artk
রোববার, সেপ্টেম্বার ২২, ২০১৯ ২:৩৮   |  ৭,আশ্বিন ১৪২৬
বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ৩০, ২০১৫ ১০:১৭

বনানীতে গুলিবিদ্ধদের কেউই ব্যবসায়ী নন!

media

ঢাকা: অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদকে কেন্দ্র করে বনানী সুপার মার্কেটে ব্যবাসয়ীদের সঙ্গে পুলিশের সংর্ঘষে গুলিবিদ্ধদের মধ্যে কেউই ব্যবসায়ী নন।

পুলিশের শর্টগানের গুলিতে ঝাঁঝড়া হয়ে গেছে অন্তত ৬ জনের শরীরের বিভিন্ন অংশ। এদের চার জনই দোকান কর্মচারী ও দুই জন ক্রেতা। ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়াই আহত হয়েছেন আরো ৮ জন।

বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর বনানী সুপার মার্কেটে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন, যেখানে নেতৃত্ব দেন পরিবহন বিভাগের মহাপরিচালক মাহবুবুর রহমান।

ঘটনার সূত্রপাত:
পুলিশ ও ব্যবসায়ীদের মধ্যে সংঘর্ষের কারণ জানতে মার্কেটের একাধিক দোকানি ও কর্তব্যরত নিরাপত্তা কর্মীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, সকাল ১১টার দিকে ৫ থেকে ৬ জন পুলিশ নিয়ে মার্কেটের প্রধান ফটকে উপস্থিত হন পরিবহন বিভাগের মহাপরিচালক মাহবুবুর রহমান। কোনো কথা বার্তা ছাড়াই তারা মার্কেটের দ্বিতীয় তলায় ‘রাজধানী ফেব্রিক্স অ্যান্ড টেইলার’ নামের একটি দোকানের সামনে রাখা একটি ‘পুতুল’ ফেলে দিয়ে দোকানের মালিককে ১ হাজার টাকা জরিমানা করেন। মার্কেটের তৃতীয় তলায় দোকান মালিক সমিতিরি অফিস। সেখান থেকে ঘটনাটি দেখে সমিতির সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ হাছান আজাদ দ্রুত ২য় তলায় নেমে গিয়ে সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তার কাছে ওই দোকানির অপরাধ কী জানতে চান। জবাবে উত্তর সিটির পরিবহন শাখার মহাপরিচালক মাহবুবুর রহমান তাকে অকথ্য ভাষায় গালাগালি শুরু করেন। এক পর্যায়ে মার্কেটের অন্যান্য দোকান মালিকরা ওই কর্মকর্তাকে ঘিরে ধরলে তিনি সঙ্গে থাকা পুলিশ সদস্যদের গুলি চালানোর নির্দেশ দেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ আনতে পুলিশের ছোড়া গুলিতে বিদ্ধ হন আলমগীর হোসেন, জামান হোসেন, আব্দুল হালিম ও মিন্টু সরকার। এরা সবাই ‘মাহবুব টেইলর্স’ নামের একটি দোকানের দর্জি। এছাড়া এসময় গুলিবিদ্ধ হন শরীফ ও জুবায়ের নামের দুই ব্যক্তি, যারা মার্কেটে এসেছিলেন কেনা-কাটা করতে।

মালিক সমিতির অভিযোগ:
ঘটনার পরপরই বনানী সুপার মার্কেটের দোকান মালিক সমিতির পক্ষ থেকে সমিতির কক্ষে সংক্ষিপ্ত বিফ্রিং করা হয়। সেখানে সমিতির সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ হাছান আজাদ অভিযোগ করেন, এলাকার সবগুলি মার্কেটেই অবৈধ দোকান রয়েছে, যেখান থেকে সিটি করপোরেশন নিয়মিত মাসোহারা পায়। কিন্তু এই মার্কেটে কোনো অবৈধ দোকান বা স্থাপনা নেই, যে কারণে এখান থেকে কোনো মাসোহারা উত্তর সিটি করপোরেশনকে দেওয়া হয় না। মূলত এই ক্ষোভ থেকেই সকালে এক কর্মকর্তা কয়েক জন পুলিশ সঙ্গে নিয়ে এসে মার্কের্টের বিভিন্ন জিনিস পত্র ফেলে দিতে থাকে। অবস্থা বেগতিক দেখে আমি গিয়ে তাকে শান্ত করার চেষ্টা করি। কিন্তু তিনি শান্ত না হয়ে পুলিশকে গুলি করার নির্দেশ দেন।

তিনি আরো অভিযোগ করে বলেন, উত্তর সিটি করপোরেশনের যে কর্মকর্তা এখানে এসেছিলেন তিনি ভূমি ও সম্পত্তি বিভাগের কেউ না। তিনি পরিবহন বিভাগের মহাপরিচালক। তিনি এখানে বিশেষ উদ্দেশ্যে এসেছিলেন।

উত্তর সিটি করপোরেশনের পাল্টা অভিযোগ:
দোকান মালিক সমিতিরি অভিযোগের বিষয়গুলো নিয়ে কথা বলতে গেলে উল্টো অভিযোগ করেন উত্তর সিটি করপোরেশনের প্রশাসক বিএম এনামুল হক। তিনি বলেন, যিনি অভিযান পরিচালনা করতে গিয়েছেন তিনি একজন প্রশাসক। মানছি তিনি ভূমি ও সম্পত্তি বিভগের না, কিন্তু তাতে কি। প্রশাসকতো প্রশাসকই। তিনি চাইলে আইননানুগভাবে যে কোনো জায়গাতেই অভিযান পরিচালনা করতে পারেন।

সংশ্লিষ্ট থানা পুলিশকে বিষয়টি অবগত করা হয়েছিলো কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, স্থানীয় থানাকে অভিযানের বিষয়টি জানানো হয়েছে কিনা সেটা আমার জানা নেই। তবে অভিযান পরিচালনার জন্য প্রয়োজনীয় পুলিশ চেয়ে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনারের বরাবর আবেদন করা হয়েছিলো। পরে তার অনুমতি ক্রমেই পুলিশ নিয়ে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়।

পাল্টা তিনি দোকান মালিকদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে বলেন, বনানী সুপার মার্কেটের সিঁড়ির পাশে কিছু অবৈধ দোকান রযেছে- এমন তথ্যের ভিত্তিতেই অভিযান পরিচালনা করতে যায় আমাদের লোকজন। কিন্তু সেখানকার দোকানদাররা কেন নির্বাহী কর্মকর্তা এবং তার সঙ্গে থাকা পুলিশের ওপর চড়াও হলেন এবং সরকারি কাজে বাধা দিলেন, সে বিষয়ে দ্রুতই আমরা পদক্ষেপ নেব।

নব নির্বাচিত মেয়রের কৌশলী অবস্থান:
ঘটনার প্রায় সাড়ে ৬ ঘণ্টা পর বনানী সুপার মার্কেটে হাজির হন নব নির্বাচিত ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আনিসুল হক। সাধারণ মানুষের ওপর পুলিশের গুলি চালানো বিষয়টিকে অনভিপ্রেত উল্লেখ করে তিনি বলেন, “মেয়র হিসেবে না, একজন সাধারণ নাগরিক হিসেবে আমি কখনোই গুলি চালানোকে সমর্থন করি না। তাছাড়া এখনো আমি দাপ্তরিক কোনো ক্ষমতা পাইনি। যদি কেউ এ ঘটনা তদন্তে সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে আবেদন করেন, তবে আমি অবশ্যই এক সুরাহা করার চেষ্টা করবো।”

তিনি আরো বলেন, “এখানে আমি এক পক্ষের বক্তব্য শুনলাম। এখনো আরেক পক্ষের বক্তব্য শোনা বাকি। ওটা শুনলে তারপর আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু বলতে পারব। এর আগে না।” এমন মন্তব্য করে দ্রুত মার্কেট থেকে বেরিয়ে যান উত্তরের নতুন নগর পিতা আনিসুল হক।

দায় এড়ানোর কৌশল পুলিশেরও:
ঘটনার পরপর পুলিশের গুলশান জোনের সহকারী কমিশনার (এসি) নুরুল আলিমের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, “সিটি করপোরেশনের ওই কর্মকর্তার সাথে মিরপুরের রিজার্ভ ফোর্স ছিলো, তাই বিষয়টি আমাদের জানা ছিলো না। তবে পরে আমি ঘটনাস্থলে গিয়ে ছিলাম। পরিস্থিতি এখন স্বাভাবিক।”

বনানী থানার ওসি ভূইয়া মাহবুব আহমেদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, “এই ধরণের উচ্ছেদাভিযানের কোনো তথ্য আমার কাছে ছিল না। সাধারনত এমন অভিযানের পূর্বে থানাকে জানানো হয়। কিন্তু এক্ষেত্রে কেন জানানো হলো না, সেটা আমার ঠিক জানা নেই।”

বলা বাহুল্য, সকাল ১১টায় ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের পরিবহন শাখার প্রশাসক মাহবুবুর রহমান উচ্ছেদাভিযান পরিচালনা করতে বনানী সুপার মার্কেটে যান। এসময় স্থানীয়দের ব্যবসায়ীদের সাথে পুলিশের সংঘর্ষে ৬ জন গুলিবিদ্ধসহ মোট আহত হন মোট ১৪ জন। ঢাকা মেডিকেলে, ইউনাইটেড মেডিকেল ও কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে তাদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। ঘেটনার পর থেকেই থমথমে পরিবেশ বিরাজ করছে মার্কেটে।

নিউজবাংলাদেশ.কম/এজে

নারায়ণগঞ্জে ডিবির গুলিতে পোশাক শ্রমিক আহত ১৫ বছর বয়সে ধর্ষিত হয়ে বাড়ি ছেড়েছেন নায়িকা বাংলাদেশের বিপক্ষে খেলবেন না ধোনি সদলবলে মধুর ক্যান্টিনে ছাত্রদলের সভাপতি-সম্পাদক কোহলিদের ভাতা দ্বিগুণ করলো ভারত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় মিন্নি থানায় তরুণীকে গণধর্ষণ: সাবেক ওসিসহ ৫ পুলিশের বিরুদ্ধে মামলা লোহাগড়ায় তিন শিক্ষককে হাতুড়িপেটা বাংলাদেশের মানবাধিকার নিয়ে কড়া সমালোচনা জাতিসংঘে কুষ্টিয়ায় রিকশাচালকের গলাকাটা লাশ উদ্ধার আবৃত্তিকার কামরুল হাসান মঞ্জু আর নেই ক্ষমতায় টিকতে ১৩৪ জনকে হত্যা যুবরাজের ‘বেঁচে থাকতে পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি হতে দেব না’ তেল শোধনাগারে হামলার প্রতিশোধ নেবে সৌদি আরব ‘মিসেস বাংলাদেশ’ হলেন মুনজারিন অবনী টেকনাফে আটকের পর ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রোহিঙ্গা দম্পতি নিহত বাগেরহাটে ধর্ষণ মামলায় আ.লীগ নেতা গ্রেপ্তার পানির নিচে বিয়ের প্রস্তাব দিতে গিয়ে যুবকের মৃত্যু লাইবেরিয়ায় অগ্নিকাণ্ডে কুরআন তেলাওয়াতরত ২৭ শিক্ষার্থীর মৃত্যু ভারত থেকে অস্কারে যাচ্ছে ‘গাল্লি বয়’ সাকিব তাণ্ডবে আফগানদের বিরুদ্ধে জয় পেল টাইগাররা শিবপুরে মদপানে দুই শ্রমিকের মৃত্যু পাটগ্রামে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে কলেজছাত্রীর অবস্থান চট্টগ্রামের মুক্তিযোদ্ধা ক্রীড়া সংসদেও জুয়ার আসর ১৩০টি দেশ ভ্রমণ করেছেন এই অন্ধ পর্যটক ৪০ কোটি টাকা নিয়ে পালানো সেই টার্কি বাবলু স্ত্রীসহ গ্রেপ্তার দুর্নীতির দায়ে সরকারের পদত্যাগ করা উচিত: ফখরুল চলমান অভিযান জনমনে প্রত্যাশার সৃষ্টি করবে: টিআইবি স্কুল মাস্টারের ছেলে জি কে শামীমের ডন হয়ে ওঠা রাজধানীর ভূতের আড্ডায় অভিযান!