artk
বুধবার, জুন ১৯, ২০১৯ ১২:০২   |  ৫,আষাঢ় ১৪২৬
মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বার ৪, ২০১৮ ৫:০৪

খালেদার দুর্নীতি মামলার বিচার চলবে কারাগারেই

media

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার বিচার এখন অনুষ্ঠিত হবে পুরান ঢাকার নাজিমুদ্দিন রোডের পুরোনো কেন্দ্রীয় করাগারে। এই মামলার আসামি বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া অপর মামলায় সাজাপ্রাপ্ত হয়ে এই কারাগারে বন্দী আছেন। তিনি এ মামলায় নির্ধারিত তারিখে হাজিরা না দেয়ায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

তবে খালেদা জিয়ার আইনজীবী বলছেন, এটি হলে তা হবে আইনপরিপন্থী।

গত ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায়ে খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছর সশ্রম কারাদণ্ড ও অর্থ দণ্ডাদেশ দেন ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৫। বয়স ও সামাজিক মর্যাদার কথা বিবেচনা করে আদালত তাকে এই দণ্ডাদেশ দেন। এরপর থেকে খালেদা জিয়া নাজিমুদ্দিন রোডের পুরোনো কেন্দ্রীয় কারাগারে আছেন।

দুদকের কৌঁসুলি মোশাররফ হোসেন কাজল জানিয়েছেন, জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়ার বিচার পুরোনো কারাগারে স্থাপিত বিশেষ আদালতে অনুষ্ঠিত হবে। মঙ্গলবার আইনমন্ত্রণালয় এ–সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করতে পারে। পুরান ঢাকার কেন্দ্রীয় কারাগারের সামনে সংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

মোশাররফ হোসেন বলেন, জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার শুনানির তারিখে খালেদা জিয়া আদালতে হাজির হননি। বিচার বিলম্বিত হচ্ছে। এ কারণে কারাগারের ভেতরেই আদালত বসবেন। সেখানে গণমাধ্যমের কর্মীসহ জনগণের উপস্থিতিতে প্রকাশ্যে বিচার হবে।

কারাগারেরের ভেতর বিচার অনুষ্ঠিত হওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে খালেদা জিয়ার আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া প্রথম আলোকে বলেন, খালেদা জিয়ার বিচার কারাগারের ভেতর হবে, তারা এমন খবর জানেন না। কারাগারের ভেতর আদালত করা আইনের পরিপন্থী, এটা হতে পারে না।

আগামীকাল জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার শুনানির তারিখ ধার্য রয়েছে। মামলাটি যুক্তিতর্ক পর্যায়ে শুনানির জন্য রয়েছে।

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্টের নামে অবৈধভাবে ৩ কোটি ১৫ লাখ ৪৩ হাজার টাকা লেনদেনের অভিযোগে খালেদা জিয়াসহ চারজনের বিরুদ্ধে ২০১০ সালের ৮ আগস্ট তেজগাঁও থানায় এ মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। মামলার অপর আসামিরা হলেন হারিছ চৌধুরী, জিয়াউল ইসলাম ও মনিরুল ইসলাম খান।

নিউজবাংলাদেশ.কম/এসডি/এএইচকে

বিকল্প পথে ঢাকা থেকে সিলেট, দীর্ঘ যানজট আকাশের তৈরি সেই পরিবেশবান্ধব গাড়ি চালালেন ডিসি ‘পাসওয়ার্ড’ ছবির বিরুদ্ধে সেন্সর বোর্ডে অভিযোগ রেস্টুরেন্টে আফগান ক্রিকেটারদের ঝগড়াঝাঁটি প্রেমের টানে জার্মান নারী স্বামী-সংসার ফেলে খুলনায় যশোরে গণপিটুনিতে সন্ত্রাসী নিহত উবার চালককে পেটানোর ভিডিও করায় নিগৃহীত মিস ইন্ডিয়া বর্ষা ঋতুতে ব্যাঙ দাঁতে পেনসিল রেখে, বুড়ো আঙুলে ফুঁ দিয়েও সমস্যায় মুক্তি সৌদির প্রথম নারী পাইলট ইয়াসমিন মেসিদের দেখে ক্রুদ্ধ ম্যারাডোনা বগুড়ায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ গুলিবিদ্ধ ৮ মামলার আসামির মৃত্যু মিষ্টি কুমড়ায় যেসব ফাস্টফুড খাবার তৈরি করা যায় গোল করেও গোলশূন্য ড্র ব্রাজিলের হেসেখেলেই আফগানদের হারালো ইংল্যান্ড বিষাক্ত পোল্ট্রি-ফিস ফিড: ৬ কারখানা সিলগালা, ১০ জনের কারাদণ্ড ডোমিনিকান রিপাবলিক: মার্কিন পর্যটকদের মৃত্যুকূপ ঢাকাগামী সুন্দরবন-১০ লঞ্চে আগুন জাপানে শক্তিশালী ভূমিকম্প, সুনামি সতর্কতা জারি গাজীপুরে আ.লীগ প্রার্থী জয়ী, বিএনপি নেতার ভোট বর্জন ভাগনে অপহরণ: ফেসবুক লাইভে যা বললেন সোহেল তাজ আব্বাস: বদলে যাওয়া এক নিরব সব বিমানবন্দরে ডগ স্কোয়াড গঠনের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর রূপপুর প্রকল্পের বালিশ-কাণ্ডে সংসদীয় কমিটির অসন্তোষ মিশরের প্রথম বৈধ প্রেসিডেন্ট মুরসির উত্থান যেভাবে দুষ্টু লোকজন সামান্য গণ্ডগোলের চেষ্টা করেছে: ইসি সচিব তুরস্কে মুরসির গায়েবানা জানাজায় জনতার ঢল দেশব্যাপী বিড়ি শ্রমিকদের বিক্ষোভ, মানববন্ধন ৩৬ বছরের লজ্জার রেকর্ড এখন রশিদের মোবাইলে লেনদেনে নতুন করে চার্জের সুযোগ নেই: বিটিআরসি