artk

বিদেশ ডেস্ক

বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বার ১২, ২০১৯ ৭:৪৫

সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে নির্যাতনের অভিযোগ অস্বীকার করেনি মিয়ানমার

media

সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে বর্বর নির্যাতনের অভিযোগ বা ২০১৭ সালের সাঁড়াশি অভিযানের পর রোহিঙ্গাদের ব্যাপকভাবে দেশান্তরের অভিযোগ অস্বীকার করার চেষ্টা পর্যন্ত করেনি মিয়ানমার।

সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে বর্বর নির্যাতনের অভিযোগ বা ২০১৭ সালের সাঁড়াশি অভিযানের পর রোহিঙ্গাদের ব্যাপকভাবে দেশান্তরের অভিযোগ অস্বীকার করার চেষ্টা পর্যন্ত করেনি মিয়ানমার।

নেদারল্যান্ডসের রাজধানী হেগের এই আদালতে গণহত্যার মামলার শুনানিতে বৃহস্পতিবার গাম্বিয়ার পক্ষে প্রতিনিধিত্বকারী প্রধান কৌঁসুলি পল রিখলার একথা বলেন।

দেশটির মামলার পূর্ণাঙ্গ শুনানির আগ পর্যন্ত বিচারকদের কাছে বারবার মিয়ানমার সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে সাময়িক পদক্ষেপ দাবি করেন তিনি।

রোহিঙ্গাদের উপর নৃশংস নির্যাতনের জন্য দায়ী সেনাদের বিচার ও সহিংসতা বন্ধে দ্রুত পদক্ষেপ নেয়ার বিষয়ে মিয়ানমারের উপর আস্থা রাখা যায় না বলে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতকে জানিয়েছে গাম্বিয়া।

১৯৪৮ সালের জেনেভা কনভেনশনের অধীনে পশ্চিম আফ্রিকার দেশ গাম্বিয়ার করা এই মামলায় বৃহস্পতিবার তৃতীয় ও শেষ দিনে শুনানি ছিল।

শুনানিতে গাম্বিয়ার পক্ষে আইনজীবী পল রাইখলার  বলেন, আদালত নিশ্চয়ই একটি বিষয় লক্ষ্য করেছেন, মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সেলর অং সান সু চি আদালতে রোহিঙ্গা বিশেষণটি ব্যবহার করেননি। তিনি বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠন আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মির (আরসা) কথা বলতে গিয়ে তাদের মুসলিম হিসেবে তুলে ধরেছেন। মিয়ানমারের আইনজীবী গণহত্যার উদ্দেশ্য প্রমাণের জন্য সাতটি নির্দেশকের কথা বলেছেন। যা গাম্বিয়ার আবেদনেও রয়েছে। এগুলো মিয়ানমার অস্বীকার করেনি।

গাম্বিয়ার পক্ষে শুনানিতে দেশটির আইনমন্ত্রী আববু বকর তামবাদু বলেন, মিয়ানমার আমাদের প্রতিবেশী রাষ্ট্র না হতে পারে কিন্তু গণহত্যা সনদে সই করা দেশ গাম্বিয়া। গণহত্যা বন্ধে এবং প্রতিরোধে আমাদের দায়িত্ব আছে। দেশটিতে হুমকিতে রয়েছে রোহিঙ্গাদের জীবন।

তিনি শুনানিতে বক্তব্য শেষ করেন ছয়টি অন্তর্বর্তী ব্যবস্থার নির্দেশনা দেওয়ার অনুরোধ জানিয়ে। পরের অধিবেশনে মিয়ানমারের পক্ষে জবাব ও যুক্তি তুলে ধরা হবে।

এদিন ‘ইন্টারন্যাশন্যাল কোর্ট অব জাস্টিস’ (আইসিজে)-এ যুক্তি-তর্ক অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এর আগে শুনানির প্রথম দিন বাদী পক্ষের বক্তব্য শোনা হয়। শুনানির দ্বিতীয় দিন মিয়ানমারের পক্ষে জবাব দেন দেশটির স্টেট কাউন্সেলর অং সান সু চি।

স্মার্ট বাজারে ক্লাসিক: নোকিয়া ২৭২০ ফ্লিপ ইভিএমে ৫০ শতাংশ ভোট না পড়লে ব্যালটে ভোটগ্রহণ চান ইসি মাহবুব সালমাদের ভারত বধ পঞ্চম বিয়ে সারলেন পামেলা কুবি সমাবর্তন: চ্যান্সেলর অ্যাওয়ার্ড পাচ্ছেন ১৩ শিক্ষার্থী চীনে ভাইরাসে ৯ জনের মৃত্যু আক্রান্ত ৪৪০ সংসদে ৮২৩৮ জন ঋণখেলাপির তালিকা প্রকাশ কুকুর হত্যার দায়ে আট মাসের কারাদণ্ড একুশ ফার্স্ট প্রসপেক্টাস অনুমোদন ধনী-গরিব নির্বিশেষে সুবিচার নিশ্চিতে সরকার বদ্ধপরিকর: প্রধানমন্ত্রী ডিএসই-সিএসইর নতুন এমডি নিয়োগের অনুমোদন বিএসইসির এশিয়া ও বিশ্ব একাদশের ম্যাচ আয়োজন করছে না ভারত অনিয়মের বিরুদ্ধে দুদকের অভিযান মানিকগঞ্জে বাসায় ঢুকে মেয়ের চোখের সামনে মাকে হত্যা নির্বাচনী গণসংযোগে হামলা: ইসির পদক্ষেপের অপেক্ষায় তাবিথ এসকে সিনহাকে হাজিরে গেজেট প্রকাশের নির্দেশ ই-পাসপোর্ট পেতে আবেদন করবেন যেভাবে চাটার্ড বিমানে রাতে পাকিস্তানে উড়াল দিচ্ছে টাইগাররা দুর্নীতি করে জনগণের হক নষ্ট করবেন না: দুদক কমিশনার চাই না, নির্বাচনে কোনো অভিযোগ ইসি পর্যন্ত গড়াক: সিইসি টাইগারদের নতুন পেস বোলিং কোচ গিবসন সব ধরনের সূচকে উত্থান নিউজিল্যান্ড সফরে ভারতের দল ঘোষণা পাকিস্তান-বাংলাদেশ ম্যাচ দিয়ে অভিষেক হচ্ছে মাদুগালের গণতন্ত্র সূচকে বাংলাদেশের ৮ ধাপ অগ্রগতি ঢাবির ৪ শিক্ষার্থীকে রাতভর পিটিয়েছে ছাত্রলীগ ফারমার্স ব্যাংকের তিন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে চার্জশিট কাশ্মীর ইস্যুতে পাক-ভারতকে সাহায্য করতে চান ট্রাম্প বিজিএমইএ ভবন ভাঙার কাজ শুরু পর্তুগালে সংঘর্ষে মৃত্যুর খবর সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন ও গুজব