artk

স্টাফ রিপোর্টার

বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বার ৫, ২০১৯ ৭:২৯

নামাজ পড়লে সুস্থ থাকা যায়: মার্কিন গবেষণা

media

নামাজ নিয়ে গবেষণা করেছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বিংহ্যাম্পটন বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক। পরে তারা দীর্ঘ পর্যবেক্ষণ ও পরীক্ষা-নিরীক্ষার ফলাফলে বলেছেন, এটা প্রমাণ করেছে যে, দৈনিক পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়ার মাধ্যমে মানুষ স্বাস্থ্যগত দিক থেকেও উপকৃত হতে পারে এবং শারীরিকভাবে সুস্থ থাকতে পারে।

নামাজ নিয়ে গবেষণা করেছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বিংহ্যাম্পটন বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক। পরে তারা দীর্ঘ পর্যবেক্ষণ ও পরীক্ষা-নিরীক্ষার ফলাফলে বলেছেন, এটা প্রমাণ করেছে যে, দৈনিক পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়ার মাধ্যমে মানুষ স্বাস্থ্যগত দিক থেকেও উপকৃত হতে পারে এবং শারীরিকভাবে সুস্থ থাকতে পারে।

গবেষকরা বলেছেন, নামাজের সময় শারীরিক যে ক্রিয়া হয়ে থাকে এটা যদি নিয়মিতভাবে ও নির্ধারিত সময়ে হয় তবে অন্য সব চিকিত্সা থেকে পিঠের ব্যথা কমানোর ক্ষেত্রে বেশি ভূমিকা পালন করবে এই নামাজ। শারীরিক এই উপকার ছাড়াও নামাজ আল্লাহর সঙ্গে মানুষের সম্পর্ক বৃদ্ধি করে। আর এই সম্পর্ক মানুষের আত্মাকে প্রশান্ত করে। নিয়মিত নামাজ শরীরের ওপর এই ঝিম প্রভাব, রক্তচাপ এবং হূদস্পন্দন কমাতে পারে, পরিণামে পেশি শিথিল করতে সাহায্য করে। বিংহ্যাম্পটন বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা দেখিয়েছেন, যদি কেউ ঠিক মতো রুকু করতে পারে তাহলে তার পিঠে কোনো ব্যথা থাকবে না। কেননা রুকুর সময়ই পিঠ সমান হয়ে থাকে।

এই গবেষণায় মূলত নামাজ পড়লে শারীরিক যে উপকারগুলো হবে সেই বিষয়গুলোকেই বড়ো করে তুলে ধরা হয়েছে। রুকু: নিচের পিঠ, উরু এবং ঘাড়ের পেশিগুলো সম্পূর্ণভাবে প্রসারিত করে। রক্ত শরীরের ওপরের অংশে প্রবাহিত হয়। সিজদা: সিজদা দিলে হাঁড়ের জোড়ার নমনীয়তা বাড়ে। মাথা নামানোর সময় মস্তিকে রক্ত সঞ্চালন হলে রক্তচাপও কমে এবং মস্তিষ্কের কার্যকারিতা বৃদ্ধি পায়। 

সিজদার পুনরাবৃত্তি: এই সিজদা শরীরের ভারসাম্য এনে দেয়।

তবে এটা সত্য যে নামাজ শারীরিক উপকারের জন্য পড়তে হয় না। নামাজ পড়তে হয় মহান আল্লাহর আদেশ পালন করার জন্য। তাকওয়া বা আল্লাহভীতি অর্জনের জন্য।

 

বুধবার থেকে ই-পাসপোর্ট, মিলবে আগারগাঁও, উত্তরা ও যাত্রাবাড়ীতে মতিউর রহমানসহ ৬ জনকে গ্রেফতার ও হয়রানি না করার নির্দেশ সৌদি থেকে একদিনেই ফেরত ২২৪ বাংলাদেশি বাবার মৃত্যুর ৭ দিনের মাথায় বাসচাপায় নিহত ছেলে পরোয়ানার সঙ্গে গণমাধ্যমের স্বাধীনতার কোনো সম্পর্ক নেই: তথ্যমন্ত্রী ফরিদপুরে ঘুমন্ত মা-মেয়ের মৃত্যু আগুনে পুড়ে সৌদি ধনকুবেরের সঙ্গে রিয়ান্নার প্রণয়ের যবনিকা শেষ হলো বিশ্ব ইজতেমা নাগরিকত্ব আইন সংশোধনের প্রয়োজন ছিল না: শেখ হাসিনা নির্বাচন কমিশন একেবারেই ব্যর্থ ও অযোগ্য: মির্জা ফখরুল প্রথম আলো সম্পাদকসহ ৫ জনের জামিন আবেদন যুক্তরাষ্ট্রে বন্দুকধারীর গুলিতে একই পরিবারের নিহত ৪ ইয়েমেনে হুতি বাহিনীর হামলায় সিহত ৬০ স্ত্রী-শাশুড়িসহ ৪ জনকে হত্যার পর আত্মহত্যা বন্ধের দিনে আদালতে নারীসহ ধরা খেলেন আইনজীবী ‘বন্দুকযুদ্ধে’ রোহিঙ্গা নিহত, ৬ কোটি টাকার ইয়াবা জব্দ জিম্বাবুয়েকে উড়িয়ে শুরু বাংলাদেশের যুব বিশ্বকাপ মঙ্গলবার থেকে আবারও শীত নামতে পারে পুতিন কে এবং তিনি কী চান? রাজকীয় উপাধি-প্রাসাদ ব্যবহার করবেন না হ্যারি ও মেগান আখেরি মোনাজাতে অংশ নিতে তুরাগতীরে মুসল্লিদের ঢল অস্টিওপরোসিস রোধ করে বাদাম ঢাকার দুই সিটির ভোট ১ ফেব্রুয়ারি এসএসসি পরীক্ষা শুরু ৩ ফেব্রুয়ারি: শিক্ষা মন্ত্রণালয় সড়ক পরিবহন আইন নিয়ে ‘পাথওয়ে’র প্রশিক্ষণ কর্মসূচি চীন ও মিয়ানমারের ৩৩ চুক্তি স্বাক্ষরিত মারা গেছেন বিশ্বের সবচেয়ে খাটো চলনক্ষম ব্যক্তি নগরবাসীর স্বতঃস্ফূর্ত সাড়া পাচ্ছি: তাপস বলিউড অভিনেত্রী শাবানা আজমি সড়ক দুর্ঘটনায় আহত বিশ্ব ইজতেমার দুই পর্বে ১৯ মুসল্লির মৃত্যু