artk

গাজীপুর সংবাদদাতা

বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারী ২০, ২০২০ ৯:৩৮

গাজীপুরে পুলিশের হেফাজতে নারীর মৃত্যু

নির্যাতনের অভিযোগ, পুলিশ বলছে অসুস্থতায় মৃত্যু
media

গাজীপুর মহানগর ডিবি পুলিশের নির্যাতনে এক গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। পুলিশ বলছে গ্রেপ্তারের পর অসুস্থতাজনিত কারণে ওই নারী মারা গেছেন। 

মৃত ইয়াসমিন বেগম (৪০) ভাওয়াল গাজীপুর গ্রামের আব্দুল হাইয়ের স্ত্রী। 

মাদক ব্যবসার অভিযোগে মঙ্গলবার সন্ধ্যার পর নগরীর গজারিয়া পাড়া এলাকার নিজ বাড়ি থেকে ইয়াসমিনকে ধরে নেয় ডিবি পুলিশ। এর পর রাতে হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। 

ইয়াসমিনের স্বজনদের দাবি, তাকে নির্যাতন চালিয়ে হত্যা করা হয়েছে। মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহিদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

নিহতের ছেলে ইয়াসিন আরাফাত জিসানের ভাষ্য, তার বাবা আব্দুল হাইকে মাদক মামলায় গ্রেপ্তার করতে রাত ৮টার দিকে মহানগর ডিবি পুলিশের এএসআই নুরে আলমের নেতৃত্বে সাত/আট জন পুলিশ তাদের বাড়িতে যায়। আব্দুল হাইকে না পেয়ে বাসার কলাপসিবল গেট ভেঙে ঘরে প্রবেশ করে পুলিশ। এসময় ডিবির সদস্যরা তার মা ইয়াসমিনকে মারধর করে আটক করে নিয়ে যায়। পরে জিসান তার মায়ের মোবাইলে ফোন দিলে পুলিশ তাকে ডিবি অফিসে যেতে বলে। কিছুক্ষণ পর পুলিশ আবার ডিবি অফিসে না গিয়ে শহিদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে যেতে বলে। সেখানে গেলে পুলিশ জানায়, জিসানের মা মারা গেছেন। 

তবে তার মা হৃদরোগী ছিলেন।

মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের উপকমিশনার মনজুর রহমান নির্যাতনে হত্যার অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, “ইয়াসমিনকে ১০০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ গ্রেপ্তার করা হয়। পরে গোয়েন্দা অফিসে নিলে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানোর প্রস্তুতিকালে ইয়াসমিন মারা যান।”

ইয়াসমিন ও তার স্বামী আব্দুল হাইয়ের বিরুদ্ধে মাদক আইনে একাধিক মামলা রয়েছে বলে তিনি দাবি করেন।

শহিদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, “১০টা ১০ মিনিটের দিকে ইয়াসমিনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এসময় তার বুকে ব্যথা ও প্রচণ্ড শ্বাসকষ্ট ছিল। পরে তার ইসিজিও করা হয়। লক্ষণ থেকে প্রাথমিকভাবে বুঝা গেছে তিনি হার্ট অ্যাটাক করেছেন। পরে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানোর পরামর্শ দেয়া হয়। এক পর্যায়ে রাত ১১টা ২০ মিনিটের দিকে তিনি মারা যান। হার্ট অ্যাটাকে তিনি মারা গেছেন বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হয়েছে। নিহতের শরীরে বাহ্যিকভাবে কোনো আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি।

তদন্ত কমিটি: এদিকে পুলিশের নির্যাতনে গৃহবধূ মৃত্যুর অভিযোগের বিষয়টি তদন্তের জন্য গাজীপুর মেট্রোপলিটন কমিশনার মো. আনোয়ার হোসেন তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছেন। এ কমিটির প্রধান হলেন অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মো. আজাদ মিয়া। আগামী সাত কার্যদিবসের মধ্যে কমিটিকে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে।

পশুর চেয়েও নিকৃষ্ট ধর্ষক: প্রধানমন্ত্রী করোনা ভাইরাসের কারণে হজে যাওয়া না হলে টাকা ফেরত: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী দাঙ্গা নয়, দিল্লিতে পরিকল্পিত গণহত্যা হয়েছে: মমতা ভারতের সম্মান তলিয়ে দিয়েছে মোদি সরকার: মমতা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে সুনামগঞ্জে এনামুল-রুপন ছয় দিনের রিমান্ডে পিরোজপুরে সাবেক ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে হত্যা চলতি বছরই তিস্তা চুক্তির সম্ভাবনা: শ্রিংলা ঢাকা উত্তরের নির্বাচন বাতিল চেয়ে তাবিথের মামলা খুলনায় ছাত্রলীগ নেতাকে পিটিয়ে হত্যা অভিনেতা গোলাম মুস্তাফার জন্মদিন সোমবার আদালতে টাউট-বাটপার শনাক্তের নির্দেশ পাওয়ার ট্রলিকে ধাক্কা দিয়ে বিকল রেলইঞ্জিন কলকাতা সফরে এসে প্রবল বিক্ষোভের মুখে অমিত শাহ রোবট চালাবে গাড়ি! ভিপি নূরকে হত্যার হুমকি দেয়ার পর দুঃখ প্রকাশ টেকনাফে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৭ জন নিহত রাখাইনপ্রদেশে সেনাদের গুলিতে শিশুসহ ৫ রোহিঙ্গা নিহত ইস্কাটনে ভবনে আগুন: মায়ের পর চলে গেলেন রুশদির বাবাও চট্টগ্রামে একটি বস্তিতে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ২ দেশে প্রতিদিন যক্ষ্মায় মারা যায় ১৩০ জন: স্বাস্থ্যমন্ত্রী করোনাভাইরাস আতঙ্কে আয়ারল্যান্ডের স্কুল বন্ধ ঘোষণা বিশিষ্ট সুরকার সেলিম আশরাফ আর নেই মোদীকে অতিথি হিসেবে সর্বোচ্চ সম্মান দেওয়া হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী মধুর যত জাদুকরী গুণ চিপসের প্যাকেটের ভিতর খেলনা নয়: হাইকোর্ট আমার গাড়িতেও অস্ত্র আছে কী না আমি জানি না: শামীম ওসমান ফ্র্যান্সেও করোনা, অনিশ্চিত কান চলচ্চিত্র উৎসব উপনির্বাচন: গাইবান্ধা-৩ আসনে প্রতীক বরাদ্দ গুজব ও গণপিটুনি রোধে হাইকোর্টের ৫ নির্দেশনা