artk

স্টাফ রিপোর্টার

সোমবার, জানুয়ারি ২০, ২০২০ ৬:০৩

লিফট দুর্ঘটনায় করণীয়

media

লিফট ছিঁড়ে যাওয়ার মতো ঘটনা সব সময় না ঘটলেও কখনও ঘটবে না এমন গ্যারান্টি দেওয়া যায় না। তাই আমাদের নিজেদেরই আগে ক্ষয়ক্ষতি কমানোর উপায় খুঁজে বের করতে হবে। সময়মতো সঠিক পদক্ষেপ নিতে পারলে জীবন বেঁচে যেতে পারে বা কম আহত হওয়ার সম্ভাবনাও থাকতে পারে।

বর্তমান সময় লিফট যেনো আমাদের জীবন-যাত্রার সঙ্গে জড়িয়ে পড়েছে। বাসা-বাড়ি হতে শুরু করে অফিস-আদালত এমনকি মার্কেটে গেলেও আমাদের উঠতে হয় লিফটে। লিফট যেমন আমাদের সময় বাঁচায় তেমনি আরামে গন্তব্যে পৌঁছায় দিয়ে থাকে। তবে দুর্ভাগ্যবশত এই পৃথিবীতে কেওই দুর্ঘটনার হাত হতে সম্পূর্ণভাবে নিরাপদ নয়। সব সময় এমনটি ঘটে না। অর্থাৎ লিফট ছিঁড়ে যাওয়ার মতো ঘটনা সব সময় না ঘটলেও কখনও ঘটবে না এমন গ্যারান্টি দেওয়া যায় না। তাই আমাদের নিজেদেরই আগে ক্ষয়ক্ষতি কমানোর উপায় খুঁজে বের করতে হবে। সময়মতো সঠিক পদক্ষেপ নিতে পারলে জীবন বেঁচে যেতে পারে বা কম আহত হওয়ার সম্ভাবনাও থাকতে পারে।

আঠারশো সালে সেফটি ব্রেক উদ্ভাবনের পর থেকে লিফটের উন্নয়নের কাজকে তরান্বিত করে এবং আজকের উন্নত ধরনের লিফটকে আমরা দেখছি। এগুলো এমনভাবে ডিজাইন করা হয়েছে । প্রতিটি লিফট কক্ষের ভেতর আলাদা স্টিলের কেবল থাকে যেটি ভেতরে সতর্কতামূলক বানীতে যে পরিমাণ ওজনের কথা বলা আছে তার চেয়ে অনেক বেশি ভার বহনে সাহায্য করে। এর ফলে তারের ওপর চাপ কম পড়ে। তবুও লিফট দুর্ঘটনার শিকার হলে যেসব পদক্ষেপ নেয়া যেতে পারে।

সোজা হয়ে দাঁড়ানোর ভুল ধারণা

লিফট ছিঁড়ে পড়তে সময় কেউ যদি দাঁড়িয়ে থাকে সেক্ষেত্রে লিফটটি তাকে নিয়ে নিচে পড়ার সময় তার ওজন স্বাভাবিক ওজনের চেয়ে অনেক গুণ বেড়ে যাবে। কীভাবে সেটা? মনে করা যাক, তার ওজন ৪০ কেজি আর লিফটটি তাকে নিয়ে নিচে পড়ছে প্রতি সেকেন্ডে ৪০ মিটার গতিতে। তাহলে তার ভরবেগ দাঁড়ালো ৪০x৪০=১৬০০ কেজি/মিটার প্রতি সেকেন্ডে। আর যেহেতু তার ও লিফটের উপর অভিকর্ষজ ত্বরণও কাজ করছে সেহেতু প্রতি সেকেন্ডে তার ভরবেগ বাড়তে থাকবে। আর ঠিক এই ভরবেগ নিয়ে যখন সে নিচে পড়বে, দাঁড়িয়ে থাকার ফলে তখন তার শরীরের কয়েক গুণ বাড়তি ভার লম্বালম্বিভাবে অল্প কয়েকটা বিন্দুতে কেন্দ্রীভূত হবে।

তাই কখনও লিফট ছিঁড়ে গেলে সোজা হয়ে দাঁড়িয়ে থাকাটাও খুব ভালো ধারণা নয়। কারণ হলো পতনের সময় শরীরের ওজনের কয়েক গুণ ওজন এসে ভর করে পায়ে। তখন মনে হবে তার ওজনের অনেক গুন বেশি ওজনের কিছু দিয়ে অনেক গতিতে কেউ তার মাথায় আঘাত করছে। ফলে মাথার ভারে আগে ভাঙবে ঘাড় এতে মারা যাওয়ার সম্ভাবনাও আছে।

লিফটের মধ্যে লাফালাফি নয়

যখন লিফট ছিঁড়ে ফ্রি স্টাইলে নিচে পড়ে যেতে থাকবে, তখন লাফ দেওয়ার চেষ্টা করাটা বোকামি হবে। দ্বিতীয়ত লাফালাফি করলে লিফট আরও বেশি গতিতে আছড়ে পড়তে পারে। তৃতীয়ত শরীরের কোনো অংশ পতিত হবে তা আগেভাগেই নির্ধারণ করা কোনোভাবেই সম্ভব নয়। বরং লাফের কারণে মাথায় আঘাত পাওয়ার সম্ভাবনা তো থাকেই সেই সাথে খুব খারাপভাবে শরীর নীচে আছড়ে পড়তে পারে।

বিশেষজ্ঞদের মতামত অনুযায়ী নিরাপদ কিছু কৌশল

বিশেষজ্ঞদের মতে, হঠাৎ লিফট যখন পড়ে যেতে থাকবে তখন যতো দ্রুত সম্ভব চিৎ হয়ে দুই হাত ও পা ছড়িয়ে লিফটের মেঝেতে শুয়ে পড়া একমাত্র এবং প্রধান নিরাপদ কৌশল।

তাতে করে শরীরের অন্য অংশগুলোতে শক্তি আরও ছড়িয়ে পড়বে। যে কারণে শরীরের কোনো নির্দিষ্ট অংশে অন্য কোনো অংশের তুলনায় খুব বেশি ওজন বিরাজ করবে না। নিচে পড়ার আঘাত শরীরের সব অংশে সমানভাবে লাগবে বলে ভারসাম্য রক্ষা করে শরীরের নির্দিষ্ট কোনো অংশ কম আঘাত পেতে পাবে। তবে সত্যিকার অর্থে এটা বাঁচার একটা চেষ্টা মাত্র, জখম হতেই পারে, তবে গুরুতর জখম হতে রক্ষা পাওয়ার সেরা একটা চেষ্টা হচ্ছে এই কৌশলটি অবলম্বন করা।

লিফটে বেশি মানুষ থাকলে করণীয়

হঠাৎ লিফট ছিঁড়ে গেলে লিফটে যদি বেশি সংখ্যক মানুষ থাকে সেক্ষেত্রে সবচেয়ে ভালো হচ্ছে, লিফটের মেঝেতে সকলেই বসে পড়া। দাঁড়িয়ে থাকলে অস্থিতে যে পরিমাণ চাপ পড়তো তার তুলনায় অস্থিতে কম চাপ পড়বে এই পজিশনে গেলে। যদি বসে পড়ার মতো জায়গা না থাকে, সেক্ষেত্রে অন্তত হাঁটু বাঁকা করে রাখার চেষ্টা করতে হবে, এটিও পায়ের বল কমাতে কিছুটা হলেও সাহায্য করবে।

যুক্তরাষ্ট্রকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিল হুয়াওয়ে ‘ভারত বুঝুক, হারের পর সামনে এসে উল্লাস করলে কেমন লাগে’ মৎস্য কর্মকর্তা লাঞ্ছিত, উপজেলা চেয়ারম্যান বরখাস্ত নারায়ণগঞ্জে শিশুসহ একই পরিবারের দগ্ধ ৮ নায়ক মান্না চলে যাওয়ার ১ যুগ করোনায় মৃত্যুর মিছিলে আরও ১০০ জন বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে ২ মেডিক্যাল শিক্ষার্থী নিহত ইঁদুরেই খেয়েছে ১ লাখ মেট্রিক টন ফসল করোনাভাইরাস আতঙ্কে সিঙ্গাপুরফেরত স্বামীকে রেখে পালালেন স্ত্রী ঘুষের অভিযোগ থেকে সিনহাকে অব্যাহতি কোভিড ১৯: এবার তাইওয়ানে প্রথম মৃত্যু ভোটাররা দেরিতে ঘুম থেকে উঠায় ভোট হবে ৯টায়: ইসি সচিব এই সেলফি তোলার পরেই ট্রেনের ধাক্কায় স্কুলছাত্রের মৃত্যু করোনাভাইরাস: প্রযুক্তিই চীনের শেষ ভরসা সঞ্চয়পত্রে নয়, সুদ কমেছে ডাকঘর সঞ্চয় স্কিমের: অর্থ মন্ত্রণালয় বিশ্বকাপজয়ী ৬ ক্রিকেটার নিয়ে বিসিবি একাদশ ঘোষণা সিরাজগঞ্জে বাস খাদে পড়ে নিহত ৩ চট্টগ্রাম, বগুড়া ও যশোর সিটিতে ভোট ২৯ মার্চ করোনাভাইরাস শনাক্তে বাংলাদেশকে উন্নত কিটস দেবে চীন একত্রে কাজ করবে ডিএসই ও সিএসই বিশ্রামে রিয়াদ, ফিরলেন তাসকিন-মোস্তাফিজ করের বকেয়া অর্থ না দেয়াও দুর্নীতি: দুদক চেয়ারম্যান দক্ষদের নিয়োগ দিচ্ছে টেসলা, ডিগ্রি না হলেও চলবে খালেদা জিয়ার প্যারোল আবেদন সরকার পায়নি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী চিকেন পক্স হলে কী খাবেন বাংলা তারিখ ব্যবহারে নিষ্ক্রিয়তা কেন অবৈধ নয়: হাইকোর্ট কারিগরি শিক্ষার্থীদের বেশি গুরুত্ব দেয়ার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর ডিএসইএক্সের সেরা দ্বিতীয় উত্থান মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে তৃতীয় মেয়াদে শপথ নিলেন কেজরিওয়াল ফিটনেস ও নিবন্ধনহীন গাড়ি বন্ধে সব জেলায় টাস্কফোর্স গঠনের নির্দেশ