artk
বৃহস্পতিবার, জানুয়ারি ২৪, ২০১৯ ৯:১৯   |  ১১,মাঘ ১৪২৫
শুক্রবার, জানুয়ারি ১১, ২০১৯ ৫:১৩

ছুটির দিনে মিরপুরে দর্শকদের বাঁধভাঙা উচ্ছ্বাস

media

শুক্রবার ছুটির দিনে মিরপুর শেরে-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে দর্শকদের বাঁদভাঙা উচ্ছ্বাস। দুপুর ২টায় ঢাকা ডায়নামাইটস ও রংপুরের মধ্যকার খেলা শুরুর আগেই থেকে মিরপুর স্টেডিয়ামের কানায় কানায় দর্শকে ভরে যায়। বহু দর্শক স্টেডিয়ামে বসে খেলা দেখার জন্য কয়েকগুন বেশি দামে টিকিট কিনে খেলা দেখছেন।

শুক্রবার ছুটির দিনে মিরপুর শেরে-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে দর্শকদের বাঁদভাঙা উচ্ছ্বাস। দুপুর ২টায় ঢাকা ডায়নামাইটস ও রংপুরের মধ্যকার খেলা শুরুর আগেই থেকে মিরপুর স্টেডিয়ামের কানায় কানায় দর্শকে ভরে যায়। বহু দর্শক স্টেডিয়ামে বসে খেলা দেখার জন্য কয়েকগুন বেশি দামে টিকিট কিনে খেলা দেখছেন।

আবার অনেক দর্শক টিকেটের জন্য ধন্য হয়ে ঘুরেও টিকিট মিলাতে পারছেনা। এবার দেশি তারকাদের সঙ্গে বিশ্বের নামি-দামি তারকা ক্রিকেটাররা খেলছেন বিপিএল। ক্রিস গেইল, স্টিভেন স্মিথ, অ্যালেক্স হেলস, ডেভিড ওয়ার্নার, আন্দ্রে রাসেল, এভিন লুইস, কাইরেন পোলার্ড, সুনিল নারিন, শহিদ আফ্রিদির মতো টি-টুয়েন্টি স্পেশালিস্টরা বিপিএলে অংশ নিয়েছে।

তবে ছুটির দিন ছাড়া বাকি দিনগুলোতে মিরপুরে দর্শক উপস্থিতি ছিল প্রায় শুন্য! অন্য দিনগুলোতে স্টেডিয়ামের গ্যালারি ফাঁকা থাকলেই শুক্রবার দর্শকদের উপস্থিতি বিপিএলর প্রাণ ফিরে পেয়েছে। বিপিএলে অন্যতম সেরা দুই দল মাশরাফি রংপুর ও সাকিবরে ঢাকা ডায়নামাইটসের মধ্যেকার খেলাটি শুরু হয় দুপুর ২টায়। সন্ধায় অপর ম্যাচে মুখোমুখি হবে শিরোপা প্রত্যাশি আর এক দল তামিম ইকবালের কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স ও মিরাজের রাজশাহী কিংস।

অবশ্য টিকিটের একটা বড় অংশ কিনে নিয়েছে বিপিএলে অংশ নেয়া দল ঢাকা ডায়নামাইর্স। শুক্রবার রংপুরের বিপক্ষে ম্যাচে ঢাকার কয়েক হাজার দর্শক বাসে করে স্টেডিয়ামে উপস্থিত হন। বিসিবির একটি সূত্র জানায়, ঢাকার দলের প্রধান কর্নধার একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঢাকা-১ আসন থেকে বিজয়ী সংসদ সদস্য সালমান এফ রহমানের নির্বাচনী এলাকা ঢাকার দোহার ও নবাবগঞ্জ থেকে বহু দর্শক কয়েকটি বাস যোগে স্টেডিয়ামে উপস্থিত হন।

টিকিট না পাওয়া সাধারণ এক দর্শক নিউজবাংলাদেশকে বলেন, আগের ম্যাচগুলোতে স্টেডিয়াম ফাঁকাই ছিল। ছুটির দিনে খেলা দেখতে এসেছিলাম। কিন্তু কোথায় টিকেট নেই। স্টেডিয়ামের বাইরে চোরাকারবারিদের হাতে দুই-একটা টিকিট পাওয়া যাচ্ছে তাও আবার কয়েকগুণ বেশি দামে। ২০০ টাকাট টিকিট ১ হাজার টাকা চাচ্ছে। ৫০০টাকায়ও পাওয়া যাচ্ছে না টিকিট।,