artk
মঙ্গলবার, মার্চ ২৬, ২০১৯ ৯:৩০   |  ১২,চৈত্র ১৪২৫
মঙ্গলবার, জানুয়ারি ৮, ২০১৯ ৯:০৭

পাকিস্তানের এক 'সুপারওম্যান'র গল্প

media
স্থানীয় নারীদের কাছে শেরবানু এখন রীতিমত 'সুপারওম্যান'। যিনি নারীদের সহায়তার জন্য নিজেই মিডওয়াইফ কিট কিনেছেন এবং তার আছে নিজস্ব প্রেশার মাপার যন্ত্র।

পাকিস্তানের অর্ধেকের কম নারী সন্তান জন্ম দানের সময়ে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ধাত্রীর সহায়তা পেয়ে থাকেন।বিশেষ করে প্রত্যন্ত পার্বত্য এলাকাগুলোকে গর্ভবতী নারীদের সন্তান জন্ম দিতে হয় কার্যত কারো সহায়তা ছাড়াই।

শেরবানু তার অভিজ্ঞতা থেকেই জানেন এটি কতটা কঠিন একটা কাজ।

আর সে কারণেই তিনি ভাবলেন এ শূন্যতা তিনি পূরণ করবেন এবং এটিই তাকে পরিণত করলো ওই অঞ্চলের প্রথম প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ধাত্রীতে।

শের বানু বলেন, “আমি আসলে কখনো গুনে দেখিনি কিন্তু এটি নিশ্চিত কমপক্ষে একশ শিশুর জন্ম হয়েছে আমার হাত ধরেই। সন্তান জন্মদানের সহায়তার বিনিময়ে আমি অর্থকড়ি নেই না।”

কেউ খুশি হয়ে চা খেতে দেয় আবার কেউবা হাতে একশ রুপি দেয়। এ এলাকার মানুষ গরীব এবং তাদের অনেকেরই কাজ নেই বলে জানান তিনি।

এভাবেই নিজের কাজ নিয়ে আনন্দের কথা বর্ণনা করছিলেন শেরবানু।

তিনি বলেন, “যখন আমার নিজের প্রথম সন্তান হয়েছিল তখন পুরো গ্রামে কোনো ধাত্রী ছিল না। দু’তিন দিন আমি কষ্ট করেছি সন্তান জন্মের সময় কারও সহায়তা ছাড়াই। তখনই কষ্টটা আমি অনুভব করেছি। আর সে কারণেই সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম যে এটিই ভালো করে শিখবো।

শেরবানু জানান, তাদের পার্বত্য এলাকায় কোনো ধরনের সুযোগ সুবিধাই নেই। এমনকি জরুরি প্রয়োজনে কোনো গাড়িই পাওয়া যায় না। কিন্তু দিনে বা রাতে যখনই হোক, তাকে কেউ ডাকলেই চলে যান।

স্থানীয় নারীদের কাছে শেরবানু এখন রীতিমত 'সুপারওম্যান'। যিনি নারীদের সহায়তার জন্য নিজেই মিডওয়াইফ কিট কিনেছেন এবং তার আছে নিজস্ব প্রেশার মাপার যন্ত্র।

গ্রামের গর্ভবতী নারীদের খোঁজ থাকে তার কাছে এবং নিজেই ঘুরে ঘুরে খবর নেন, প্রেশার মাপেন। দেখেন সব ঠিক আছে কি-না।

শেরবানুকে দেখে গ্রামের আরও কয়েকজন নারী ধাত্রীবিদ্যায় উৎসাহী হয়েছেন।

তিনি বলেন, “তারপরেও এটি যথেষ্ট নয়। আমাদের দরকার আরও বেশি সংখ্যক প্রশিক্ষিত নারী। কারণ এই এলাকাটি অনেক বড়।”

শেরবানুর আশা একদিন তার এলাকার সব মেয়েরাই প্রয়োজনীয় সব স্বাস্থ্যসেবা পাবে। তথ্যসূত্র: বিবিসি বাংলা।

নিউজবাংলাদেশ.কম/এমএস

ঐশ্বরিয়ার এই ছবি নিয়ে গুঞ্জন কেন? যুদ্ধের শঙ্কা আছে, পাকিস্তান প্রস্তুত: ইমরান খান ভোট কেনার অভিযোগে আ. লীগ নেতা বহিষ্কার! পুলিশ ডেকে খালি করতে হলো সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে মাশরাফির ভাবনায় ‘ফিনিশিং’ বিশ্বকাপের প্রস্তুতি প্রিমিয়ার লিগে নয়: মাশরাফি ইতালিতে গণহত্যা দিবস পালিত রাজধানীতে নির্মাণাধীন ভবন থেকে বাঁশ পড়ে নারীর মৃত্যু উত্তরা থেকে শিশু গৃহকর্মীর লাশ উদ্ধার, হত্যার অভিযোগ গোলান নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ বিএনপির চিকিৎসার জন্য জামিন পেলেন নওয়াজ শরিফ শাবি উপাচার্য বললেন, ‘এরা ছাত্রলীগ নামধারী জঙ্গি’ বাথরুমের গ্রিল ভেঙে আসামির পলায়ন ভারতের আকাশ দিয়ে মাহাথিরকে পাকিস্তানে যেতে দেয়া হয়নি রাস্তায় গাড়িবহর থামিয়ে তরমুজ বিক্রেতাকে ডাকলেন অর্থমন্ত্রী মশারি টানানোর লাঠি নিয়ে ৭ মার্চের ভাষণ শুনতে গিয়েছিলাম: সিইসি বঙ্গবন্ধুর স্মৃতিচারণ করে কাঁদলেন মাহবুব তালুকদার ফুল দিয়ে ফেরার পথে বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর হামলা বাংলাদেশে আমিত্ব একটি বড় সমস্যা: দুদক চেয়ারম্যান একসঙ্গে অন্তঃসত্ত্বা হাসপাতালের ৯ নার্স স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে এসে সড়ক দুর্ঘটনায় ২ স্কুলছাত্রী নিহত ষোলো আনা মুক্তির জন্য আন্দোলন অব্যাহত রাখতে হবে: ড. কামাল যশোরে প্রথম সন্তান জন্মের ২৬ দিন পর জমজ সন্তান প্রসব! হবিগঞ্জে স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে হামলা, ২০ শিক্ষার্থী আহত জানেন কি ঢেঁড়সের এই উপকারিতাগুলো? স্বামী ও আমাকে হয়রানি করতেই এ মামলা: সালমা ফতুল্লায় ডাইং কারখানায় ভয়াবহ কেমিক্যাল বিস্ফোরণ টেকনাফে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে রোহিঙ্গা নিহত স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে যাওয়ার পথে দুর্ঘটনায় স্কুলছাত্রী নিহত সাংবাদিকদের সঙ্গে দুর্ব্যবহারে বিএসইসির দুঃখ প্রকাশ