artk
মঙ্গলবার, মার্চ ২৬, ২০১৯ ৯:৩০   |  ১২,চৈত্র ১৪২৫

বিচিত্র ডেস্ক

শনিবার, জানুয়ারি ১২, ২০১৯ ১২:০৩

‘ভুল’ কয়েন নিলামে বিক্রি হলো ১ কোটি ৬৮ লাখ টাকায়

media
  • ১৯৪৩ সাল। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়। আমেরিকার টাকশালে ভুলবশত ২০টা কয়েন তৈরি হয়। 

স্কুল থেকে টিফিন কিনে ফেরত টাকার মধ্যে একটি ‘ভুল’ কয়েন পেয়েছিলেন কিশোর। ৭২ বছর পর সেই ‘ভুল’ কয়েনেরই নিলাম হলো চড়া দামে!

১৯৪৩ সাল। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময়। আমেরিকার টাকশালে ভুলবশত ২০টা কয়েন তৈরি হয়। 

ভুল কেন? কারণ, সে সময় যুদ্ধসামগ্রী- যেমন বোমা, ফোনের তার তৈরিতে তামা বিপুলহারে ব্যবহৃত হত। জোগান পর্যাপ্ত রাখতে তামার ব্যবহার অন্যান্য খাতে যতটা সম্ভব কমানো হয়। তাই দস্তার প্রলেপ লাগানো স্টিলের কয়েন ছাপানো হতো আমেরিকায়। সেই সময়েই টাকশালে ভুলবশত ২০টা তামার মুদ্রা তৈরি হয়। সেই তামার কয়েনগুলো বাজারে বেরিয়েও যায়।

কিছু দিন পর কথা ছড়িয়ে পড়ে, এই লিঙ্কন (কয়েনের এক দিকে আব্রাহাম লিঙ্কনের ছবি থাকার জন্যই এই নাম) কয়েন ভুলবশত ছাপা হয়েছে এবং যে এই বিরল কয়েন ফেরত দেবে ফোর্ড মোটর কোম্পানি তাকে ওই কয়েনের পরিবর্তে গাড়ি দেবে। অফারের লোভে নকল তামার কয়েনে বাজার ছেয়ে যায়।

১৯৪৭ সালে এমনই একটা কয়েন পান ১৬ বছরের জন লুটস জুনিয়র, মাস-এর পিটসফিল্ড-এ জনের স্কুল ক্যাফেটেরিয়ায়। খাবার কিনে টাকা ফেরত পেয়েছিল ছোট্ট জন। তার মধ্যেই একটা তামার লিঙ্কন কয়েন ছিল।

বিরল কয়েনের বিনিময়ে গাড়ি পাওয়ার খবর জনও জানত। কিন্তু ট্রেজারি এবং ফোর্ড মোটর কোম্পানির সঙ্গে যোগাযোগ করে জানতে পারে, কয়েনের বদলে গাড়ি দেয়ার প্রস্তাব পুরোটাই গুজব। সবাই জনকে তখন বুঝিয়েছিলেন, এটা আসল লিঙ্কন কয়েন নয়। তা সত্ত্বেও কয়েনটা নিজের কাছে রেখে দেন জন।

২০১৮ সালের সেপ্টেম্বরে জন মারা যান। তত দিনে তিনি জেনে গিয়েছেন তার কাছে থাকা কয়েনটি আসল। মৃত্যুর আগে তিনি চেয়েছিলেন কয়েনটা বিক্রি করে দিতে। যাতে তার অবর্তমানে এই বিরল কয়েন সঠিক জায়গায় পৌঁছায়। ১০ জানুয়ারি জনের সংগ্রহের ওই কয়েন নিলামে ওঠে।

দুই লাখ চার হাজার ডলারে বিক্রি হয়েছে জনের ওই কয়েন। বাংলাদেশি মুদ্রায় যা প্রায় এক কোটি ৬৮ লাখ টাকার সমান। ২০১০ সালে এমনই একটি কয়েনের নিলাম হয়েছিল। দাম উঠেছিল এক লাখ ৭০ হাজার ডলার। পিটসফিল্ড-এ একটি লাইব্রেরির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন জন। নিলামের টাকা সেই লাইব্রেরির উন্নয়নে ব্যবহার করা হবে বলে জানা গেছে।

ঐশ্বরিয়ার এই ছবি নিয়ে গুঞ্জন কেন? যুদ্ধের শঙ্কা আছে, পাকিস্তান প্রস্তুত: ইমরান খান ভোট কেনার অভিযোগে আ. লীগ নেতা বহিষ্কার! পুলিশ ডেকে খালি করতে হলো সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে মাশরাফির ভাবনায় ‘ফিনিশিং’ বিশ্বকাপের প্রস্তুতি প্রিমিয়ার লিগে নয়: মাশরাফি ইতালিতে গণহত্যা দিবস পালিত রাজধানীতে নির্মাণাধীন ভবন থেকে বাঁশ পড়ে নারীর মৃত্যু উত্তরা থেকে শিশু গৃহকর্মীর লাশ উদ্ধার, হত্যার অভিযোগ গোলান নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ বিএনপির চিকিৎসার জন্য জামিন পেলেন নওয়াজ শরিফ শাবি উপাচার্য বললেন, ‘এরা ছাত্রলীগ নামধারী জঙ্গি’ বাথরুমের গ্রিল ভেঙে আসামির পলায়ন ভারতের আকাশ দিয়ে মাহাথিরকে পাকিস্তানে যেতে দেয়া হয়নি রাস্তায় গাড়িবহর থামিয়ে তরমুজ বিক্রেতাকে ডাকলেন অর্থমন্ত্রী মশারি টানানোর লাঠি নিয়ে ৭ মার্চের ভাষণ শুনতে গিয়েছিলাম: সিইসি বঙ্গবন্ধুর স্মৃতিচারণ করে কাঁদলেন মাহবুব তালুকদার ফুল দিয়ে ফেরার পথে বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর হামলা বাংলাদেশে আমিত্ব একটি বড় সমস্যা: দুদক চেয়ারম্যান একসঙ্গে অন্তঃসত্ত্বা হাসপাতালের ৯ নার্স স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে এসে সড়ক দুর্ঘটনায় ২ স্কুলছাত্রী নিহত ষোলো আনা মুক্তির জন্য আন্দোলন অব্যাহত রাখতে হবে: ড. কামাল যশোরে প্রথম সন্তান জন্মের ২৬ দিন পর জমজ সন্তান প্রসব! হবিগঞ্জে স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে হামলা, ২০ শিক্ষার্থী আহত জানেন কি ঢেঁড়সের এই উপকারিতাগুলো? স্বামী ও আমাকে হয়রানি করতেই এ মামলা: সালমা ফতুল্লায় ডাইং কারখানায় ভয়াবহ কেমিক্যাল বিস্ফোরণ টেকনাফে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে রোহিঙ্গা নিহত স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে যাওয়ার পথে দুর্ঘটনায় স্কুলছাত্রী নিহত সাংবাদিকদের সঙ্গে দুর্ব্যবহারে বিএসইসির দুঃখ প্রকাশ