িতে বেড়াতে যান। রাতে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে দাম্পত্য কলহের জের ধরে স্ত্রী রুমা খাতুন ধারালো অস্ত্র দিয়ে স্বামী কাবিল বিশ্বাসের লিঙ্গ কেটে ফেলেন। এতে ঘটনাস্থলেই কাবিল বিশ্বাস মারা যান। 

খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে নাটোর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে।

গুরুদাসপুর থানার ওসি সেলিম রেজা বলেন, “হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে স্ত্রী রুমা খাতুনকে আটক করা হয়েছে।”

স্ত্রী রুমা খাতুন দাবি করেন, অতিরিক্ত যৌন নির্যাতন সইতে না পেরে তিনি স্বামীর যৌনাঙ্গ কেটে ফেলেছেন।