artk

লাইফস্টাইল ডেস্ক

বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বার ১২, ২০১৯ ১০:৫৩

শরীর চাঙ্গা রাখতে সিঁড়ি ভাঙুন নিয়মিত

media

সিঁড়ি ভাঙা অংক যাদের কঠিন লাগত, তাদের আবার কষতে হবে সেই অংক। তবে খাতা কলমে নয়, একেবারে বাস্তবেই সিঁড়ি ভাঙতে হবে নিয়মিত। শরীর ফিট রাখতে অথবা মেদ ঝরাতে নিয়মিত সিঁড়ি ভাঙার বিকল্প নেই, এরকমটাই বলছেন চিকিৎসকেরা।

সুস্থ শরীরের জন্য জিম কিংবা ডায়েট ছাড়াও কিছু শরীরচর্চার প্রয়োজন। হাঁটা, জগিং, সিঁড়ি দিয়ে ওঠানামা করা তার মধ্যে অন্যতম। সিঁড়ি দিয়ে ওঠানামা করা শরীরের শক্তি বৃদ্ধি, মাংসপেশীর গঠন এবং ভারসাম্য দৃঢ় করতে খুবই কার্যকর একটা কসরত। বেশি  ক্যালোরি ঝরানো এবং পেশী সুঠাম করতে সাহায্য করে এই পদ্ধতি।

লিফ‌্ট ব্যবহার না করে দিনের মধ্যে বার কয়েক সিঁড়ি দিয়ে ওঠানামা করলে হ্যামস্ট্রিংয়ের জোর বাড়ে। হাঁটুর মাংসপেশী মজবুত হওয়া ছাড়াও এতে প্রচুর উপকার হয়।

মাংসপেশীকে সক্রিয় করে 

সমতল ভূমিতে দৌড়ানো কিংবা হাঁটার চেয়ে সিঁড়ি দিয়ে ওঠানামার সময় শরীরের মাংসপেশীগুলো বেশি সক্রিয় থাকে। সমতলে হাঁটার সময় শুধুমাত্র পায়ের পেশিই সক্রিয় থাকে। তবে সিঁড়িতে চড়ার সময় আপনার গ্লুটস, কোয়াডস এবং হ্যামস্ট্রিং একসঙ্গে কাজ করে।

রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে

সিঁড়ি দিয়ে ওঠানামা হার্ট সুস্থ রাখতে এবং রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণেও সাহায্য করে। ধমনীতে রক্ত সঞ্চালন ভালো হয় এবং হৃদস্পন্দন স্বাভাবিক থাকে।

শারীরিক শক্তি এবং ভারসাম্য বাড়ে

সিঁড়ি দিয়ে ওঠানামার সময় পায়ের স্থির পেশী, গোড়ালি এবং পেরোনাল টেনডন শরীরের ভারসাম্য রক্ষার্থে একসঙ্গে কাজ করে থাকে। এই কসরতের ফলে আপনার শরীরিক শক্তি বাড়ে। কসরতের শুরুর দিকে পায়ে টান ধরা বা ব্যথা অনুভূত হলেও পরে নিজেকে তরতাজা লাগবে।

মানসিক স্বাস্থ্যের বিকাশ হয়

শরীরে রক্ত সঞ্চালন ঘটার ফলে হরমোন গ্রন্থি থেকে ‘ভালো’ হরমোনের ক্ষরণ হয়। যার ফলে মানসিক স্থিতিশীলতা বৃদ্ধি পায়। মন ভাল থাকে।

সিঁড়ি ভাঙার নিয়মগুলো জেনে নিন

সিঁড়ি দিয়ে ওঠানামাকে দৈনিক কসরতের তালিকায় ফেলার আগে কিছু বিষয় খেয়াল রাখুন।

মেরুদণ্ড সোজা রেখে সিঁড়ি ভাঙুন

একদম প্রথমেই খুব বেশি সিরি ভানবেন না

যে কোনও চটি বা জুতো না পরে স্পোর্টস শু পরে সিঁড়ি ভাঙার অভ্যাস করুন।

জিয়া বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বড় বড় পদে অধিষ্ঠিত করেছিলেন: মোজাম্মেল লক্ষ্মীপুরে সরিষা চাষে আগ্রহ বাড়ছে চাষিদের বঙ্গবন্ধুর নাম কেউ মুছে ফেলতে পারবে না: প্রধানমন্ত্রী র‌্যাগিংয়ের অভিযোগে পবিপ্রবির ১৫ শিক্ষার্থী বহিষ্কার হালদা নদীকে ‘বঙ্গবন্ধু মৎস্য হেরিটেজ’ ঘোষণা ‘নির্বাচনী বার্তা কী দেবে, কথাই তো বলতে পারছেন না’ ‘ময়ূরপঙ্খী’ ছিনতাইয়ের চেষ্টার চূড়ান্ত প্রতিবেদন আদালতে ৫ উইকেটে হার দিয়ে সফর শুরু বাংলাদেশের এবার সিলেটগামী পারাবত এক্সপ্রেসে আগুন চুয়াডাঙ্গায় র‌্যাব পরিচয়ে গণডাকাতি নারায়ণগঞ্জ বন্দরে জাহাজ চাপা পড়ে নিহত ২ নির্বাচনে বিএনপির জয় বাধাগ্রস্ত করতে ষড়যন্ত্র করছে আ’লীগ: ফখরুল স্মার্টফোন আসক্তি দূর করতে গুগলের তিন অ্যাপ করোনাভাইরাস: সংক্রমণ ঠেকাতে মাস্ক কতটা কার্যকর পাকিস্তানকে ১৪২ রানের লক্ষ্য দিল টাইগাররা ভারতের সাথে হেরে টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরু নিউজিল্যান্ডের চলতি অর্থবছরের সব সূচকেই প্রবৃদ্ধির উর্ধ্বগতি অব্যাহত রয়েছে: অর্থমন্ত্রী বিএনপি একটি ব্যর্থ রাজনৈতিক দল: কাদের খালেদা জিয়াকে দেখতে বিএসএমএমইউতে স্বজনরা পাকিস্তানের বিপক্ষে টস জিতে ব্যাট করছে টাইগাররা ৯১ বছর বয়সে এসে যাজক বললেন তিনি সমকামী চট্টগ্রামে একটি বস্তিতে আগুন কোকো-আনিসুলের কবর জিয়ারত করে প্রচারণায় তাবিথ-ইশরাক বাহুবলে বাস খাদে পড়ে নিহত ৩ শিশুদের জন্য উৎসব নামের মিল থাকায় বিনাদোষে কারাবাস! করোনাভাইরাস: চীনে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৫, আতঙ্কে গোটা বিশ্ব শৈত্যপ্রবাহ কমার পর ঝরতে পারে বৃষ্টি আ.লীগের নতুন কমিটির নেতৃবৃন্দসহ টুঙ্গিপাড়ায় শেখ হাসিনা পশ্চিমবঙ্গে পেঁয়াজের মূল্যবৃদ্ধি রুখতে ৫০ হাজার টনের কোল্ড স্টোরেজের পরিকল্পনা