artk
বৃহস্পতিবার, জানুয়ারি ২৪, ২০১৯ ৯:২১   |  ১১,মাঘ ১৪২৫

স্টাফ রিপোর্টার

সংবাদ ডেস্ক

বৃহস্পতিবার, জানুয়ারি ১০, ২০১৯ ৮:০৭

ডোরিন পাওয়ারের লক-ইন ফ্রি ৬ কোটি শেয়ার

media

৫ জন উদ্যোক্তা পরিচালক এবং ৪ জন শেয়ারহোল্ডারের কাছে ৬ কোটি শেয়ার লক-ইন আছে। এই শেয়ার (৩০ শতাংশ বাদে বাকি শেয়ার) চাইলে নির্ধারিত আইন পরিপালন করে বিক্রি করার সুযোগ রয়েছে।

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ডোরিন পাওয়ার জেনারেশন অ্যান্ড সিস্টেমসের উদ্যোক্তা পরিচালকসহ শেয়ারহোল্ডারের ৩ বছরের লক-ইন থাকা ৬ কোটি শেয়ারের লক-ইন ফ্রি হচ্ছে আগামী রোববার।

৫ জন উদ্যোক্তা পরিচালক এবং ৪ জন শেয়ারহোল্ডারের কাছে ৬ কোটি শেয়ার লক-ইন আছে। এই শেয়ার (৩০ শতাংশ বাদে বাকি শেয়ার) চাইলে নির্ধারিত আইন পরিপালন করে বিক্রি করার সুযোগ রয়েছে। যদিও লক-ইন ফ্রি শেয়ার বিক্রি করা বা না করা উদ্যোক্তা পরিচালকদের সিদ্ধান্তের বিষয়। তবে এই শেয়ার বিক্রি করতে স্টক এক্সচেঞ্জের মাধ্যমে ঘোষণা নিয়ম রয়েছে।

জানা যায়, ২০১৫ সালের ১৩ জানুয়ারি ডোরিন পাওয়ারের প্রসপেক্টাস ইস্যু করা হয়। প্রসপেক্টাস ইস্যু থেকে ৩ বছর লক-ইন ছিল কোম্পানির ৬ কোটি শেয়ার। ২০১৫ সালের ৩০ নভেম্বর কোম্পানিটিকে প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) অনুমোদন দেয় বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

কোম্পানিটি পুঁজিবাজারে ২ কোটি শেয়ার ছেড়ে ৫৮ কোটি টাকা সংগ্রহ করে। কোম্পানিটিকে ১০ টাকা অভিহিত মূল্যের সাথে ১৯ টাকা প্রিমিয়ামসহ ২৯ টাকা মূল্যে শেয়ার ইস্যুর অনুমোদন দেয় কমিশন। সংগৃহীত টাকা দিয়ে ২টি সহযোগী কোম্পানির পাওয়ার প্লান্ট স্থাপন, ব্যাংক ঋণ পরিশোধ এবং আইপিওর কাজে ব্যয় করে ডোরিন পাওয়ার।

২০১৬ সালে তালিকাভুক্ত কোম্পানির মোট শেয়ারের মধ্যে উদ্যোক্তা পরিচালকদের কাছে রয়েছে ৭২ দশমিক ৬৩ শতাংশ শেয়ার, প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে ১৪ দশমিক ৩৮ শতাংশ শেয়ার, বিদেশি বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে দশমিক শূন্য ৭ শতাংশ এবং ১২ দশমিক ৯২ শতাংশ শেয়ার রয়েছে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে।